বগুড়া: মান ঠিক রেখে প্রান্তিক কৃষকের কাছ থেকে ধান কিনতে হবে জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, সরকারিভাবে ধান কেনার ব্যাপারে কোনো কৃষক হয়রানি হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে ছাড়া দেওয়া হবে না।

">
bangla news

কৃষকের কাছ থেকে ধান কিনতে হবে: খাদ্যমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম | আপডেট: ২০১৯-০৫-১৫ ৯:০৪:৩৪ পিএম
কৃষকের কাছ থেকে ধান কিনতে হবে: খাদ্যমন্ত্রী
বক্তব্য রাখছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার/ছবি: আরিফ জাহান

বগুড়া: মান ঠিক রেখে প্রান্তিক কৃষকের কাছ থেকে ধান কিনতে হবে জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, সরকারিভাবে ধান কেনার ব্যাপারে কোনো কৃষক হয়রানি হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে ছাড়া দেওয়া হবে না।

বুধবার (১৫ মে) দুপুরে বগুড়া সদর এলএসডি খাদ্য গুদাম প্রাঙ্গণে আয়োজিত বগুড়ায় অভ্যন্তরীণ বোরো ধান ও চাল সংগ্রহ ২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
 
জেলা প্রশাসক (ডিসি) ফয়েজ আহাম্মদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার আরও বলেন, সরকারিভাবে সারাদেশে ধান ক্রয় শুরু হলে বাজারে ধানের দাম বাড়বে। এবার কৃষকের উৎপাদন ব্যয়ের পাশাপাশি শ্রমিক ব্যয়ও বেড়ে গেছে।
 
তাই শ্রমিক ব্যয় কমাতে মন্ত্রী আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর যন্ত্রপাতি ব্যবহার বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে। এখন কাউকে আর না খেয়ে মরতে হয় না।
 
অনুষ্ঠানে রাজশাহীর আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনিরুজ্জামান, বগুড়ার পুলিশ সুপার (এসপি) আলী আশরাফ ভুঞা, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. মকবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুন উর রশীদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
 
এর আগে খাদ্যমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে এ জেলায় সরকারিভাবে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান সংগ্রহ অভিযান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।
 
বগুড়া জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এসএম সাইফুল ইসলাম জানান, এবার জেলার ১২টি উপজেলায় ৫ হাজার ৫৮৬ মেট্রিকটন ধান, ৭ হাজার ৪৬ মেট্রিকটন আতপ চাল ও ৭৮ হাজার ৩৫৪ মেট্রিক টন সেদ্ধ চাল সংগ্রহ করা হবে। বোরো সংগ্রহ অভিযান চলবে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত। সরাসারি কৃষকের কাছ থেকে এসব ধান ক্রয় করা হবে।
 
খাদ্য বিভাগের এই কর্মকর্তা আরও জানান, চলতি বছর অভ্যন্তরীণ বোরে সংগ্রহ অভিযানে প্রতি কেজি ধান ২৬ টাকা, আতপ চাল ৩৫ টাকা ও সেদ্ধ চাল ৩৬ টাকা দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। জেলার ২ হাজার ১৮১টি রাইস মিল ও ৮৩টি আতপ রাইস মিল মালিক চাল সরবরাহের জন্য ইতোমধ্যেই চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ২১০১ ঘণ্টা, মে ১৫, ২০১৯
এমবিএইচ/এসএইচ

Phone: +88 02 8432181, 8432182, IP Phone: +880 9612123131, Newsroom Mobile: +880 1729 076996, 01729 076999 Fax: +88 02 8432346
Email: news@banglanews24.com , editor@banglanews24.com
Marketing Department: 01722 241066 , E-mail: marketing@banglanews24.com

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কপিরাইট © 2019-06-24 10:37:09 | একটি ইডব্লিউএমজিএল প্রতিষ্ঠান