চট্টগ্রাম: ভোক্তা অধিকার সংগঠনগুলো কার্যকর ভূমিকা রাখতে সক্ষম হচ্ছে না মন্তব্য করে বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান বলেছেন, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণে সবার আগে ক্রেতা-বিক্রেতাকেই সচেতন হতে হবে।

">
bangla news

ভোক্তা অধিকার সংগঠন কার্যকর ভূমিকা রাখছে না: মান্নান

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম | আপডেট: ২০১৯-০৩-১৫ ১০:০৮:১১ পিএম
ভোক্তা অধিকার সংগঠন কার্যকর ভূমিকা রাখছে না: মান্নান
বক্তব্য দেন মো. আবদুল মান্নান। ছবি: বাংলানিউজ

চট্টগ্রাম: ভোক্তা অধিকার সংগঠনগুলো কার্যকর ভূমিকা রাখতে সক্ষম হচ্ছে না মন্তব্য করে বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান বলেছেন, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণে সবার আগে ক্রেতা-বিক্রেতাকেই সচেতন হতে হবে।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল- এসডিজির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ ও নিরাপদ খাদ্যের বিকল্প নেই। নিরাপদ খাদ্য ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জিরো টলারেন্স প্রদর্শনের নির্দেশনা দিয়েছেন। তবে দেশের ভোক্তারা সচেতন নয়। ভোক্তা অধিকার সংগঠনগুলোও নানা কারণে কার্যকর ভূমিকা রাখতে সক্ষম হচ্ছে না।

কনজ্যুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) চট্টগ্রামের সভাপতি এস এম নাজের হোসাইন বলেন, ভোক্তারা নিরাপদ ও মানসম্পন্ন পণ্য প্রাপ্তির বেলায় পুরোপুরি সংকটে রয়েছে। প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছে, ঠকছে। কিন্তু আইনী সুবিধা নিশ্চিত হচ্ছে না। ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত করতে হলে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরও আন্তরিক ও ভোক্তাবান্ধব হতে হবে।

জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা, স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক দীপক চক্রবর্ত্তী, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) নুরুল আলম নিজামী, চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মাহবুবুল আলম, উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মেহেদী হাসান প্রমুখ।

সভায় পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থানার মাধ্যমে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ব্যাখা করেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান।

এর আগে সকালে ভোক্তা অধিকার দিবস উপলক্ষে র‌্যালি বের করা হয়। সাকির্ট হাউস প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে র‌্যালিটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আবারও সেখানে গিয়ে শেষ হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২২০৫ ঘণ্টা, মার্চ ১৫, ২০১৯
এসইউ/টিসি

Phone: +88 02 8432181, 8432182, IP Phone: +880 9612123131, Newsroom Mobile: +880 1729 076996, 01729 076999 Fax: +88 02 8432346
Email: news@banglanews24.com , editor@banglanews24.com
Marketing Department: 01722 241066 , E-mail: marketing@banglanews24.com

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কপিরাইট © 2019-06-24 10:35:17 | একটি ইডব্লিউএমজিএল প্রতিষ্ঠান