অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে ‘আর্মি ক্যাপ’ পরে মাঠে নেমেছিলেন বিরাট কোহলিরা। কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত দেশটির আধা সামরিক বাহিনীর সদস্যদের স্মরণেই এমন সিদ্ধান্ত। কিন্তু বিষয়টা ভালোভাবে নেয়নি পাকিস্তান। এর আগে দেশটির দুই মন্ত্রী এই নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে আইসিসিকে ব্যবস্থা নিতে বলেছিলেন। এবার আইসিসির কাছে চিঠি লিখে কোহলিদের বিরুদ্ধে নালিশ জানালো পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

">
bangla news

কোহলিদের নিষিদ্ধের দাবি করলো পাকিস্তান!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম | আপডেট: ২০১৯-০৩-১১ ৩:০০:১৪ পিএম
কোহলিদের নিষিদ্ধের দাবি করলো পাকিস্তান!
অজিদের বিপক্ষে 'আর্মি ক্যাপ' পরে মাঠে নামেন কোহলিরা-ছবি: সংগৃহীত

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে ‘আর্মি ক্যাপ’ পরে মাঠে নেমেছিলেন বিরাট কোহলিরা। কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত দেশটির আধা সামরিক বাহিনীর সদস্যদের স্মরণেই এমন সিদ্ধান্ত। কিন্তু বিষয়টা ভালোভাবে নেয়নি পাকিস্তান। এর আগে দেশটির দুই মন্ত্রী এই নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে আইসিসিকে ব্যবস্থা নিতে বলেছিলেন। এবার আইসিসির কাছে চিঠি লিখে কোহলিদের বিরুদ্ধে নালিশ জানালো পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

‘আর্মি ক্যাপ’ পরার পরিকল্পনা সবার আগে সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক ও বর্তমানে উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মাহেন্দ্র সিং ধোনি মাথায় আসে। পরে দলের বাকি সবাই তার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেন। অনেকেই হয়তো জানেন না যে, ভারতীয় সেনাবাহিনী ধোনিকে সম্মানসূচক ‘লেফটেন্যান্ট কর্নেল’ পদ দিয়েছে। ভারতীয় মিডিয়া জানিয়েছে, আইসিসি’র অনুমতি নিয়েও ‘আর্মি ক্যাপ’ পরেছিলেন ধোনিরা। 

নিজেদের ম্যাচ ফি নিহতদের পরিবারের কল্যাণে দান করাসহ জাতীয় প্রতিরোধ ফান্ডের জন্য অনুদান দিতে মানুষকে অনুপ্রাণিত করা ছিল ‘আর্মি ক্যাপ’ পরার অন্যতম উদ্দেশ্য। এই ফান্ডের মাধ্যমে নিহতদের পরিবারের পাশে দাঁড়ানো ও তাদের সন্তানদের পড়ালেখার দায়িত্ব নেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাদের এমন উদ্যোগ পুরো ভারত এমনকি সারা বিশ্বেই প্রশংসা কুঁড়ায়। 

কিন্তু এই নিয়েই ক্ষেপেছে পাকিস্তান। আইসিসি’র কাছে শক্ত প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে পিসিবি। ভারতের বিপক্ষে কঠিন ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিও করেছে তারা। পিসিবি’র চেয়ারম্যান এহসান মানি রোববার (১০ মার্চ) সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘এই বিষয়ে আমাদের আর কোনো দ্বিধা-দ্বন্দ্ব নেই, তাই আমরা আইসিসি’র কাছে আমাদের শক্ত অবস্থান তুলে ধরেছি। আমরা আমাদের আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শ করে আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যে আরও একটি চিঠি পাঠাবো।’

মানি বলেন, পাকিস্তানের অবস্থান খুবই পরিস্কার যে, ক্রিকেটের সঙ্গে রাজনীতি মেশানো যাবে না। তার মতে, ভারতীয় ক্রিকেটাররা যে উদ্দেশ্যে আইসিসি’র অনুমতি নিয়েছিল তা বাস্তবায়ন না করে বরং ব্যবহার করেছে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে।

তিনি বলেন, ‘এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ক্রিকেটে রাজনীতি মেশানোর চেষ্টা করলো বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)। তারা আইসিসি’র কাছ থেকে এক কাজের জন্য অনুমতি নিয়ে ভিন্ন কাজ করেছে, যা কিছুতেই মেনে নেওয়া যায় না।’

গত মাসে, পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলার পর ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে উদ্দেশ্য করে পাকিস্তানকে ‘বয়কট’ করার আহবান জানিয়েছিল বিসিসিআই। কিন্তু আইসিসি’র সভায় তাদের সেই প্রস্তাব নাকচ হয়ে যায়। এমনকি বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানকে বাদ দেওয়ারও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল ভারতের তরফ থেকে। সেই প্রসঙ্গ ধরেই মানি এবার ফিরতি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলছেন।

আইসিসিকে ইমরান তাহির ও মঈন আলীর সঙ্গে যা ঘটেছে তাও মনে করিয়ে দিয়েছেন পিসিবি প্রধান। আইসিসি’র পরিচ্ছদ সংক্রান্ত আইন ও রাজনৈতিক বক্তব্য দেওয়ার কারণে এই দুই ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছিল আইসিসি। এবার একইরকম শাস্তি ভারতীয় ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রেও প্রয়োগের দাবি জানিয়েছেন মানি।

এর আগে পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশী একই কারণ দেখিয়ে আইসিসি ও পিসিবি’র প্রতি ভারতের বিরুদ্ধে শক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানিয়েছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০১ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০১৯
এমএইচএম/এমএমএস

Phone: +88 02 8432181, 8432182, IP Phone: +880 9612123131, Newsroom Mobile: +880 1729 076996, 01729 076999 Fax: +88 02 8432346
Email: news@banglanews24.com , editor@banglanews24.com
Marketing Department: 01722 241066 , E-mail: marketing@banglanews24.com

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কপিরাইট © 2019-05-25 00:13:51 | একটি ইডব্লিউএমজিএল প্রতিষ্ঠান