চট্টগ্রাম: সিনেমা প্যালেস সড়ক দিয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রবেশ আর রাইফেল ক্লাব হয়ে প্রস্থান। নন্দনকানন বৌদ্ধ মন্দির সড়ক, নিউমার্কেট, লালদিঘীর পাড় এলাকা সর্বত্রই ছিল লোকে লোকারণ্য।

">
bangla news

সব পথ মিশেছে স্মৃতির মিনারে

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম | আপডেট: ২০১৯-০২-২১ ১:৪৪:৫২ পিএম
সব পথ মিশেছে স্মৃতির মিনারে
স্মৃতির মিনারে এসে মিশেছে সব পথ। ছবি: সোহেল সরওয়ার

চট্টগ্রাম: সিনেমা প্যালেস সড়ক দিয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রবেশ আর রাইফেল ক্লাব হয়ে প্রস্থান। নন্দনকানন বৌদ্ধ মন্দির সড়ক, নিউমার্কেট, লালদিঘীর পাড় এলাকা সর্বত্রই ছিল লোকে লোকারণ্য।

শিশু থেকে বৃদ্ধ সবাই এসেছিলেন স্মৃতির মিনারে ভাষা শহীদদের ফুলেল শ্রদ্ধা জানাতে। সবগুলো পথ এসে মিশে গেছে সেখানে।

প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাদের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ভোরের আলো ছড়িয়ে পড়ার আগেই অমর একুশের স্লোগান আর গানে মুখরিত হয়ে ওঠে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ। এরপর ফুলে ঢেকে যায় শহীদ বেদি।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের শ্রদ্ধা নিবেদন। ছবি: সোহেল সরওয়ার১৯৫২ সালের এই দিনে ভাষার জন্য যারা প্রাণ দিয়েছেন, তাদের প্রতি ভালোবাসা জানাতে নামলো জনস্রোত।

দীর্ঘ লাইন পেরিয়ে শহীদ মিনারে আসা বিভিন্ন সংগঠনের এ জনস্রোত সামলাতে হিমশিম খেতে হয় কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের।

গর্ব আর শোকের এই দিনটিতে বাঙালি স্মরণ করেছে রফিক, জব্বার, সফিউর, বরকতদের। বুকে ছিল প্রত্যয় ‘একুশ মানে মাথা নত না করা’।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের শ্রদ্ধা নিবেদন। ছবি: সোহেল সরওয়ারঅমর একুশের সেই কালজয়ী গান ‘আমার ভায়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি..” যখন মাইকে বাজছিল, তা শুনে গাইছিলেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী। তারা বললেন, এ গান যে অন্তরে গেঁথে আছে।

শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে আবৃত্তিশিল্পী রবীন কর্মকার বললেন, পৃথিবীর বুকে ভাষার জন্য রক্ত দিয়ে, অকাতরে জীবন বিলিয়ে দেওয়ার ইতিহাস রয়েছে একমাত্র বাঙালি জাতির। একুশে ফেব্রুয়ারি তাই বাঙালির চেতনার প্রতীক।

শহীদ বেদিতে পুলিশ সুপারের শ্রদ্ধা নিবেদন। ছবি: সোহেল সরওয়ার‘একুশের শহীদদের স্থান বাঙালির হৃদয়ের মর্মমূলে। অমর একুশে তাই আত্মত্যাগের অহংকারে ভাস্বর একটি দিন; জেগে ওঠার প্রেরণা। দেশমাতৃকার প্রয়োজনে আত্মোৎসর্গ করার শপথ গ্রহণের দিন।’

অমর একুশে আজ বাঙালির দিশা, হৃদয়াপ্লুত ঐশ্বর্য, প্রাণের স্পন্দন। শহীদদের শোণিতধারায় যে আলোকিত পথের উন্মোচন হয়েছিল, সেই পথ ধরে এসেছিল স্বাধীনতা। আজ আত্মমর্যাদায় সমুন্নত এক জাতি হিসেবে বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর অন্তহীন প্রেরণার নাম একুশে ফেব্রুয়ারি।

শহীদ মিনারে সিএমপি কমিশনারের শ্রদ্ধা নিবেদন। ছবি: সোহেল সরওয়ারএকুশ এখন আর কেবল বাঙালির নয়, নয় শুধু বাংলাদেশের-সীমান্ত ছাড়িয়ে দিবসটি হয়ে উঠেছে বিশ্বমানবের। জাতিসংঘের সব সদস্য দেশ এই দিনে নিজ নিজ মাতৃভাষার কথা স্মরণ করে, ভালোবাসা জানায় বাংলা ভাষার প্রতি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯
এসি/টিসি

Phone: +88 02 8432181, 8432182, IP Phone: +880 9612123131, Newsroom Mobile: +880 1729 076996, 01729 076999 Fax: +88 02 8432346
Email: news@banglanews24.com , editor@banglanews24.com
Marketing Department: 01722 241066 , E-mail: marketing@banglanews24.com

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কপিরাইট © 2019-06-18 01:52:04 | একটি ইডব্লিউএমজিএল প্রতিষ্ঠান