bangla news

জাবিতে শিক্ষক নিয়োগে শিক্ষকদের বাধা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম | আপডেট: ২০১২-০৬-১৯ ১২:১১:০১ পিএম
জাবিতে শিক্ষক নিয়োগে শিক্ষকদের বাধা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে আবারও উপাচার্যের কার্যালয় অবরোধ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমাজসহ বিভিন্ন ফোরামের শিক্ষকরা।

জাবি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে আবারও উপাচার্যের কার্যালয় অবরোধ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমাজসহ বিভিন্ন ফোরামের শিক্ষকরা।

মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগে দু’টি প্রভাষক পদে শিক্ষক নিয়োগের জন্য মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও দুপুর পৌনে ২টায় বিভিন্ন ফোরামের শিক্ষকরা প্রশাসনিক ভবনে অবস্থান নেন।

পরে বিকেল পৌনে ৪টার দিকে শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন।

বৈঠক শেষে শিক্ষক সমাজের আহ্বায়ক অধ্যাপক নাসিম আখতার হোসাইন জানান, শিক্ষক সমাজের ১১ দফার অন্যতম দাবি ছিল গত তিন বছরে নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের মাধ্যমে পর্যালোচনা কমিটি গঠন।

এটি গঠনের আগে নতুন করে শিক্ষক নিয়োগ না দেওয়ার জন্য উপাচার্যের কাছে অনুরোধ করা হয়। উপাচার্য তাদের এ বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের শিক্ষক সহযোগী অধ্যাপক রায়হান রাইন জানান, সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবিরের সময়ে নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে নিয়োগ সংক্রান্ত যে সব অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে সে সব অভিযোগ তদন্ত করার পর শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার জন্য তারা উপাচার্যকে বলেছেন।

তিনি আরও জানান, উপাচার্য তাদের বলেছেন, “এ সিলেকশন সভায় প্রার্থী সিলেক্ট হলেও তা আগামী সিন্ডিকেট সভায় উঠবে না।”

এছাড়া উপাচার্য গত তিন বছরে নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ তদন্ত করতে ইউজিসিকে বলবেন বলেও জানান তিনি।

এদিকে, শিক্ষক নিয়োগ বিষয়ে প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি সহযোগী অধ্যাপক সোহেল আহমেদ বলেন, “বিভাগে ২২ জন শিক্ষক থাকলেও কয়েকজন শিক্ষক দেশের বাইরে থাকায় বিভাগে কোর্সের চাপ রয়েছে।”

উল্লেখ্য, সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবিরের সময়ে অন্যান্য বিভাগের সঙ্গে প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের জন্য দু’টি প্রভাষক পদে শিক্ষক নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

পরবর্তীতে গত ৩ এপ্রিল মৌখিক পরীক্ষার দিন ধার্য করা হলেও শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে তা নিতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বাংলাদেশ সময়: ২২০৫ ঘণ্টা, জুন ১৯, ২০১২
সম্পাদনা: নাজিম উদ দৌলা সাদি ও ওবায়দুল্লাহ সনি, নিউজরুম এডিটর

Phone: +88 02 8432181, 8432182, IP Phone: +880 9612123131, Newsroom Mobile: +880 1729 076996, 01729 076999 Fax: +88 02 8432346
Email: news@banglanews24.com , editor@banglanews24.com
Marketing Department: 01722 241066 , E-mail: marketing@banglanews24.com

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কপিরাইট © 2019-07-16 07:26:44 | একটি ইডব্লিউএমজিএল প্রতিষ্ঠান