ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বাহরাইন

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর

আশায় বুক বাঁধছেন বাহরাইন প্রবাসীরা

মোসাদ্দেক হোসেন সাইফুল, বাহরাইন করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২১, ২০১৫
আশায় বুক বাঁধছেন বাহরাইন প্রবাসীরা পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী

মানামা (বাহরাইন): প্রথমবারের মতো দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে বাহরাইন গেলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

বাংলাদেশের কোনো পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এটিই প্রথম বাহরাইন সফর।

ভৌগোলিক প্রেক্ষাপটসহ বিভিন্ন কারণে মধ্যপ্রাচ্যের এই ছোট্ট দ্বীপ রাষ্ট্রটি বাংলাদেশি শ্রমিকদের অপার সম্ভাবনাময় হলেও বরাবরের মতো দেশটি ছিল সরকারের সুদৃষ্টির বাইরে।

প্রবাসীরা বলছেন, বাহরাইনে প্রায় দুই ল‍াখের বেশি প্রবাসী এখানে বিভিন্ন ধরনের কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। কিন্তু বাহরাইনের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বি-পক্ষীয় কূটনৈতিক সম্পর্ক গড়ে ওঠেনি।

বাহরাইনের শ্রমবাজারে বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয় আর প্রথমে রয়েছে ভারত। এখানকার ক্ষুদ্র ব্যবসা, ফুড চেইন মার্কেট, রিটেইল সেলস মার্কেটিং, ব্যাংকিং, বৃহৎ বিনিয়োগ, মিডিয়া সব কিছুতেই ভারতীয়দের কর্তৃত্ব রয়েছে।

প্রবাসের বিভিন্ন সূত্র বলছে, ভারতীয়রা বাংলাদেশিদেরই তাদের সবচেয়ে বড় প্রতিযোগী মনে করে। আর ভারতীয়দের নিয়ন্ত্রিত মিডিয়াগুলোও বাংলাদেশিদের সামান্য ভুল-ত্রুটিকে ফলাও করে প্রচার করে।

দুই দেশের সরকারের মধ্যে দ্বি-পক্ষীয় সম্পর্ক জোরদারের কারণে তা সম্ভব হচ্ছে বলে মনে করেন প্রবাসী ব‍াংলাদেশিরা।

তারা বলেন, কাজের সুনাম থাকা সত্ত্বেও  শুধু ‘দুর্বল’ ক‍ূটনৈতিক সম্পর্কের কারণে বাইরাইনে নানা সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন বাংলাদেশি শ্রমিকরা। এমনকি একই কাজ করে অন্য দেশের শ্রমিকদের তুলনায় বাংলাদেশিরা পারিশ্রমিকও পাচ্ছেন কম।

সূত্র জানায়, স্বাধীনতার পর ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশের সঙ্গে বাহরাইনের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হয়। এরপর  ১৯৯৯ সালে বাহরাইনের কিং শেখ ঈসার মৃত্যুর পর শোক জানাতে স্বল্প সময়ের জন্য বাহরাইনে যান (তৎকালীন) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

চলতি বছরের মার্চে একটি স্বাস্থ্য বিষয়ক সেমিনারে অংশ নিতে বাহরাইনে যান স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক।   এর আগে ২০১১ সালে বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ খালিদ বিন আহমেদ বিন মোহাম্মদ আল খলিফা ঢাকা সফর করেন। তারপর ২০১৩ সালে দেশটির একটি সংসদীয় প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফর করে।

এবার বাহরাইন সফর করছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী। তার সফরকে কেন্দ্র করে আশায় বুক বাঁধছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

তারা বলছেন, দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে গেলে বাংলাদেশি শ্রমিকদের মানোন্নয়নের পাশাপাশি এখানে সম্ভাবনাময় বিশাল শ্রমবাজার তৈরি হবে।

সফরকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে বেশ কিছু দাবি জানাবেন প্রবাসীরা। এরমধ্যে ঢাকা-বাহরাইন সরাসরি উড়োজাহাজ সার্ভিস, নিজস্ব ভূমিতে বাংলাদেশ স্কুল প্রতিষ্ঠা, ঢাকায় বাহরাইনের দূতাবাস স্থাপন, বাংলাদেশিদের ভিসা দেওয়ার ক্ষেত্রে মেডিকেলের মেয়াদ ৩ থেকে ৬ মাস বাড়ানো, পুলিশ ক্লিয়ারেন্সসহ অন্যান্য প্রক্রিয়া সহজীকরণ ইত্যাদি।

বাংলানিউজকে কয়েকজন প্রবাসী বলেন, এসব দাবি দীর্ঘদিনের। দাবি-দাওয়া সরকারের উচ্চ মহলে পৌঁছালে এ বিষয়ে ফলপ্রসূ সিদ্ধান্ত আসবে।

সফরকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাইরাইনের কিং হামাদ বিন ঈসা আল আল খলিফা, প্রধানমন্ত্রী শেখ খলিফা বিন সালমান আল খলিফা, ক্রাউন প্রিন্স শেখ সালমান বিন হামাদ আল খলিফা, লেবার অ্যান্ড সোস্যাল ডেভেলপমেন্ট মন্ত্রী জামিল বিন মোহাম্মাদ হুমাইদান, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ খালিদ বিন আহমেদ বিন মোহাম্মদ আল খলিফা এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী লে. জেনারেল শেখ রশিদ বিন আবদুল্লাহের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

তার এ সফরে বাংলাদেশ-বাহরাইনের  মধ্যে তিনটি দ্বি-পক্ষীয় চুক্তি হতে পারে বলেও সূত্র নিশ্চিত করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২১, ২০১৫/আপডেট ০৩০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২২
এমএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

বাহরাইন এর সর্বশেষ

Alexa