ঢাকা, বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আওয়ামী লীগ

নৌকা প্র‌তীক ব্যবহারের বিষয় খ‌তিয়ে দেখা হবে: কাদের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭
নৌকা প্র‌তীক ব্যবহারের বিষয় খ‌তিয়ে দেখা হবে: কাদের সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের/ফাইল ছবি

ঢাকা: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিন) নির্বাচনে দল মনোনয়ন দেয়ার আগে কারও নৌকা প্র‌তীক ব্যবহারের সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। 

তিনি বলেন, কেউ ব্যবহার করলে আওয়ামী লীগ সে‌টি খতিয়ে দেখবে।

শ‌নিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেল ৪টায় মোহাম্মদপুর বিআর‌টি‌সি ডিপো পরিদর্শনে এসে সাংবা‌দিকদের এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তি‌নি।

 

বি‌জিএমই এর সাবেক সভাপ‌তি আ‌তিকুল ইসলাম ডিএন‌সি‌সি নির্বাচনে নৌকা প্র‌তীকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী দা‌বি করে প্রচারণা চালাচ্ছেন।  বিষয়‌টি নিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্য জানতে চাইলে কাদের বলেন, আমরা বিএন‌পির মতো নই যে বাবা ছেলের নাম ঘোষণা করবে।

তি‌নি বলেন, আওয়ামী লীগে বিভ্রান্তি সৃ‌ষ্টির সুযোগ নেই। ইউ‌নিয়ন চেয়ারম্যানের ক্ষেত্রেও দলীয় মনোনয়ন বোর্ড সিদ্ধান্ত নেয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের মনোনয়ন মনোনয়ন বোর্ড দেবে প্রার্থী। ‌শি‌ডিউল ঘোষণার পর এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।  

'এখানে কেউ হয়তো নৌকা প্র‌তীক ব্যবহার করে ব্যানার লা‌গিয়েছে। সেটা আমরা খ‌তিয়ে দেখবো। ' 

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত সংসদ সদসরা অবৈধ প্রতিনিধি বলে যে বক্তব্য ড. কামাল হোসেন দিয়েছেন এর পাল্টা প্রশ্ন করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ১৯৭৩ সালে ড. কামাল নিজে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নিবাচিত হয়েছিলেন। তাহলে তিনি কি অবৈধ ছিলেন সেসময়।

কাদের বলেন, ‘আমাদের সংসদ ও অধিকাংশ সংসদ সদস্য যদি অবৈধ হতো তাহলে ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়ন কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি ইউনিয়ন তারা তাদের গ্রান্ড কনফারেন্স বাংলার মাটিতে করতো না। আইপিউ কিভাবে বাংলাদেশের সংসদকে অনুমোদন করলো। তাহলে তারা কি অবৈধ সংসদকে অনুমোদন করেছে।

আর ড. কামাল হোসেন গুম খুন নিয়ে বক্তব্যের জবাবেও বলেছেন, ‘বিএনপির লোক ঢাকায় গুম খুনের নিয়ন্ত্রণ করছে, আওয়মী লীগ নয়। ’

এর আগে মন্ত্রী মোহাম্মদপুর বিআরটিসি ডিপোর ১২ শতাংশ জায়গা সিটি করপোরেশনের কাছে ছেড়ে দেয়ার জন্য নীতিগতভাবে একমত হন। সেখনে স্থানীয় সংসদ সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক ও স্থানীয় কাউন্সিলর রাজিবুজ্জামান রাজিব উপস্থিত ছিলেন।

ওবায়দুল কাদের এ বিষয়ে জানান, বিআরটিসি এ জায়গাটুকু সিটি করপোরেশনের প্রয়োজনে ছেড়ে দেবে। ২৭ শতাংশের মধ্যে ১২ শতাংশ প্রয়োজন সিটি করপোরেশনের।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭
এসএ/এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa