ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আওয়ামী লীগ

‘জয়কে নিয়ে বিবিসির সংবাদ মিথ্যা, ভিত্তিহীন’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৩ ঘণ্টা, মে ২৯, ২০১৬
‘জয়কে নিয়ে বিবিসির সংবাদ মিথ্যা, ভিত্তিহীন’

ঢাকা: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, ইসরাইলের নাগরিক মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজিব ওয়াজেদ জয় সম্পর্কে বিবিসি যে সংবাদ প্রকাশ করেছে তা ভিত্তিহীন, অপপ্রচার, সম্পূর্ণরূপে অসত্য ও কল্পিত। এটিকে নিলর্জ্জ মিথ্যাচার বলেও অভিহিত করেন তিনি।

 

রোববার (২৯ মে) আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, বিবিসি একটি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান, তাদের এই ধরনের ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশনে আমরা ক্ষুব্ধ, হতাশ ও মর্মাহত। আমরা বিবিসির বাংলা অনলাইনের সম্পাদকের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। লিখিত প্রতিবাদ জানিয়েছি। আশা করি এটি তদন্ত করে তারা প্রকৃত সত্য প্রকাশ করবে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমান বিদেশে বসে এই মিথ্যা নাটক সাজিয়েছে। তারেক রহমান সাফাদির সঙ্গে বেঠক করে শেখ হাসিনার সরকারকে উৎখাত করার জন্য ইসরাইলের সহযোগিতা চেয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরী ভারতে সাফাদির সঙ্গে বৈঠক করেছে। এইসব ফাঁস হওয়ার পর এখন প্রকৃত সত্যকে ঢাকার জন্য জয়ের সঙ্গে বৈঠকের কাল্পনিক তথ্য দিয়ে নাটক সাজানো হয়েছে।

হানিফ আরও বলেন, এ সংবাদটির অন্যতম উৎস সূত্র হচ্ছে খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা জাহিদ এইচ সরদার সাদী। এই ব্যক্তিটি ইতোপূর্বে ৬ জন মার্কিন কংগ্রেসম্যানের স্বাক্ষর জালিয়াতি  করে বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন। যার ফলে তাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কারাগারে যেতে হয়েছিল। এরপর খালেদা জিয়া জাহিদ এইচ সরদার সাদীকে দল থেকে বহিষ্কারের নাটক করতে বাধ্য হয়েছিলেন।

মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, সময়ের ব্যবধানে জাহিদ পুনরায় প্রতারণামূলক কাজে লিপ্ত হয়েছেন। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, জয়ের সঙ্গে কখনই মেন্দি এন সাফাদির বৈঠক বা সাক্ষাৎ হয়নি। এই নাটকের রচয়িতা হচ্ছেন মিথ্যাচার-ষড়যন্ত্র দুর্নীতি সন্ত্রাসের দায়ে অভিযুক্ত খালদা জিয়ার দুর্নীতিবাজ ছেলে তারেক রহমান। যিনি বিদেশে বসে দেশের বিরুদ্ধে একের পর এক ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছেন। জ্বালাও পোড়াও করে ব্যর্থ হয়ে গুপ্ত হত্যাসহ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন অপশক্তির সহযোগিতা নিয়ে ষড়যন্ত্র-চক্রান্তে লিপ্ত।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নাটকের স্ক্রিপটি আসলে খুবই কাঁচা হাতের লেখা। তারেক রহমান অবশ্য ভুল করেছে, নাটকের জন্য আমাদের বাংলাদেশে অনেক ভালো ভালো নাট্যকার আছেন, যারা ভালো স্ক্রিপ্ট লেখেন। তাদের কাছ থেকে পরামর্শ নিলে তারা এমন ধরা খাইতো না। সাক্ষাৎকারে কথপোকথন যেমন, সাফাদি বলেছেন তিনি সজিব ওয়াজেদ জয়কে চেনে না। জয়কে চেনেন না তাহলে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলেন কেন।

ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশনের কারণে বিবিসির বিরুদ্ধে আইনি কোনো পদক্ষেপ নেবেন কিনা জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, আমরা ইতোমধ্যেই বিবিসি বাংলার অনলাইন পত্রিকার সম্পাদকের সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা নিন্দা ও প্রতিবাদ পাঠিয়েছি। সম্পাদক সাহেব জানিয়েছেন, তারা এ ব্যাপারে তদন্ত করছেন। আমরা আশা করি, এই ধরনের সাক্ষাতকার; যেটা ভিত্তিহীন এবং কাল্পনিক। বিবিসি তা প্রচার করে তাদের যে ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে, সেটা তারা পুনরুদ্ধার এবং প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের জন্য এই ষড়যন্ত্রের সঙ্গে যারা জড়িত, সেটা বিবিসি নিজেরাই তদন্ত করে জাতির কাছে প্রকাশ করবেন। এটাই আমরা প্রত্যাশা করি।

হানিফ আরও বলেন, বিবিসি অনলাইনে জ্যাকব মিলটন নামে যে প্রতিবেদকের নাম উল্লেখ করেছে, তার প্রতারণার কথা নিউইয়র্ক টাইমস এ প্রকাশ হয়েছিলো। আরও অনুসন্ধানে জানা যায় জ্যাকব মিলটন নামে বিবিসি অনলাইনে কোনো প্রতিবেদক নাই। অথচ তার নামেই এটি প্রকাশিত হয়েছে।

হানিফ বলেন, আমরা সংশ্লিষ্টদের কাছে এ ধরনের সংবাদ ভবিষ্যতে পরিবেশনের ক্ষেত্রে সতর্ক হওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রাহমান সিরাজ, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. বদিউজ্জামান ভূঁইয়া ডাবলু, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুরনাহার লাইলী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, উপ-দফতর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, কার্যনির্বাহী সদস্য এনামুল হক শামীম ও সুজিত রায় নন্দী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৭ ঘণ্টা, মে ২৯, ২০১৬
এসকে/পিসি

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa