ঢাকা, রবিবার, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ শাবান ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

ইউএস-বাংলার বহরে দ্বিতীয় বোয়িং 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৮, ২০১৬
ইউএস-বাংলার বহরে দ্বিতীয় বোয়িং  ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: দেশের অগ্রসরমান এয়ারলাইন্স ‘ইউএস-বাংলা’র বহরে যুক্ত হলো আরও একটি বোয়িং- ৭৩৭-৮০০ (S2-AJA) এয়ারক্রাফট।

শুক্রবার (২৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৯টায় চীনের সাংহাই থেকে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অত্যাধুনিক এ এয়ারক্রাফটটি অবতরণ করে।

 

পরে সংস্থাটির ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর দিলরুবা পারভীন  এয়ারক্রাফটি গ্রহণ করেন। এ সময় ‌ইউএস-বাংলার নির্বাহী পরিচালক এমজি তৌহিদ, পরিচালক (ফ্লাইট অপারেশন) শফিউল আজমসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকতারা উপস্থিত ছিলেন।  

এর আগে গত ১১ অক্টোবর ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হয় ১৫৮ আসনের প্রথম বোয়িংটি। আন্তর্জাতিক রুটে আরও বেশি যাত্রীসেবা দিতে বহরের তৃতীয় ও চতুর্থ বোয়িং এয়ারক্রাফট আসবে আগামী ডিসেম্বরে।

প্রথম বোয়িংটি রিসিভ করে এয়ারলাইন্সটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, বিশ্বমানের এ এয়ারক্রাফট দিয়ে পর্যায়ক্রমে মাস্কাট, সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর রুটে এ বছরই ফ্লাইট চালাবে ইউএস-বাংলা।

এরই মধ্যে ঢাকা-কাঠমান্ডু রুটে ফ্লাইট পরিচালনার মধ্যদিয়ে আন্তর্জাতিক রুটে সেবা দিচ্ছে  ইউএস-বাংলা।

২০১৪ সালের ১৭ জুলাই দ্রুতগতি সম্পন্ন ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে বাংলাদেশের আকাশপথে যাত্রা শুরু করে ইউএস-বাংলা। বর্তমানে ৭৬ আসনের তিনটি ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।

আরও পড়ুন: ইউএস-বাংলার বহরে দ্বিতীয় বোয়িং যুক্ত হচ্ছে শুক্রবার

দু’বছরের বেশি সময়ে ঢাকা-কাঠমান্ডু-ঢাকা রুট ও অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন রুট মিলিয়ে প্রায় ১৬ হাজারের বেশি ফ্লাইট চালিয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।  

২০১৪ সালে যাত্রা শুরুর পর ২০১৫ সালে দেশের মধ্যে এয়ারলাইন্স সেবার তালিকায় সেরা হয় ইউএস-বাংলা। বেস্ট ডমেস্টিক এয়ারের গৌরবও অর্জন করে সংস্থাটি।  

‘ফ্লাই ফাস্ট-ফ্লাই সেফ’ স্লোগান নিয়ে যাত্রা শুরু করা ইউএস-বাংলা বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফটগুলো দিয়ে কলকাতা, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, সিঙ্গাপুর, মাস্কাট, দোহা, গুয়াংজুসহ বিভিন্ন রুটে ফ্লাইট চালাবে।  

এছাড়া শিগগির ঢাকা-পারো-ঢাকা রুটেও ফ্লাইট পরিচালনা করবে এয়ারলাইন্সটি।

ইউএস-বাংলা অন-টাইম ফ্লাইট অপারেশন, আন্তর্জাতিক মানের কেবিন সার্ভিস, উন্নতমানের নিজস্ব ক্যাটারিং সার্ভিস যা যাত্রী সাধারণের কাছে একটি নির্ভরযোগ্য এয়ারলাইন্স হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। এয়ারলাইন্সটির সঠিক সময়ে ফ্লাইট পরিচালনার রেকর্ড ৯৮.৭ শতাংশ।

বাংলাদেশ সময়: ১০০৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৮, ২০১৬
এসআই/এমএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।