ঢাকা, রবিবার, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ শাবান ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

এমিরেটস’র রেকর্ড মুনাফা ১.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৮ ঘণ্টা, মে ৭, ২০১৫
এমিরেটস’র রেকর্ড মুনাফা ১.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার

ঢাকা: এমিরেটস গ্রুপের অন্যতম সদস্য এমিরেটস এয়ারলাইন ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ১.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মুনাফা অর্জন করেছে।

রেকর্ড পরিমাণ এ মুনাফা আগের বছরের তুলনায় ৪০ শতাংশ বেশি।

এছাড়া প্রতিষ্ঠানটির রাজস্ব আয় ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ২৪.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে।

বৃহস্পতিবার (৭ মে) এমিরেটসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার দুবাইয়ে এমিরেটস এয়ারলাইন ও গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং প্রধান নির্বাহী শেখ আহমেদ বিন সাইদ আল মাকতুম এমিরেটস গ্রুপের ২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন। ওই প্রতিবেদনে এ সব তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে আরও জানানো হয়, এমিরেটস ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ৪৯.৩ মিলিয়ন যাত্রী পরিবহন করেছে, যা আগের বছরের তুলনায় ১১ শতাংশ বেশি এবং এয়ার লাইনটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

গত ৩১ মার্চ, ২০১৫ সমাপ্ত অর্থবছরে এমিরেটস ২৪টি নতুন উড়োজাহাজের ডেলিভারি গ্রহণ ও ৫টি নতুন গন্তব্যে ফ্লাইট শুরু করেছে। অপর ৩৪টি গন্তব্যে ফ্লাইট সংখ্যা ও যাত্রী পরিবহন ক্ষমতা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

এমিরেটসের মালামাল পরিবহন শাখা এমিরেটস স্কাই কার্গো গত অর্থবছরে ৯ শতাংশ বেশি রাজস্ব অর্জন করেছে, যার পরিমাণ ৩.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

অপর দিকে, এয়ারলাইনের আরেকটি অঙ্গপ্রতিষ্ঠান এমিরেটস হোটেল এ অর্থবছরে ১৮০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার রাজস্ব আয় করেছে, যা আগের বছরের তুলনায় ২৩ শতাংশ বেশি।

এমিরেটস গ্রুপের আরেক সদস্য ডানাটা ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ২৪৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মুনাফা অর্জনে সক্ষম হয়েছে, যা গত ৫৬ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

প্রতিষ্ঠানটির রাজস্ব আয় এ বছর প্রথমবারের মতো ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার অতিক্রম করেছে।

এমিরেটস গ্রুপ একই সঙ্গে ২৭ বছর ধরে মুনাফা অর্জনে সমর্থ হয়েছে। গত ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এ মুনাফার পরিমাণ আগের বছরের তুলনায় ৩৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ১.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে। গ্রুপের রাজস্ব আয় এ সময় ছিল ২৬.৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা আগের বছরের তুলনায় ১০ শতাংশ বেশি। গেল বছরে বিভিন্ন খাতে গ্রুপের মোট বিনিয়োগের পরিমাণ ছিল ৫.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

এমিরেটস গ্রুপে ৮০টির অধিক সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান অন্তর্ভুক্ত। গেলো বছর গ্রুপের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিশ্বের ১৬০টির বেশি জাতির ৮৪ হাজারেরও বেশি লোক কর্মরত ছিলেন। আগের বছরের তুলনায় ২০১৪-১৫ অর্থবছরে গ্রুপের জনবলও ১১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৯ ঘণ্টা, মে ০৭, ২০১৫
আইএইচ/আরএম 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।