ঢাকা, শুক্রবার, ৭ মাঘ ১৪২৮, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

এভিয়াট্যুর

শুরুতেই বিপর্যয়ে ইউএস-বাংলা

ইশতিয়াক হুসাইন, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫৩ ঘণ্টা, জুলাই ২৪, ২০১৪
শুরুতেই বিপর্যয়ে ইউএস-বাংলা ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: আকর্ষণীয় এয়ার ফেয়ার নিয়ে আকাশপথে নিরাপদ যাত্রার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ডানা মেলেছিল ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। তবে যাত্রার শুরুতেই উড়োজাহাজ অচল হয়ে হোঁচট খেতে বসেছে এয়ারলাইন্সটি।


 
ড্যাশ ৮ কিউ ৪০০ মডেলের দু’টি উড়োজাহাজ নিয়ে গত ১৭ জুলাই বাণিজ্যিক ফ্লাইট শুরু করে ইউএস-বাংলা গ্রুপের মালিকানাধীন ইউএস-বাংলা এয়ার। শুরুতেই গ্রাউন্ডেড হয়ে যায় এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।  

১৬ জুলাই ‘ফ্লাই সেফ, ফ্লাই ফাস্ট’ শ্লোগান নিয়ে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি টার্মিনালে ঘটা করে এয়ারলাইন্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

ওই সময় এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ইউএস-বাংলার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল্লাহ আল মামুন জানিয়েছিলেন, ‘অত্যাধুনিক উড়োজাহাজ এনেছি আমরা। তাই আমাদের আত্মবিশ্বাস রয়েছে আমরা সফল হবো। ’

ব্যবস্থাপনা পরিচালকের এই আত্মবিশ্বাসী বক্তব্যের সঙ্গে বাস্তবতার যে বিশাল ফারাক তা স্পষ্ট হলো উড্ডয়ন শুরুর কয়েকদিনের মাথায়।  
  
বর্তমানে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে প্রতিদিন দু’টি ফ্লাইট ও ঢাকা-যশোর রুটে একটি ফ্লাইট পরিচালনা করছে ইউএস-বাংলা। জানা যায়, একটি ড্যাশ ৮ পুরোপুরি অচল হয়ে রয়েছে। বাকি উড়োজাহাজটিতেও রয়েছে হাইড্রোলিকের সমস্যা।

উড়োজাহাজ অচল হওয়ার কারণে ঠিক থাকছে না ফ্লাইট শিডিউল। যে কারণে যাত্রীরা পোহাচ্ছেন দুর্ভোগ। উড়োজাহাজ সংকটের কারণে গত কয়েকদিন চট্টগ্রাম ও যশোর দুই রুটেই ফ্লাইট ছেড়েছে দেরিতে।   
 
একটি উড়োজাহাজ অচল থাকার কথা স্বীকারও করেছেন এয়ারলাইন্সের নির্বাহী পরিচালক এমজি তাওহিদ। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, উড়োজাহাজটিতে কিছু যন্ত্রাংশ বদল করতে হবে, তাই এটি এখন গ্রাউন্ডেড রয়েছে। তবে উড়োজাহাজের যান্ত্রিক ত্রুটি খুবই সাধারণ ঘটনা। শিগগিরই এটি সচল করা হবে।

উদ্বোধন উপলক্ষে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে ভাড়া ৩,৫০০ টাকা এবং ঢাকা-যশোর রুটে ৩,০০০ টাকা নির্ধারণ করে আলোচনায় এসেছিল এয়ারলাইন্সটি। তবে সেই আলোচনা এখন যাত্রীদের সমালোচনায় মুখর।

আগামী ৬ মাসের মধ্যে একই মডেলের তৃতীয় উড়োজাহাজ ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হবে। আগামী আগস্ট মাস থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের ফ্লাইট সংখ্যা চারটি, ঢাকা-যশোর রুটের ফ্লাইট সংখ্যা দু’টিতে উন্নীত করবে প্রতিষ্ঠানটি। একই মাস থেকে ঢাকা-সিলেট এবং ঢাকা-কক্সবাজার রুটে একটি করে ফ্লাইট চালু করা হবে। একে একে অন্য অভ্যন্তরীণ রুটগুলোতেও যেতে চায় ইউএস-বাংলা।
 
বাংলাদেশ সময়: ১১৫৩ ঘণ্টা, জুলাই ২৪, ২০১৪   

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa