ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

শিল্প-সাহিত্য

জন্মদিনে শুভেচ্ছায় সিক্ত তারুণ্যের কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৩৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৩, ২০২১
জন্মদিনে শুভেচ্ছায় সিক্ত তারুণ্যের কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন

ঢাকা: তার কবিতার মধ্যে প্রায়শই একটা গল্প থাকে। সেই গল্পটা আমাদের জীবনের, আমাদের চারপাশের।

সেগুলো না দেখা বিষয়কে আশ্চর্য দক্ষতায় চোখের সামনে মেলে ধরে। প্রেম-বিরহ, দুঃখ-হতাশা, জয়-পরাজয় হবে তার কবিতায় ক্রিয়াশীল বিষয়। তাইতো তিনি নতুন সময়ের জয়গান গেয়ে যাওয়া তারুণ্যের কবি। তিনি কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন।

সোমবার (২২ নভেম্বর) ছিলো এই কবির ৫৯তম জন্মবার্ষিকী। এ উপলক্ষে সন্ধ্যায় রাজধানীর পরিবাগের সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্রে উদযাপন হলো তার জন্মদিনের আয়োজন।

প্রিয়জনদের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন, ফুলেল শ্রদ্ধা, কবিকে উৎসর্গ করা কবিতা আর কবির কবিতা পাঠ, সঙ্গীত এবং কেক কাটার মধ্য দিয়ে এ সময় পুরো আয়োজন ছিলো অসংখ্য কবি-সাহিত্যিকদের পদচারণায় মুখর।

জন্মদিনে কবিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সাহিত্যিক আনজীর লিটন বলেন, সৃষ্টিশীল আনন্দে মেতে ওঠা একজন কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন। তিনি তার বিশুদ্ধ কবিতার ছন্দময় জগৎকে আমাদের সবার সামনে মেলে ধরেছেন। কবিতার ভাষা দিয়ে তিনি বিশ্বটাকে মুঠোয় ধরতে চেয়েছেন। আশির দশকের অগ্রগণ্য কবি হিসেবে রেজাউদ্দিন স্টালিন কবিতার নতুন অধ্যায় রচনা করেছেন। তার সময়ের অনেক তরুণ কবি বাংলাদেশের সাহিত্য অঙ্গনে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন। তাদের অনেকেই রেজাউদ্দিন স্টালিনের মতো হতে পারেননি। এটি তার ব্যক্তি জীবনে অবশ্যই সুখকর বার্তা।

কবি আবদুর রব বলেন, এই কবির কবিতা মহাকাব্যিক। হয়তো তার কবিতাগুলো মহাকাব্যের মতো বড় না, তবে মহাকাব্যে যেসব বিষয়গুলো থাকে, যেসব বিষয়কে কেন্দ্র করে মহাকাব্য গড়ে ওঠে, ঠিক তেমন বিষয়বস্তু খুঁজে পাওয়া যায় রেজাউদ্দিন স্টালিনের কবিতার মধ্যে। তিনি একইসঙ্গে অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যতের সেতুবন্ধন ঘটান তার কবিতায়। আর এই সবগুলো কবিতাতেই একটি জাদুকরী বিন্যাস আছে যা পাঠক পছন্দ করে।

শাহাদাৎ হোসেন নিপু বলেন, এই কবির অল্প কিছু কবিতা পড়লেই তাকে চেনা যায়। তিনি তার সময় কালকে ধারণ করতে চেয়েছেন। তার কবিতায় বাংলার রূপও উঠে এসেছে অনন্য মোহনীয়তায়।

ফারজানা করিম বলেন, রেজাউদ্দিন স্টালিন একজন বিশ্বের কবি। তার সময়কালেই বিশ্বের নানা ভাষায় তার কবিতা অনূদিত হয়েছে। তারুণ্যেই তিনি অর্জন করেছেন বাংলা একাডেমি পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার। বাংলা কবিতাকে ভালোবেসে রেজাউদ্দিন স্টালিন প্রমাণ দিয়েছেন সবকিছুর চেয়ে বড় হচ্ছে কবিতা।

কবি জাহিদুল হক বলেন, এই কবির কাব্যভাষা শক্তিশালী। বিভিন্ন অনুসঙ্গে তিনি তার কবিতায় যুক্ত করেছে জাদুবাস্তবতা। রেজাউদ্দিন স্টালিন তার সমকালে অনেক পাঠকের ভালোবাসা ও আশীর্বাদ পেয়েছে। নিঃসন্দেহে বলা যায় তার কালের অনেকের চেয়ে তিনি আলাদা। আর তার কবিতায় আধুনিক ও ধ্রুপদী গুণ এনে দিয়েছে তার বহুমাত্রিক শব্দের ব্যবহার।

আয়োজন শেষে নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করে কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন বলেন, কবিতা লিখে এতো ভালোবাসা পাওয়া যায় সেটা আগে জানতাম না। যতদিন বাঁচবো কবিতার সঙ্গে থাকবো, মাতৃভাষার সঙ্গে থাকবো। সঙ্গে কবিতা উচ্চারণ করবো, কেননা এটাই আসল।

অনুষ্ঠানে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন কবি জাহাঙ্গীর হোসেন, মোহন রায়হান, কবীর হোসেন তাপস, শ্যাম সুন্দর শিকদার, মনজুরুর রহমান, আমিনুল ইসলাম, কবি ক্যামেলিয়া আহমেদ, তপন বাগচী, শামীমা চৌধুরী এলিস, সৌমিত্র দেব, কবি রেহানা পারভীন, মাসকুরে সাত্তার কল্লোল, লেখক মাশরুরা লাকী, আসলাম সানী, জাহাঙ্গীর ফিরোজ, কবি কামরুজ্জামান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন নিশি কাওসার।

আলোচনা ও শুভেচ্ছা জ্ঞাপন শেষে কেক কাটার মধ্য দিয়ে কবির জন্মদিন উদযাপন করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০০২১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৩, ২০২১
এইচএমএস/এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa