ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১৭ মহররম ১৪৪৪

শিল্প-সাহিত্য

সেলিম মোরশেদের হাতে ‘লোক’ সাহিত্য পুরস্কার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৯, ২০২০
সেলিম মোরশেদের হাতে ‘লোক’ সাহিত্য পুরস্কার সেলিম মোরশেদের হাতে ‘লোক’ সাহিত্য পুরস্কার। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: দেশে অন্যান্য সাহিত্য পুরস্কারের চেয়ে কিছুটা ভিন্ন ‘লোক’ সাহিত্য পুরস্কার। অনিকেত শামীম সম্পাদিত ছোট কাগজ (লিটল ম্যাগ) ‘লোক’ ২০০৯ সাল থেকে দিয়ে আসছে এ সাহিত্য পুরস্কার।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) বিকেলে জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে কথাসাহিত্যিক সেলিম মোরশেদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া।

পুরস্কারপ্রাপ্তির অনুভূতি প্রকাশ করে সেলিম মোরশেদ বলেন, লেখক হিসেবে আমার বেদনা রয়েছে। যতটুকু লেখক হিসেবে দেওয়ার ছিল ততটুকু দিতে পারিনি। লেখক হিসেবে কিঞ্চিৎ অহংকার রয়েছে। তা হলো আমি ও আমরা সময়কে মোকাবিলা করেছি। সময়কে মোকাবিলা করা সাহিত্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কথাশিল্পী আকিমুন রহমান ও কবি সাজ্জাদ শরিফ।

আকিমুন রহমান বলেন, সেলিম মোরশেদ সমকালীন বাস্তবতায় বাসকারী মানুষকে আমাদের মাঝে তুলে ধরেন। তাকে আরও লিখতে হবে। তিনি আমাদের জন্য গভীরতম মাইলফলক। পাঠক তাকে কতটুকু পেরুতে পারবো, সেটি সময়ই বলে দেবে।

সাজ্জাদ শরিফ বলেন, আশির দশকে আমাদের সাহিত্যের যে ভাষার পরিবর্তন হয়েছিল, সেলিম মোরশেদ তাতে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছিলেন। তিনি আমাদের সময়ের গুরুত্বপূর্ণ লেখক।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন গল্পকার পারভেজ হোসেন, কথাসাহিত্যিক ইমতিয়ার শামীম, আহমেদ নকীব ও তাশরিক-ই-হাববিব।

পারভেজ হোসেন বলেন, সেলিম মোরশেদ সব সময় নিভৃতে থেকেছেন। অথচ তার লেখা আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

ইমতিয়ার শামীম বলেন, সেলিম মোরশেদ প্রতিষ্ঠাবিরোধী নিরলস সাহিত্য সাধনায় ব্যস্ত। যত সময় যাবে সেলিম মোরশেদের প্রয়োজনীয়তা টের পাবেন পাঠকরা।

লোক সাহিত্য পুরস্কার ২০১৮ প্রাপ্ত কবি রহমান হেনরীর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য দেন লোক সম্পাদক অনিকেত শামীম।

অনিকেত শামীম বলেন, লোকের দশকপূর্তিতে লিটলম্যাগকেন্দ্রীক নিভৃতচারী লেখকদের জন্য লোক সাহিত্য পুরস্কার প্রবর্তন করা হয়। বুদ্ধদেব বসু বলেছিলেন, লিটলম্যাগের প্রয়োজনীয়তা ফুরিয়ে গেলে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এজন্যই লোকের যাত্রা আর দীর্ঘায়িত হবে না। তরুণদের জায়গা করে দেওয়ার সময় এখনই।

রহমান হেনরী বলেন, পাঠক হিসেবে সেলিম মোরশেদের ভুবনে ঢুকে যাই। লেখক আর ব্যক্তি সেলিম মোরশেদ এক। তিনি সব সময় সৃজনশীলতায় মেতে থাকেন।

তিনি বলেন, লোক সাহিত্য পুরস্কার আরও দেওয়া হবে। অন্য কেউ যদি অন্য কোনো নামে এ পুরস্কার দিতে চায়, আমি তাতে সর্বোচ্চ সাহায্য করবো।

অনুষ্ঠানে সূচনা সঙ্গীত পরিবেশন করেন হাসান মাজমুদ ও মিরাজ মেহেদী। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন সাকিরা পারভিন।

এর আগে লোক সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন চঞ্চল আশরাফ, কুমার চক্রবর্তী, মুজিব মেহদী, মাহবুব কবির, ইমতিয়ার শামীম, কামরুজ্জামান কামু, সুব্রত অগাস্টিন গোমেজ, আহমেদ স্বপন মাহমুদ, মোস্তাক আহমাদ দীন, সলিমুল্লাহ খান ও রহমান হেনরী।

এছাড়া লিটলম্যাগ প্রাঙ্গণ পুরস্কার পায় লিটলম্যাগ একবিংশ, ঊষালোকে, চারবাক, কথা ও অর্বাক।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৯, ২০২০
ডিএন/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa