ঢাকা, রবিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ মে ২০২২, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩

শিল্প-সাহিত্য

পশুবৃত্তিক আচরণের রূপ নিয়ে বুধবার মঞ্চস্থ হবে ‘মায়াচর’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
পশুবৃত্তিক আচরণের রূপ নিয়ে বুধবার মঞ্চস্থ হবে ‘মায়াচর’ পশুবৃত্তিক আচরণের রূপ নিয়ে বুধবার মঞ্চস্থ হবে 'মায়াচর'

পঞ্চগড়: দেশব্যাপী ৬৪ জেলায় অনুষ্ঠিত জাতীয় নাটোৎসব উপলক্ষে পঞ্চগড়ে দুই দিনের উৎসবে মঞ্চস্থ হতে যাচ্ছে রহস্যময় ক্রাইম থ্রিলার ‘মায়াচর’।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) উৎসব উদ্বোধনের দিন সন্ধা সাতটায় জেলা শিল্পকলা একাডেমির মঞ্চে সরকার হায়দারের রচনা ও নির্মাণে 'মায়াচর' মঞ্চস্থ করবেন পঞ্চগড়ের নাট্যদল ভূমিজ।

'মায়াচর' নাটকটির কাহিনি সম্পর্কে নাট্যদল ভূমিজ জানায়, চার বন্ধুর এক বন্ধুকে পত্রিকার একটি ভূয়া বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।

পেশায় শিক্ষক ওই বন্ধু বিজ্ঞাপন দেখে স্ত্রী সন্তানদের রেখে কানাডায় প্রবাশী এক মহিলাকে বিয়ে করার জন্য সব সম্পত্তি বিক্রি করতে চাই। সম্পত্তি কিনতে চায় বাকি তিনবন্ধু। একসময় তাদের সবার মধ্যে সন্দেহ সৃষ্টি হয়। তারা নানা পেশায় যুক্ত থেকে বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত। এক জোসনা রাতে নদীর বালুচরে তারা বেড়াতে গেলে তাদের মধ্যে পরিবর্তন ঘটতে থাকে। তাদের কারও নাক দিয়ে কেঁচো বের হতে থাকে, কারও চোখ দিয়ে মাছ পড়তে থাকে, কেউবা কুকুরে রুপান্তরিত হতে থাকে, আবার কারও হাত মুখ লম্বা হতে থাকে।

এমন বিব্রতকর অবস্থায় এক নারীর সাথে দেখা হয় তাদের। সেই রহস্যময় নারী তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, তাদের অপরাধের গুপ্ত ইচ্ছে আর ভয়ানক মানষিকতাগুলো এতদিন সুপ্ত ছিল। হঠাৎ সেই সুপ্ত অনুভূতিগুলো কেঁচো, মাছ, তেলাপোকা, সাপ হয়ে বেরিয়ে আসছে। এজন্য তাদের চেহারাতেও পরিবর্তন ঘটছে। এরপর ঘটতে থাকে অদ্ভুত সব ঘটনা। আর এমন কাহনীর বিন্যাস নিয়েই মঞ্চস্থ হবে ‘মায়াচর’।

নাটকটির নির্মাতা সরকার হায়দার বাংলানিউজকে বলেন, এই সময়ে প্রায় প্রত্যেক মানুষই ইচ্ছে বা অনিচ্ছেতে নানা অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়ছে। খুব হালকা বিষয় যেমন বদনাম, হিংসা দিয়ে মানুষ অনেক মূল্যবান সময় নষ্ট করে ফেলছে। এগুলোও এক ধরনের অপরাধ। যদিও ভেতরের সেই পশুবৃত্তিগুলো আমরা অভিনয় দিয়ে আবৃত্ত করে রাখি। মায়াচরের মূল ভাবনা মানুষের পশুবৃত্তিক আচরণ থেকেই নেয়া। ক্রাইম থ্রিলারের মতো ঘটনাবহুল এই নটকটির প্রত্যেক দৃশ্যে টান টান উত্তেজনা দর্শকের মন ভরাবে বলে আশা করছি।

তিনি জানান, দর্শকদের আবারো মঞ্চমুখী করতে এবং দাতের সামনে একটি সুন্দর নাটক দেওয়ায় মূল লক্ষ্য। আর এই নাটকটিতে অভিনয় করবেন ভূমিজের শিল্পী নাসরিন আক্তার, রফিকুল ইসলাম, হাজ্জাজ তানিন, মোস্তাফিজুর রহমান এবং সরকার হায়দার।

উৎসবে ২০ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) নীলফামারী জেলার ডোমার শিল্প ও সাহিত্য একাডেমি মঞ্চস্থ করবে হুমায়ুন আহমেদের নাটক ১৯৭১। নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন মিজানুর রহমান সোহাগ ও বাসুদেব রায়।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সহযোগিতায় বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের আয়োজনে দেশের ৬৪ জেলায় উদযাপিত হচ্ছে এই নাটোৎসব। এর আগে ১২ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই উৎসবের উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ সময়: ৭০৩০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
এইচএমএস/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa