ঢাকা, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জুন ২০২২, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

শিল্প-সাহিত্য

বঙ্গবন্ধুময় হবে এবারের অমর একুশে বইমেলা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২২, ২০১৯
বঙ্গবন্ধুময় হবে এবারের অমর একুশে বইমেলা

ঢাকা: সরকার ঘোষিত মুজিববর্ষের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। কিন্তু এর আগের মাসেই বঙ্গবন্ধুময় হয়ে উঠবে পুরো উদ্যান প্রাঙ্গন।

ফেব্রুয়ারিতে বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া অমর একুশে বইমেলা উৎসর্গ করা হচ্ছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। শুধু উৎসর্গতেই সীমাবদ্ধ নয়, মেলার সজ্জা ও আলোচনাসহ সর্বত্রই থাকবেন বঙ্গবন্ধু।

মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব এবং বাংলা একাডেমির পরিচালক ড. জালাল আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, এবারের মেলাকে আমরা অন্যবারের তুলনায় কিছুটা ভিন্নভাবে করার চিন্তা করছি। কারণ, ২০২০ সাল থেকেই মুজিববর্ষের কর্মসূচি শুরু হবে। সেজন্য এবারের মেলা বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করা হয়েছে।

তিনি জানান, এবারের মেলা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আগের স্থানেই অনুষ্ঠিত হবে। প্রাথমিক সিদ্ধান্ত ছিলো মেলা কিছুটা সরে গিয়ে উদ্যানের সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশ থেকে শুরু হবে। কিন্তু সেখান থেকে সরে এসে মেলা আগের স্থানেই হচ্ছে। তবে গতবারের তুলনায় এবারের মেলার পরিসর বাড়বে।  

ড. জালাল আহমেদ বলেন, উদ্যান অংশেই সৃজনশীল প্রকাশকরা নিজেদের বই নিয়ে হাজির হবেন। সে সঙ্গে বরাবরের মতো এবারের সরকারি-বেসরকারি সংস্থার স্টল থাকবে বাংলা একাডেমি অংশে।

জানা গেছে, মেলার উদ্বোধনী দিনেই বাংলা একাডেমি থেকে বঙ্গবন্ধুর তৃতীয় গ্রন্থ ‘আমার দেখা চীন’র মোড়ক উন্মোচন করবেন বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাকি ২৮ দিন মেলার মূল মঞ্চের আয়োজনে শুধুই বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আলোচনা হবে। বঙ্গবন্ধুর প্রকাশিত দু’টি গ্রন্থ ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ও ‘কারাগারের রোজনামচা’ এবং ছয় দফা, গণঅভ্যুত্থানসহ তার রাজনৈতিক জীবনের নানা দিক নিয়ে এ সব আলোচনা সভায় আলোচনা করা হবে।

এবারই প্রথমবারের মতো সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মুক্তমঞ্চকে মেলা আয়োজনে যুক্ত করা হচ্ছে। বিগত ক’বছর মেলার সময়ে এখানে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন পথনাটক উৎসব করে আসছিলো । কিন্তু এবার বঙ্গবন্ধুকে নিবেদন করে এখানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলা একাডেমি সূত্রে জানা যায়, গতবারের মতো এবারের মেলারও নকশা করছেন স্থপতি এনামুল করিম নির্ঝর। তার পরিকল্পনা অনুযায়ী ইতোমধ্যেই কাজ শুরু করেছে বাংলা একাডেমি। তবে সজ্জায় এবার আসছে ভিন্নতা। বইমেলাকে বঙ্গবন্ধুময় করে তুলতে সাজসজ্জায় তার বিখ্যাত উক্তি, আলোকচিত্রের ব্যবহার করা হবে।

এদিকে, এবারের মেলার সজ্জাকে আরও নান্দনিক করে তুলতে বাংলা একাডেমি আয়োজন করেছে স্থাপত্য-ধারণা প্রতিযোগিতা। এর মাধ্যমে মেলার সজ্জার সঙ্গে সরাসরি যুক্ত হতে পারবেন সৃজনশীল তরুণ-তরুণীরা। স্থাপত্য ও চারুকলার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। দু’টি বিভাগে ভাগ করা হয়েছে এ প্রতিযোগিতা; বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে স্থাপনা এবং উদ্ভাবনী পাঠ আসবাব। এ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ও নির্বাচিত স্থাপত্য ধারণা থাকবে মেলার সজ্জায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২২, ২০১৯
ডিএন/এবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa