ঢাকা, শুক্রবার, ৮ চৈত্র ১৪২৫, ২২ মার্চ ২০১৯
bangla news

রবীন্দ্রনাথ সাহিত্যের রূপকার, নজরুল প্রকাশক

ইবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-১৯ ৯:০১:০৩ পিএম
বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে তিনদিন ব্যাপী আলোচনা সভা শুরু

বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে তিনদিন ব্যাপী আলোচনা সভা শুরু

ইবি: ‘রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের সেরা রূপকার এবং কাজী নজরুল ইসলাম সেরা প্রকাশক। রবীন্দ্রনাথ ও নজরুল আমাদেরকে বিশ্বের বিদ্যার সংস্কৃতির চূড়ায় স্পর্শ করার মতো একটা জায়গায় নিয়ে গেছেন। আমাদের শেক্সপিয়ার নেই, গেটে নেই মহাভারতের কৃষ্ণদ্বৈপায়ন নেই। কিন্তু আমরা বলতে পারি আমাদের রবীন্দ্রনাথ আছে, নজরুল আছে।’

মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) অনুষ্ঠিত বইমেলা উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক এসব কথা বলেন।

শৈশবকে স্মরণ করে আজিজুল বলেন, ‘প্রত্যেকটি মানুষের অভিজ্ঞতা স্বতন্ত্র এবং বিচিত্র এটি ঠিক। কিন্তু কারও কারও বৈচিত্র্য এমন যে ভাবা যায় না। আমি একটা সময় চোখ বন্ধ করে আমার শৈশবের কথা চিন্তা করি। তখন ভাবি শৈশবই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। শৈশবই আমাকে আমার বর্তমান তৈরি করে দিয়েছে। শৈশবই আমার ভাবনা আমার চিন্তা চেতনাকে প্রসারিত করেছে।’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইবি’র উপাচার্য অধ্যাপক হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, ‘বাঙালির হৃদয়ে রবীন্দ্রনাথ, চেতনায় নজরুল। পৃথিবীর বিখ্যাত ভাষাবিদদের মতে ফরাসি ভাষার পরে বাংলা হচ্ছে সবচেয়ে শ্রুতিমধুর ভাষা। বাংলা আমাদের মায়ের ভাষা, প্রেমের ভাষা, কবিতার ভাষা। এ ভাষায় সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক প্রয়োজনে দ্রোহের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছিল।’

তিনি বলেন, ‘১৯১৩ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নোবেল প্রাপ্তির মাধ্যমে বাংলা ভাষা প্রথম বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছিল। পৃথিবীর প্রায় ৩০০ মিলিয়ন মানুষ বর্তমানে বাংলা ভাষায় কথা বলে। তাই অত্যন্ত যৌক্তিক কারণে বাংলা জাতিসংঘের দাফতরিক ভাষা হওয়ার যোগ্যতা রাখে।’

বেলা দেড়টার দিকে অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে শুরু হয় তিনদিন ব্যাপী এ আলোচনা সভা। 

আলোচনা সভার প্রথম দিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম শাহিনুর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন- কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা, বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ারের অধ্যাপক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। 

এছাড়াও আলোচনা সভায় টুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মাহবুবুল আরেফীন, ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মিয়া রাশিদুজ্জামান স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

এর আগে বেলা ১টার দিকে উপাচার্য অধ্যাপক হারুন-উর-রশিদ আসকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের আম্রকাননে বইমেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৯
জিপি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14