ঢাকা, শুক্রবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৪ মে ২০১৯
bangla news

প্রাণ ফিরছে প্রাণের মেলায়

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-১৫ ৪:০৭:১৭ পিএম
দলবেঁধে বইমেলায় ভিড় জমিয়েছেন তরুণীরা/ছবি: বাদল

দলবেঁধে বইমেলায় ভিড় জমিয়েছেন তরুণীরা/ছবি: বাদল

অমর একুশে গ্রন্থমেলা থেকে: ফাল্গুনের বিকেলে মিষ্টি-রোদ গায়ে মেখেই বইপ্রেমী পাঠক-লেখকরা আসেন মেলা প্রাঙ্গণে। আর তাদের পদচারণাতেই মধ্যভাগে এসে যেনো চিরচেনা রূপ ফিরে পাচ্ছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা।

শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ছুটির দিন হওয়ায় এদিন সকাল থেকেই মেলায় প্রবেশের সমস্ত পথে ছিল দীর্ঘ লাইন। সকালের শিশুপ্রহরে শিশুরা আর সকাল গড়িয়ে দুপুর পেরুলে সব বয়সী মানুষের লাইন আরও দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হয়। তবে বইপ্রেমীদের অপেক্ষার মধ্যেও কোনো বিরক্তি ছিল না, ছিল না কোনো ক্লান্তি। নতুন বইয়ের গন্ধে সবাই ক্লান্তি দূর করতে থাকে নিমিষে।

ছুটির দিন বিকেলের সেশন শুরু হতেই কানায় কানায় ভরে যায় মেলার সমস্ত আঙ্গিনা। 

বগুড়া থেকে ছোট বোন ইতিকে সঙ্গে নিয়ে বইমেলা এসেছেন দিলরোজ আফরোজ। দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে প্রবেশ করতে পেরেছেন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। কথা হলে বলেন, ঘুরে ঘুরে অনেকগুলো বই কিনবো বলে ভেবে রেখেছি। মেলায় এসে বইপ্রেমী এতো মানুষ দেখে দারুণ লাগছে।

এদিকে বেচাকেনা ভালো হওয়ায় খুশি লেখক ও বিক্রেতারা। এ বিষয়ে সময় প্রকাশনীর সত্ত্বাধিকারী ফরিদ আহমেদ বলেন, ফাগুনের প্রথম দিন থেকেই তো মেলার রূপ বদলে গেলো। এখন পাঠক আসছেন, আর যারা আসছেন সবাই বই কিনছেন। অনেকেই নতুন বইয়ের সঙ্গে পরিচিত হচ্ছেন। তালিকা করে জমিয়ে রাখছেন আজ-কালের মধ্যে কিনতে।

অমর একুশে গ্রন্থমেলার সার্বিক বিষয়ে মেলা পরিচালনা পরিষদের সদস্য সচিব জালাল আহমেদ বলেন, মেলার মধ্য সময় পার হয়েছে। মেলার যে সত্যিকার রূপ, এখন তাই দেখা দিয়েছে। এ ধারা শেষ পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলেই আশা করা যাচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৯
এইচএমএস/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বইমেলা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

শিল্প-সাহিত্য বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-02-15 16:07:17