[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৪ কার্তিক ১৪২৫, ১৯ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

শেষ সময়েও বেশি কবিতার বই

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০২-২৭ ৩:১৯:২৪ পিএম
মেলায় বই কিনতে ক্রেতাদের ভিড়-ছবি-শাকিল আহমেদ

মেলায় বই কিনতে ক্রেতাদের ভিড়-ছবি-শাকিল আহমেদ

গ্রন্থমেলা প্রাঙ্গণ থেকে: অমর একুশে গ্রন্থমেলার ২৭তম দিনে মেলায় নতুন বই এসেছে ২০২টি। এরমধ্যে কবিতার বই এসেছে ৬০টি।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে ছিল বাংলা একাডেমির অমর একুশে গ্রন্থমেলা এবং বাংলাদেশের প্রকাশনার মান উন্নয়নের সমস্যা শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন খান মাহবুব। আলোচনায় অংশ নেন বদিউদ্দিন নাজির, রেজাউদ্দিন স্টালিন এবং মোস্তফা সেলিম। সভাপতিত্ব করেন ফজলে রাব্বি।

প্রাবন্ধিক বলেন, এই গ্রন্থমেলা বাঙালির বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চার এক মিলনকেন্দ্র। বাংলা একাডেমি গবেষণা প্রতিষ্ঠান হলেও প্রতিষ্ঠানটিকে অমর একুশের গ্রন্থমেলার আয়োজক হিসেবে কাজ করতে হচ্ছে। মূলত বাংলা একাডেমির গ্রন্থমেলার মাধ্যমে বাংলাদেশে এক নতুন সাংস্কৃতিক জাগরণের সূত্রপাত ঘটেছে। 

তিনি বলেন, বাংলা বইয়ের সম্পাদনা ও সংশোধন পর্বে একটা বড় সমস্যা হলো আমাদের এক্ষেত্রে পর্যাপ্ত দক্ষ জনবল নেই। প্রকাশনার মান উন্নয়ন বড় অন্তরায় হলো সৃজনশীল প্রকাশনার সংকুচিত বাজার।
 
আলোচকরা বলেন, বইমেলাকে নান্দনিকভাবে সাজাতে হবে। প্রকাশকদের উচিৎ পাঠকদের মতামত সংগ্রহ করা এবং ভালো পাঠক মনোনীত করে পুরস্কৃত করা। অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রচুর বই প্রকাশিত হচ্ছে কিন্তু বইয়ের মানের উন্নতি হচ্ছে না। বর্তমানে একজন লেখক তার প্রচার নিয়ে ব্যস্ত থাকে কিন্তু লেখার মান নিয়ে অনেকের মাথাব্যথা নেই।

সভাপতির বক্তব্যে ফজলে রাব্বি বলেন, গ্রন্থমেলা এবং প্রকাশনা দুইটি ভিন্ন বিষয়। এই দুইটিকে একসঙ্গে মেলানো যাবে না। আমাদের দেশের মতো আর কোনো দেশে প্রকাশকরা সরাসরি এভাবে বই বিক্রি করে না। বইমেলা হচ্ছে প্রকাশকের প্রচারণার একটি অংশ। বই প্রকাশের ক্ষেত্রে সম্পাদনার বিষয়টিও সমান গুরুত্বপূর্ণ।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) গ্রন্থমেলার শেষ দিন। এদিন মেলা চলবে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে রয়েছে বাংলাদেশের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন রাহমান নাসির উদ্দিন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন ফয়জুল লতিফ চৌধুরী এবং রণজিত সিংহ। সভাপতিত্ব করবেন রাশিদ আসকারী।

সন্ধ্যা ৬টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে সমাপনী অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ দেবেন একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। প্রতিবেদন উপস্থাপন করবেন অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৮’-এর সদস্য-সচিব ড. জালাল আহমেদ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ইব্রাহীম হোসেন খান। সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির সভাপতি ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান।

অনুষ্ঠানে অমর একুশে গ্রন্থমেলা উপলক্ষে বাংলা একাডেমি পরিচালিত স্মৃতি পুরস্কার আনুষ্ঠানিকভাবে প্রদান করা হবে। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। 

বাংলাদেশ সময়: ০২১৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৮
এইচএমএস/আরআর

 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

শিল্প-সাহিত্য বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
db