bangla news
ফিলিপ রথের ম্যান বুকার প্রাপ্তির প্রতিবাদ

পদত্যাগ করলেন তিন বিচারকের একজন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৫-২০ ৭:০৯:৩৪ এএম

অস্ট্রেলিয়ার নারীবাদী ঔপন্যাসিক ও প্রকাশক কারমেন ক্যালিল ছিলেন সাম্প্রতিক ম্যান বুকার আন্তর্জাতিক পুরস্কারের বিচারকমণ্ডলীর তিন সদস্যের একজন।

অস্ট্রেলিয়ার নারীবাদী ঔপন্যাসিক ও প্রকাশক কারমেন ক্যালিল ছিলেন সাম্প্রতিক ম্যান বুকার আন্তর্জাতিক পুরস্কারের বিচারকমণ্ডলীর তিন সদস্যের একজন। অপর দু জন হচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ঔপন্যাসিক জাস্টিন কার্টরাইট ও অ্যাংলো-আমেরিকান লেখক রিক গেকোস্কি।  

এ বছরের ম্যান বুকার আন্তর্জাতিক পুরস্কারজয়ী হিসেবে মার্কিন ঔপন্যাসিক ফিলিপ রথের নাম ঘোষণা করা হয় ১৮ মে। কিন্তু ১৯ মে কারমেন ক্যালিল ফিলিপ রথের পুরস্কার-জয়ের প্রতিবাদে পদত্যাগ করলেন। ক্যালিলের মতে, ‘রথ বিখ্যাত মূলত নিখুঁতভাবে বার বার বিভিন্ন লেখায় পুরুষের যৌনচিত্র অঙ্কনের জন্য, এ ধরনের লেখক আসলে কোনোভাবেই সমগ্র সাহিত্যকর্মের জন্য এমন  পুরস্কারের সম্ভাব্য মনোনয়নের দীর্ঘ তালিকাতেও থাকতে পারেন না’।

১৯৯৮ সালে পুলিৎজারজয়ী রথ তার ত্রয়ী উপন্যাস ‘দ্য হিউম্যান স্ট্যাইন’, ‘আমেরিকান প্যাস্টরাল’ এবং ‘ প্রোটনইস কমপ্লেইন’- এ  বিস্তৃতভাবে বর্ণনা করেছেন মাস্টারবেশন বিষয়ে।

কারমেন বলেন, ‘প্রত্যেকটি বইতেই রথ একই বিষয় একঘেয়েভাবে লিখে গেছেন, যা পড়লে মনে হবে তিনি আপনার মুখের ওপর ভার হয়ে বসে আছেন, আপনি শ্বাস নিতে পারবেন না।’

রথ সম্পর্কে ক্যালিলের মনোভাব প্রসঙ্গে জাস্টিন কার্টরাইট বলেন, ‘আমার ধারণা কারমেন বড় বেশি হতাশ হয়েছেন,  তিনি আশা করেছিলেন অন্য কাউকে দেওয়া হবে পুরস্কার। কিন্তু যখন আমরা সৎভাবে চিন্তা করলাম, দেখলাম সম্ভাব্য তালিকায় থাকা ব্যক্তিদের মধ্যে রথই সবচেয়ে যোগ্য। ’

এ পুরস্কারের বিচারকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান রিক গেকোস্কি বলেন, ‘কারমেনের মন্তব্যগুলো আমি অপ্রাসঙ্গিক মনে করি। তিনি আমাদের বিজয়ীকে অসম্মান করছেন।’

বাংলাদেশ সময় ১৫০৫, মে ২০, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

শিল্প-সাহিত্য বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2011-05-20 07:09:34