ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২২ জিলহজ ১৪৪১

শিল্প-সাহিত্য

১৪তম দ্বিবার্ষিক এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী ২০১০

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩১ ঘণ্টা, অক্টোবর ৭, ২০১০
১৪তম দ্বিবার্ষিক এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী ২০১০

৮ অক্টোবর শুক্রবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ১৪তম দ্বিবার্ষিক এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী ২০১০। ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে সকাল ১০টায় মাসব্যাপী প্রদর্শনীটির উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

১৯৮১ সাল থেকে প্রতি দু বছর পর পর অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে এ দ্বিবার্ষিক চারুকলা প্রদর্শনী। এটি বাংলাদেশের সর্বোচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী। এবারের থাকবে দেশি-বিদেশি শিল্পীদের ৩০০ শিল্পকর্ম।

প্রদর্শনীর আয়োজন উপলক্ষে ৭ অক্টোবর সকালে অনুষ্ঠিত হলো এক সংবাদ সম্মেলন। এতে উপস্থিত ছিলেন শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক কামাল লোহানী ও সাংস্কৃতিক সচিব হেদায়তুল্লাহ আল মামুন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রদর্শনীটিকে সফল করার জন্য ৮ অক্টোবর থেকে ৬ নভেম্বর পর্যন্ত মূল অনুষ্ঠানসূচির পরিকল্পনা করা হয়েছে। ওই সময়ে বিমানবন্দর থেকে বিভিন্ন ভেন্যুতে যাওয়ার সড়কদ্বীপগুলো, বহুতল ভবনের দেয়াল ও ফুটওভারে সাজসজ্জা এবং রাজধানীর প্রধান গ্যালারিগুলোতে বিশেষ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হবে। এছাড়া রাজধানীর দর্শকদের প্রদর্শনী উপভোগ করতে উদ্বুদ্ধ করতে তিনটি বিশেষ বাস সার্ভিস চালু করার ব্যবস্থা নেওয়া হবে। থাকবে সভা, সেমিনারসহ নানা আয়োজন।

এ প্রদর্শনীতে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশসহ ২৭টি দেশ। অন্যান্য দেশের মধ্যে রয়েছে বাহরাইন, ব্রুনাই, চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, জাপান, জর্দান, কাজাকাস্তান, লেবানন, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, ওমান, পাকিস্তান, প্রাজাতন্ত্রী কোরিয়া, কাতার, সৌদি আরব, সিঙ্গাপুর, শ্রীলংকা, সিরিয়া, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইনস, তুরস্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও উজবেকিস্তান।

প্রদর্শনীতে অংশ নেওয়ার জন্য এ পর্যন্ত প্রায় ৩০ জন বিদেশি অতিথি ঢাকা এসে পৌঁছেছেন। পর্যবেক্ষক হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও জার্মানির অতিথিরা এখন ঢাকায়।

প্রদর্শনী চলবে প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। শেষ হবে ৬ নভেম্বর।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৮৩০, অক্টোবর ০৭, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa