ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬, ১৬ জুলাই ২০১৯
bangla news

স্ত্রীকে কাঁদতে দেখেও ভক্তদের প্রতি কৃতজ্ঞ সরফরাজ

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-২৬ ৯:১৯:৩১ পিএম
সরফরাজ আহমেদ-ছবি: সংগৃহীত

সরফরাজ আহমেদ-ছবি: সংগৃহীত

এবারের বিশ্বকাপ আসরে ভারতের বিপক্ষে হেরে যাওয়ার পর পাকিস্তান দলটিকে কম ধকল পোহাতে হয়নি। সমালোচনায় পড়তে হয়েছে পুরো দল, দলের অধিনায়ক এবং কোচকেও। এমন কি কথা উঠেছে তাদের ফিটনেস, খাদ্য তালিকা, রাতে সীসা বারে যাওয়াসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে।

এরই রেশ ধরে দলের অধিনায়ককে পোহাতে হয়েছে পারিবারিক ঝামেলাও। সম্প্রতি অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে তার কোলে থাকা ছেলেসহ অপমানের শিকার হতে হয়েছে। এক পাকিস্তানি ভক্ত শপিংমলে আসা সরফরাজকে ‘শূকরের মতো মোটা’ বলে মন্তব্য করেন। যা তিনি মোবাইল ফোনে ভিডিও করেন। অবশ্য এ ব্যাপারটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে পরে ক্ষমা চান সেই ভক্ত।

জানা যায়, আরও দুই পাকিস্তানি ক্রিকেটারকেও শপিংমলে অপমানের শিকার হতে হয়। এ সময় তাদের পরিবারও নাকি সঙ্গে ছিল। এর ফলে খেলোয়াড়দের ব্যক্তিজীবন ও দলে প্রভাব পড়েছে অনেক। তবে সেসব ছাড়িয়ে সমর্থকদের কৃতজ্ঞতা জানিয়ে ভালোবেসে পাশে থাকতে বললেন সরফরাজ। বুধবার (২৬ জুন) আইসিসির এক ভিডিও বার্তায় এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

আইসিসি’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সরফরাজ বলেন, 'আমি যখন বাইরে থেকে হোটেলে আমার রুমে ফিরলাম, আমি দেখলাম আমার স্ত্রী ঐ ভিডিওটি দেখে কাঁদছে। আমি তখন তাকে বোঝানোর চেষ্টা করলাম যে এটি কেবল একটি ভিডিও। এটা তেমন গুরুতর কিছু না এবং আমাদের শক্ত থাকতে হবে। এগুলো সবই আমাদের জীবনের একটি অংশ, আর আমরা ভালো না করলে আমাদের এগুলোর মধ্য দিয়েই যেতে হয় এবং হবে।'

স্ত্রীর কান্না সহ্য করেও সরফরাজ তার ভক্তদের প্রতি কৃতজ্ঞ। তিনি কেবল তার নিকটবর্তী ব্যক্তিদের কাছ থেকেই সমর্থন পাননি, বরং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ভক্ত ও সমর্থকদেরও সমর্থন পেয়েছেন। 

এ প্রসঙ্গে সরফরাজ বলেন, ‘শুধু আমার পরিবার বা কাছের মানুষই নয়, ভিডিওটি দেখার পর আমার অনেক সমর্থকও এর বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। আমরা তাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞ। আজ আমরা যেখানে আছি, এর পেছনে আমাদের সমর্থকদের ভূমিকা অনেক। আমরা ভালো বা খারাপ যাই করি না কেন, আমাদের সমর্থকরা সবসময়ই আমাদের ভালো করার অনুপ্রেরণা।'

সরফরাজ বলেন, ‘আমি সবসময়ই বলি যে আমাদের পাকিস্তানি ভক্তরা আমাদের অনেক বেশি ভালোবাসে। আমরা এটাও জানি যে যখন আমরা ভালো করি তখন তারা আমাদের যথেষ্ট শ্রদ্ধা করে। আর যদি হারি তখন তারা রেগে যায়, কেননা আমাদের প্রতি তাদের প্রত্যাশাটা অনেক বেশি থাকে।'

আর খারাপ করলেও ভক্তরা যে তাদের ভালোবাসেন, সে কথাও জানান ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ ক্যাপ্টেন। তিনি বলেন, ‘ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে পরাজিত হওয়ার পর এক সপ্তাহ যেভাবেই যাক না কেন, আমাদের ভক্তরা কিন্তু ঠিকই লর্ডসে এসেছিলেন এবং পাকিস্তান দলের সমর্থন করেছেন। তারা হোটেলে এসেছিল  এবং বাইরেও আমাদের সাথে দেখা করেছে। তারা সবাই আমাদেরকে একটা কথাই বলেছেন, আমাদের সেরাটা দিতে এবং বাকিটা সৃষ্টিকর্তার হাতে ছেড়ে দিতে।'

বাংলাদেশ সময়: ২১১৮ ঘণ্টা, জুন ২৬, ২০১৯
এইচএমএস/এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-26 21:19:31