ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ আগস্ট ২০২০, ২৩ জিলহজ ১৪৪১

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯

পয়েন্টের খোঁজে পিঠ ঠেকে যাওয়া দ. আফ্রিকা-পাকিস্তান

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৫২১ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০১৯
পয়েন্টের খোঁজে পিঠ ঠেকে যাওয়া দ. আফ্রিকা-পাকিস্তান ছবি:সংগৃহীত

বিশ্বকাপের আসরে বেশ কয়েকটি হারের ফলে দুই দলেরই দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। দুই দলই জিতেছে মাত্র ১ ম্যাচ আর ড্র করেছে আরও একটি। সব মিলিয়ে তিন পয়েন্ট নিয়ে বিশ্বকাপের পয়েন্ট টেবিলে শেষ দিকে জায়গা হাতড়াচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা-পাকিস্তান দু'দলই।

রোববার (২৩ জুন) ওভালে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় পয়েন্টের খোঁজে একে অন্যের মুখোমুখি হবে ডুপ্লেসিস-সরফরাজরা। আর এ ম্যাচে যারা জিতবে, তারাই এগিয়ে যাবে পয়েন্ট টেবিলে।

হঠ্যাৎ করেই এবারের বিশ্বকাপের অপেক্ষাকৃত কম শক্তিশালী দলগুলো যেভাবে খেলতে শুরু করেছে, তাতে বোঝায় যায় এ ম্যাচেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে রান আর উইকেটের দখলে।

এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকা দলে অ্যান্দিলে ফেলকায়োর বদলে জায়গা করে নিতে পারেন জেপি ডুমিনি। আর পাকিস্তান দলে একাধিক পরিবর্তন হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ফর্মের ধারে কাছে নেই হাসান আলী। তার বদলে খেলতে পারেন শাহীন আফ্রিদী বা মোহম্মদ হাসনাইন। ভারতের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে শূন্য রানে আউট হন শোয়েব মালিক। বিশ্বকাপে সেভাবে রানের ছন্দে নেই, তাই তার বদলে দলে আসতে পারেন আসিফ আলীও।

তবে পরিবর্তনের হিসেব পেরিয়ে পাকিস্তানের কোচ আর্থার তার ১৫ সদস্যের দলে যেভাবে প্রাধান্য দিয়েছেন তরুণদেরই, ভারসাম্য রক্ষা করবেন তাই দিয়েই। ইংল্যান্ডের মাটিতে এখন পযর্ন্ত ব্যাটিংয়ে সফল পাকিস্তানকে এখন বোলিং নিয়ে নতুন করে ভাবতে হচ্ছে। এমনকি ফিল্ডিং নিয়েও। অবশ্য তার জন্য শেষ সময়ে এসে দলে নিয়েছেন ওহাব-আমিরকে। টসে জিতলে প্রথমে ব্যাটিং নেওয়ার চিন্তা করবেন সরফরাজ।

আর বল-ব্যাট-ফিল্ডিংয়ে সব জায়গায় ভারসাম্যপূর্ণ দক্ষিণ আফ্রিকা পরিচিত পিচে টস জিতলে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্তটা নেওয়ার পক্ষপাতী থাকবেন ডু প্লেসিস। শুরু থেকে তাদের চিন্তা থাকবে তিন’শ পেরোনো স্কোর দাড় করানো। যেন সহজেই আটকানো যায় ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তানের নতুন মিশন।

২০১৯ বিশ্বকাপের আগে বিশ্বকাপে মোট চারবার একে অন্যের মুখোমুখি হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা-পাকিস্তান। চার সাক্ষাতে তিনবার ম্যাচ জিতেছে প্রোটিয়ারা। একবার মাত্র ম্যাচ জিতেছে পাকিস্তান। ১৯৯২ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে ২০ রানে হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ১৯৯৬ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে ৫ উইকেটে এবং ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে ৩ উইকেটে হারিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০১৫ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২৯ রানে হারিয়েছিল পাকিস্তান। তবে সেসব হিসেব বাইরে রেখে বৃষ্টিহীন দিনে দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া দু'দলই খেলবেন পয়েন্টের জন্য।

পাকিস্তান দল: সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), আসিফ আলী, বাবর আজম, ফখর জামান, হারিস সোহেল, হাসান আলী, ইমাদ ওয়াসিম, ইমাম-উল-হক, মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ হাফিজ, মোহাম্মদ হাসনাইন, শাদাব খান, শাহীন আফ্রিদী, শোয়েব মালিক, ওহাব রিয়াজ।

দক্ষিণ আফ্রিকা দল: ফাফ ডু প্লেসিস (অধিনায়ক), কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), ইমরান তাহির, ডেভিড মিলার, লুঙ্গি এনগিডি, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস, তাবরাইজ শামসি, রাসি ফন ডার ডুসেন, হাশিম আমলা, জেপি ডুমিনি, এইডেন মার্করাম, ক্রিস মরিস, আন্দিলে ফেলুকায়ো, কাগিসো রাবাদা, ডেল স্টেইন।

বাংলাদেশ সময়: ০১১৮ ঘণ্টা, জুন ২২, ২০১৯
এইচএমএস/এমএমএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa