ঢাকা, সোমবার, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

‘২০১৫’ বিশ্বকাপে প্রথম কোয়ার্টারে উঠে বাংলাদেশ 

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৯ ৮:৪৪:৪৫ পিএম
২০১৫ বিশ্বকাপ জয়ের পর অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা-সংগৃহীত

২০১৫ বিশ্বকাপ জয়ের পর অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা-সংগৃহীত

৩০ মে পর্দা উঠবে ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ লড়াই বিশ্বকাপের ১২তম আসরের। সে উপলক্ষে গত আসরগুলোর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরা হচ্ছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ের অাগে। এবারের আয়োজনে থাকছে ২০১১ অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপ।

ভূমিকাপর্ব: গত বিশ্বকাপ অর্থাৎ ২০১৫ আসরে নানা কারণে স্মরণীয় হয়ে থাকবে ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে। প্রথমবারের মতো নিউজিল্যান্ডের ফাইনাল খেলা, আরেকবার দক্ষিণ আফিকার কষ্ট, আফগানদের অভিষেক, বাংলাদেশের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনাল, অস্ট্রেলিয়ার পঞ্চম শিরোপা, সব মিলিয়ে আধুনিক ক্রিকেটের আনন্দ সুর বেজে উঠেছিল ওশেনিয়া অঞ্চলে। 

আয়োজক: ১৯৯২ বেনসন অ্যান্ড হেজেস বিশ্বকাপের পর পুনরায় ওশেনিয়া অঞ্চলে ফিরে ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠতম আসর। আরেকবার যৌথভাবে ২০০৫ বিশ্বকাপ আয়োজন করে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড।

অংশগ্রহণকারী দেশ: আইসিসির পূর্ণাঙ্গ ১০ সদস্য এবং চার সহযোগী-সদস্য অংশগ্রহণ করে ২০১৫ বিশ্বকাপে। আইসিসি ট্রফিতে কেনিয়াকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মূল মঞ্চের টিকেট কাটে আফগানিস্তান। অস্ট্রেলিয়া নিজেদের মাটিতে সাতটি এবং নিউজিল্যান্ডও তাদের মাটিতে সাতটি ভেন্যুতে বিশ্বকাপ আয়োজন করে। 

গ্রুপ পর্ব: ১৪ দলকে ভাগ করা হয় দুই গ্রুপে। ‘এ’ গ্রুপে ছিল দুই স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড, আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ড। ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আয়ারল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে ও আরব আমিরাত ছিল ‘বি’ গ্রুপে। 

’১১ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ: বাংলাদেশ বিশ্বকাপের এখন পযর্ন্ত সেরা সময় কাটিয়েছে ২০১৫ আসরে। তিন জয় নিয়ে গ্রুপে চতুর্থ হয়ে প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখে টাইগাররা। ইংল্যান্ড, আফগানিস্তান এবং স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে অনবদ্য জয় পায় সাকিব-তামিমরা। সেমিতে উঠার লড়াইয়ে বিতর্কিতভাবে তারা হেরে যায় ভারতেরে বিপক্ষে। বাংলাদেশীদের মধ্যে বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরি পান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তাও আবার ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ‘ব্যাক টু ব্যাক’ সেঞ্চুরি।

মূল লড়াই: ১৪ ফেব্রুয়ারি, ক্রাইস্টচার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠে ১১তম বিশ্বকাপের। গ্রুপ পর্ব ও কোয়ার্টারের লড়াই শেষে শুরু হয় সেমির লড়াই। দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠে নিউজিল্যান্ড। আর ভারতকে হারায় অস্ট্রেলিয়া। 

শিরোপা উৎসব:  দুই স্বাগতিকের ফাইনাল হয় ২৯ মার্চ। মেলবোর্নের ফাইনালে কিউইদের হৃদয় ভেঙে পঞ্চম শিরোপা ঘরে তুলে অজিরা। 

পরিসংখ্যান: টুর্নামেন্ট জুড়ে দুর্দান্ত বোলিং করে সর্বোচ্চ ২২ উইকেট শিকার করেন মিচেল স্টার্ক এবং নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট। তবে শিরোপা জয়ের পাশাপাশি ম্যান অব দ্য সিরিজও নির্বাচিত হন স্টার্ক। সর্বোচ্চ ৫৪৭ সংগ্রহ করেন কিউই ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল। 

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৫ ঘণ্টা, মে ২৯, ২০১৯
ইউবি/এইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-05-29 20:44:45