ঢাকা, সোমবার, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

‘২০০৭’ বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়াকে এনে দিল হ্যাটট্রিক শিরোপা

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৭ ৯:৩৮:৩১ পিএম
বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়াকে এনে দিল হ্যাটট্রিক শিরোপা-ছবি:সংগৃহীত

বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়াকে এনে দিল হ্যাটট্রিক শিরোপা-ছবি:সংগৃহীত

৩০ মে পর্দা উঠবে ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ লড়াই বিশ্বকাপের ১২তম আসরের। সে উপলক্ষ্যে গত আসরগুলোর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরা হচ্ছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ের আগে। এবারের আয়োজনে থাকছে ২০০৭ ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপ।

ভূমিকাপর্ব: ভেন্যু ও টিকেট বিতর্ক, কোচের মৃত্যু, বাংলাদেশের সাফল্য, গ্রুপ পর্বেই ভারত-পাকিস্তানের বিদায়, ফাইনালে গিলক্রিস্টের স্কোয়াশ বল ব্যবহার, অস্ট্রেলিয়ার হ্যাটট্রিক শিরোপা সব মিলিয়ে ২০০৭ ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপ ভরপুর ছিল নাটকীয়তায়। 

আয়োজক: ইউরোপ-এশিয়া-অস্ট্রেলিয়া-অাফ্রিকা মহাদেশ ঘুরে এসে ২০০৭ বিশ্বকাপ বসল আমেরিকায়। দক্ষিণ আমেরিকার ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ নামে যারা জিতেছে প্রথম দুই বিশ্বকাপ।

অংশগ্রহণকারী দেশ: বিশ্বকাপের শুরুটা হয়েছিল ৮ দল নিয়ে। এরপর প্রতি আসরে বাড়তে থাকে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা। ২০০৩ বিশ্বকাপে ছিল ১৪ দল। এবার যুক্ত হয় আরো দুই দল। আইসিসির পূর্ণাঙ্গ দশ সদস্যের সঙ্গে যুক্ত হয় ছয় সহযোগী-সদস্য। অভিষেক হয় আয়ারল্যান্ড ও বারমুডার।

ভেন্যু: আটটি ভেন্যুতে ৫১ ম্যাচের ২০০৭ বিশ্বকাপ আয়োজন করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো, গায়ানা, অ্যান্টিগা অ্যান্ড বারবুডা, গ্রানাডা, সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস দ্বীপপুঞ্জগুলো ম্যাচ আয়োজন করে ছয়টি করে। সেমিফাইনাল ও ফাইনাল মিলিয়ে সেন্ট লুসিয়া, জ্যামাইকা ও বার্বাডোজে হয় সাতটি করে ম্যাচ।

গ্রুপ পর্ব: আগের আসরগুলোর চেয়ে ভিন্ন পদ্ধতিতে হাঁটে উইন্ডিজ বিশ্বকাপ। ১৬ দলকে ভাগ করা হয় ৪ গ্রুপে। এরপর রাউন্ড রবিনে লড়াই হয়। প্রতিটি গ্রুপের শীর্ষ দুই দল উঠে সুপার এইটে। ‘এ’ গ্রুপে ছিল অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, স্কটল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডস। ‘বি’ গ্রুপে শ্রীলঙ্কা, ভারত, বাংলাদেশ ও বারমুডা। নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড, কেনিয়া ও কানাডা ছিল ‘সি’ গ্রুপে। আর ‘ডি’ গ্রুপে পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জিম্বাবুয়ে ও আয়ারল্যান্ড। প্রতিটি জয় ২ পয়েন্ট, ড্র ১ পয়েন্ট এবং পরাজয় শূন্য পয়েন্ট হিসেব করা হয়।

’০৭ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ: ২০০৩ আসরের ব্যর্থতা ভুলে ২০০৭ বিশ্বকাপে নতুন ইতিহাস লিখে বাংলাদেশ। প্রথমবারের মতো সুপার এইটে জায়গা করে নেয় বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ম্যাচেই তামিম-মুশফিক-সাকিবের ব্যাটিং নৈপুণ্যতায় এবং মাশরাফির বোলিং ঝড়ে ভারতের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় পায় টাইগাররা। সেরা আটের রবিন রাউন্ডে প্রোটিয়াদের হারালও সেমিফাইনালে যেতে পারেনি বাংলাদেশ। বাকি ছয় ম্যাচে হেরে যায় টাইগাররা।

মূল লড়াই শুরু:  ১৩ মার্চ কিংস্টনের সাবিনা পার্কে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম পাকিস্তানের ম্যাচ দিয়ে শুরু হয় ৯ম বিশ্বকাপের আসর। গ্রুপ পর্ব শেষে সুপার এইটে জায়গা পায় অস্ট্রেলিযা, শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, বাংলাদেশ ও আয়ারল্যান্ড। সেখান থেকে রাউন্ড রবিন লড়াই শেষে টিকে থাকে চার দল। সেমিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারায় অস্ট্রেলিয়া। আর নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে শ্রীলঙ্কা।

শিরোপা উৎসব: ১৯৯৬ সালে ফাইনালে হারের প্রতিশোধ নেয় অস্ট্রেলিয়া। ২৮ এপ্রিল, বার্বাডোজের কেনিংস্টন ওভালে ডার্ক লুইস পদ্ধতিতে শ্রীলঙ্কাকে ৫৩ রানে হারিয়ে রেকর্ড হ্যাটট্রিক শিরোপা উৎসব করে রিকি পন্টিংরা।

পরিসংখ্যান: আসরের সর্বোচ্চ ২৬ উইকেট নেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার গ্লেন ম্যাকগ্রা। ম্যান অব সিরিজও হন তিনি। সর্বোচ্চ ৬৫৯ রান করেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান ম্যাথু হেইডেন।

তর্ক-বিতর্ক: ২০০৭ বিশ্বকাপের শুরু থেকে জন্ম দেয় বিতর্কের। অনুশীলনের জন্য পর্যাপ্ত মাঠের ব্যবস্থা না থাকা, টিকিটের বাড়তি দাম নিয়ে ঝড় ওঠে মিডিয়ায়। এশিয়ার দুই পরাশক্তি ভারত-পাকিস্তানের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় বড় একটা দর্শক হারিয়ে ফেলে উইন্ডিজ বিশ্বকাপ। টুর্নামেন্ট চলাকালীন সময় আকস্মিকভাবে মারা যান পাকিস্তানের কোচ বব উলমার। একদিন আগে নবাগত আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে হারে পাকিস্তান। অবশ্য প্রথমে সন্দেহজনক মৃত্যু ধরা হলেও পোস্টমর্টেমে জানানো হয় উলমারের স্বাভাবিক মৃত্যুর খবর। এছাড়া ফাইনালে স্কোয়াশ বল নিয়ে মাঠে নামার জন্য সমালোচিত হন অ্যাডাম গিলক্রিস্ট।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৭ ঘন্টা, মে ২৭, ২০১৯
ইউবি/এমএমএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-05-27 21:38:31