bangla news

বিশ্বকে দেখিয়ে দাও কেন তুমি সেরা: সাকিবকে রোডস

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৭ ৬:১৯:১০ এএম
সাকিব আল হাসান- ছবি: সংগৃহীত

সাকিব আল হাসান- ছবি: সংগৃহীত

আঙুলের চোটের কারণে নিউজিল্যান্ড সফরে যেতে পারেননি সাকিব আল হাসান। এরপর ইনজুরি কাটিয়ে আইপিএলে অংশ নিলেও খেলতে পেরেছেন মাত্র ৩ ম্যাচ। কিন্তু সদ্য সমাপ্ত আয়ারল্যান্ড সিরিজ দিয়ে প্রায় পাঁচ মাস পর ওয়ানডে ক্রিকেটে ফিরেই দেখা দিলেন সেই পুরনো রূপে।

আয়ারল্যান্ডে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক টুর্নামেন্ট জয়ের অন্যতম কারিগর ছিলেন সাকিব। ওই ত্রিদেশীয় সিরিজে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ২টি ফিফটি করার পাশাপাশি বল হাতেও ছিলেন বেশ কিপটে। যদিও ফের চোটে পড়ায় ফাইনালে খেলা হয়নি তার, কিন্তু আগের তিন ম্যাচের পারফরম্যান্সই যথেষ্ট ছিল ওয়ানডেতে অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ের সিংহাসন ফিরে পাওয়ার জন্য।

বিশ্বকাপের ঠিক আগে আবার ফিট সাকিব। তবে টাইগারদের কোচ স্টিভ রোডস চান বিশ্বকাপে তার প্রিয় শিষ্য দেখিয়ে দিক কেন তিনি বিশ্বের এক নাম্বার। কার্ডিফে রোববার (২৬ মে) পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতিমূলক ম্যাচটা বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়ার পর আইসিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রোডস বলেন, ‘সে (সাকিব) ঠিক আছে। সে শারীরিকভাবে দারুণ অবস্থায় আছে। আয়ারল্যান্ডে হালকা সমস্যা ছিল কিন্তু সে কাটিয়ে উঠেছে এবং সে এখন উদগ্রীব।'

'সে দারুণ এক টুর্নামেন্টের অপেক্ষায় আছে। আমি মনে করি তার এখনও কিছু প্রমাণ করা বাকি আছে এবং সেও হয়ত তাই মনে করে। দেখে মনে হয় সে হয়ত ভুলে গেছে যে, সে ফের ওয়ানডে ক্রিকেটের এক নাম্বার অলরাউন্ডার হয়েছে এবং আমরা মনে করি সে এটারই যোগ্য। কিন্তু বাকি সবাই যেন তা বিশ্বাস করে সেটা নিশ্চিত করতে নিজেকে প্রমাণ করা দরকার।'

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ফিটনেস নিয়ে কিছুটা দুশ্চিন্তা কাজ করছে রোডসের মনে। কাঁধের চোটের কারণে বোলিং করা প্রায় ছেড়েই দিয়েছেন তিনি। এর চেয়ে বরং স্পেশালিষ্ট ব্যাটসম্যান হিসেবেই ভূমিকা রাখাতেই মনোযোগ তার। তবে রোডস বিশ্বাস করেন বিশ্বকাপে বল হাতেও দেখা যাবে তাকে।

রোডস বলেন, 'ভেবেছিলাম পাকিস্তানের বিপক্ষে সে বোলিং করবে। কিন্তু তা তো হলো না। তবে আশা করি, বিশ্বকাপের শুরু থেকেই তার বোলিং সার্ভিসটা পাবো। দলের ভারসাম্যের জন্য এটা জরুরী। তবে ভালো দিক হচ্ছে, মাহমুদউল্লাহ এমন এক খেলোয়াড় যার বোলিংয়ে ভালো করতে অনেক বেশি অনুশীলন করতে হয় না।'

এই বিশ্বকাপের সবচেয়ে বেশি অভিজ্ঞতাসম্পন্ন দলের মধ্যে বাংলাদেশ একটি। দলে পাঁচজন খেলোয়াড় আছেন যাদের ১৭৫ কিংবা তার বেশি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে। এটা বাংলাদেশের জন্য বাড়তি সুবিধা কি না এমন প্রশ্নের জবাবে রোডস বলেন, ‘মানুষ বলে বিশ্বকাপ জিততে অভিজ্ঞতা লাগে। আমি খুশি কারণ আমাদের সেই অভিজ্ঞতার সম্পদ আছে। আমি তাদের কথা শুনি কারণ এত অভিজ্ঞতার সঙ্গে না থেকে উপায় আছে?’ 

বাংলাদেশ সময়: ০৬১৮ ঘণ্টা, মে ২৭, ২০১৯
এমএইচএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-05-27 06:19:10