ঢাকা, সোমবার, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৭ জুন ২০১৯
bangla news

’৮৩ বিশ্বকাপে ক্যারিবিয়ানদের সিংহাসন কেড়ে নিল ভারত 

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৩ ৩:০৮:২৬ পিএম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

৩০ মে পর্দা উঠবে ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ লড়াই বিশ্বকাপের ১২তম আসরের। সে উপলক্ষ্যে গত আসরগুলোর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরা হচ্ছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ের অাগে। এবারের আয়োজনে থাকছে ১৯৮৩ সালের ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপ। 

ভূমিকাপর্ব: প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বকাপে (১৯৭৫ ও ১৯৭৯) শিরোপা যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের ঘরে। ঠিক চার বছর পর ইংল্যান্ডের মাটিতে তাদের সেই মুকুট কেড়ে নেয় ভারত। নিজেদের ঘরে আবারও হৃদয় ভাঙে ইংল্যান্ডের। অধরা মুকুটটি এখনও পরা হয়নি ইংলিশদের। 

আয়োজক: টানা তৃতীয়বারের মতো ১৯৮৩ বিশ্বকাপের আয়োজন করে ইংল্যান্ড। তবে এবার ইংলিশরা একা আয়োজন করেনি। সঙ্গে নেয় অঙ্গদেশ ওয়েলসকেও। হলো ইংলিশ ও ওয়েলস বিশ্বকাপ। ২০১৯ বিশ্বকাপও আয়োজন হবে গ্রেট ‍বৃটেনের অন্তর্ভূক্ত এই দুই দেশে।

অংশগ্রহণকারী দেশ: আইসিসির পূর্ণ সদস্য হিসেবে ইংল্যান্ড, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা মূল পর্বে অংশগ্রহণ করে। প্রথমবারের মতো লঙ্কানদের বাছাইপর্ব খেলে আসতে হয়নি। অভিষেক ঘটে ১৯৮২ আইসিসি ট্রফি চ্যাম্পিয়ন জিম্বাবুয়ের। 

ভেন্যু: ইংল্যান্ড ১৯৭৫ ও ১৯৭৯ বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল ছয়টি ভেন্যুতে। তবে আগের ছয়ের পাশাপাশি এবার যুক্ত হলো আরো নতুন ১১টি ভেন্যু। লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ড (লন্ডন), ট্রেন্ট ব্রিজ (নটিংহ্যাম), হেডিংলি (লিডস), দ্য ওভাল (লন্ডন), এজবাস্টন ক্রিকেট গ্রাউন্ড (বার্মিংহাম), কাউন্টি ক্রিকেট গ্রাউন্ড (ডার্বি), কাউন্টি ক্রিকেট গ্রাউন্ড (ব্রিস্টল), কাউন্টি গ্রাউন্ড (টাওন্টন), কাউন্টি ক্রিকেট গ্রাউন্ড (চেলমসফোর্ড), সেন্ট হেলেনস রাগবি ক্রিকেট গ্রাউন্ড (সোয়ানসি, ওয়েলস), গ্রেস রোড (লেস্টার), ওল্ড ট্রাফোর্ড ক্রিকেট গ্রাউন্ড (ম্যানচেস্টার), কাউন্টি ক্রিকেট গ্রাউন্ড (সাউদ্যাম্পটন), নিউ রোড (ওরচেস্টার) ও নেভিল গ্রাউন্ড (রয়্যাল থানব্রিজ)।

গ্রুপ পর্ব: গত দুই আসরের মতো এবারও আট দলকে দুই গ্রুপে ভাগ করে রাউন্ড রবিনে লড়াই শুরু হয়। ‘এ’ গ্রুপে ছিল স্বাগতিক ইংল্যান্ড, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা। ‘বি’ গ্রুপে ছিল দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও জিম্বাবুয়ে। সর্বমোট ম্যাচ হয় ২৭টি।

মূল লড়াই শুরু: চার বছর পর ঠিক একই তারিখে (৯ জুন) উদ্বোধনী ম্যাচ শুরু হয়। ‘এ’ গ্রুপে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে আসর শুরু করে ইংল্যান্ড। পাকিস্তান হারায় শ্রীলঙ্কাকে। ‘বি’ গ্রুপ ছিল নাটকীয়তায় ভরপুর। বিশ্বকাপের অভিষেক ম্যাচেই অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ক্রিকেট বিশ্বকে চমকে দেয় নবাগত দল জিম্বাবুয়ে। দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন উইন্ডিজকে হারিয়ে শুরু করে ভারত।

শিরোপা উৎসব: এবারও ফেবারিটের তালিকায় থাকা গত অাসরের ফাইনালিস্ট ইংল্যান্ড জায়গা করে নেয় সেমিফাইনালে। কিন্তু টানা তৃতীয়বারের মতো তাদের হৃদয় ভাঙে নিজ ভূমিতে। ভারতের কাছে হেরে শেষ চার থেকে বিদায় নেয় ইংলিশরা। আরেক ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

২৫ জুন ওল্ড লর্ডসের ফাইনালে ৫৪.৪ ওভারে (৬০ ওভারের ম্যাচ) ১৮৩ রানের টার্গেট দেয় ভারত। জবাবে মাত্র ১৪০ রানে গুটিয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৪৩ রানে জিতে ক্যারিবিয়ানদের রাজত্ব কেড়ে নেয় ভারত। সেই যে উইন্ডিজের সোনালি যুগ গেল; ওয়ানডে বিশ্বকাপে আর তারা ফাইনালে পৌঁছাতে পারেনি। 

পরিসংখ্যান: ফাইনালে ৭ ওভার বল করে মাত্র ১২ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন অমরনাথ। সেমিফাইনালের পর ফাইনালেও ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ হন তিনি। আসরে ৭ ম্যাচে সর্বোচ্চ ৩৮৪ রান করেন ইংল্যান্ডের ডেভিড গাওয়ার। ৮ ম্যাচে সর্বোচ্চ ১৮ উইকেট নেন ভারতের রজার বিনি।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৮ ঘন্টা, মে ২৩, ২০১৯ 
ইউবি/এমকেএম 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-23 15:08:26