ত্রিপুরায় কালবৈশাখীর তাণ্ডবে একজনের প্রাণহানি
[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৩ আগস্ট ২০১৮
bangla news

ত্রিপুরায় কালবৈশাখীর তাণ্ডবে একজনের প্রাণহানি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৫-০৮ ৩:৩৩:৪৮ এএম
ঝড়কবলিত এলাকা ঘুরে দেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। ছবি: বাংলানিউজ

ঝড়কবলিত এলাকা ঘুরে দেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। ছবি: বাংলানিউজ

আগরতলা: কালবৈশাখী ঝড়ে ত্রিপুরা রাজ্যের খোয়াইয়ে হরিমনি সাঁওতাল (৫৮) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন ৯ জন। বিভিন্ন এলাকায় হয়েছে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিও।

সোমবার (৭ মে) এ ঝড়ের তাণ্ডব দেখা যায় খোয়াইয়ে। দুর্যোগ মোকাবেলায় দু’টি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। ঝড়কবলিত এলাকা ঘুরে দেখেছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবও।

স্থানীয়রা জানান, তীব্র বেগে হাওয়া ঝড়ে পরিণত হলে একটি গাছ হরিমনির ওপর পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। আহতদের ভর্তি করা হয় স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে। ঝড়ে এলাকার গাছপালা এবং বিদ্যুৎ ও টেলিফোন লাইনের খুঁটি উপড়ে পড়ে। ভেঙে পড়ে বহু কাঁচা এমনকি নির্মাণাধীন পাকা বাড়িও। মারা যায় কিছু গবাদি পশু। সমগ্র জেলা যেন ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়।
 
ঝড়ের এই তাণ্ডবের খবরে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বিকেলেই খোয়াই জেলায় ছুটে যান। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা ঘুরে দেখার পাশাপাশি তিনি সেখানে কথা বলেন জনসাধারণ ও ত্রাণ শিবিরে আশ্রয়রতদের সঙ্গে। সব মিলিয়ে এক হাজারেরও বেশি মানুষ ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। 

তিনি জানান, মৃতের পরিবারকে সব মিলিয়ে ৬ লাখ রুপি দেওয়া হবে। অন্য ক্ষতিগ্রস্তদের এক লাখ টাকা করে দেওয়া হবে। এ দিন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারপ্রতি ৫ হাজার রুপির চেক ও দুই হাজার রুপি নগদে দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে শিবিরে চিকিৎসার বন্দোবস্তও করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০৩২৯ ঘণ্টা, মে ০৮, ২০১৮
এসসিএন/এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa