[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১১ ডিসেম্বর ২০১৭

bangla news

ঢাকা-জাকার্তা সরাসরি ফ্লাইট চালুর উদ্যোগ

এভিয়াট্যুর ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১০-২৯ ১১:৫৫:১৫ এএম
বাংলাদেশ-ইন্দোনেশিয়া সরাসরি ফ্লাইট চালু বিষয়ক চুক্তি।

বাংলাদেশ-ইন্দোনেশিয়া সরাসরি ফ্লাইট চালু বিষয়ক চুক্তি।

ঢাকা: দ্বিপাক্ষিক আকাশ সেবা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ-ইন্দোনেশিয়া। এর আওতায় উভয় দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরের মধ্যে সরাসরি ফ্লাইট চালু হবে।

এর মাধ্যমে দুই দেশের বাণিজ্য ও পর্যটন শিল্পে নতুন দিগন্ত উন্মোচন হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

গত ২৬ অক্টোবর ঢাকায় নিযুক্ত ইন্দোনেশিয়ান রাষ্ট্রদূত রিনা সুয়েমারনো ও বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) বাংলাদেশের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল নাইম হাসান এ বিষয়ক চুক্তিতে সই করেন।

বাংলাদেশের পক্ষে ঢাকা ও চট্টগ্রামের সঙ্গে ইন্দোনেশিয়ার সরাসরি ফ্লাইটের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করা হয়।

এর আগে ইন্দোনেশিয়ার পক্ষ থেকে ঢাকা-জাকার্তা সরাসরি ফ্লাইটের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করা হয়। একই সঙ্গে বাংলাদেশ থেকে আরো পণ্য আমদানির
ব্যাপারেও আগ্রহ প্রকাশ করে ইন্দোনেশিয়া। এ নিয়ে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) নেতাদের সঙ্গে বৈঠকও করেন ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত।

বাংলাদেশ ‘আসিয়ান’-এর প্রবেশদ্বার হওয়ায় ইন্দোনেশিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে ভৌগলিক অবস্থান কাজে লাগানোর অপার সম্ভাবনা রয়েছে। বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়া দু’দেশই উন্নয়নশীল পর্যায়ে থাকায় পারস্পরিক স্বার্থে একসঙ্গে কাজ করার যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।

২০১৬-১৭ অর্থবছরে বাংলাদেশ ৪ কোটি ৬৩ লাখ ৯ হাজার মার্কিন ডলারের পণ্য ইন্দোনেশিয়ায় রফতানি করে। এর বিপরীতে ইন্দোনেশিয়া থেকে ১১০ কোটি ৭১ লাখ ডলারের পণ্য আমদানি করে। ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশের রফতানিযোগ্য পণ্যগুলো হচ্ছে- পাট ও পাটজাত পণ্য, হোম-টেক্সটাইল এবং নিটওয়্যার। আর ইন্দোনেশিয়া থেকে মূলত টেক্সটাইল সামগ্রী এবং খনিজদ্রব্য আমদানি করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৯, ২০১৭
জেডএম/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Alexa