Alexa
ঢাকা, শনিবার, ১০ আষাঢ় ১৪২৪, ২৪ জুন ২০১৭

bangla news

ওড়ার আগেই স্পাইসজেটের বাগাড়ম্বর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৩-০১ ১২:৪৭:৪৫ পিএম
স্পাইসজেটের লোগো

স্পাইসজেটের লোগো

ঢাকা: বিজ্ঞাপনের উপরের অংশে লাল কালিতে লেখা ‘সর্বনিম্ন ভাড়া কেবল স্পাইসজেটে’। তার নিচে আরো বড় করে লেখা ‘স্পাইসজেট নিয়ে এলো সরাসরি ফ্লাইট ঢাকা থেকে কলকাতা’। আর নিচের অংশে বৃত্ত এঁকে লিখে রাখা হয়েছে ‘ভারতের ১ নম্বর পছন্দ’।

আসছে ২৩ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া ঢাকা-কলকাতা ফ্লাইটে এভাবেই যাত্রী টানার কৌশল নিয়েছে ভারতীয় এয়ারলাইন্স স্পাইসজেট। তাদের এমন চটকদার বিজ্ঞাপন বুধবার (১ মার্চ) ছাপা হয়েছে বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায়। ওই বিজ্ঞাপন দেখে বিভ্রান্ত অনেক পাঠক ফোন করে বাংলানিউজের কাছে বিষয়টি নিয়ে খোঁজখবর করার অনুরোধ জানান।

প্রশ্ন ওঠে, তাহলে কি ঢাকা টু কলকাতা কোনো সরাসরি ফ্লাইট চলে না? সর্বনিম্ন ভাড়া কেবল স্পাইসজেট এ কথাটার মানে কি? কেবল এর সঙ্গে মাত্র শব্দের ব্যবহার যে ব্যাকরণের দৃষ্টিতে বাহুল্য দোষে দুষ্ট সেটা বুঝার মতো বাংলাভাষী কি ওই এয়ারলাইন্সে নেই? ওরা ভারতের ১ নম্বর পছন্দ কোন বিবেচনায়?

বিষয়গুলো খোলাসা হতে ফোন করা হয় বিজ্ঞাপনে দেওয়া মোবাইল নাম্বারে। এ সময় বিজ্ঞাপনে উল্লেখ নেই এমন তথ্য দিয়ে বলা হয়, স্পাইসজেটের এই অফার বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস (২৬ মার্চ) উপলক্ষে। বিজ্ঞাপনে ওয়ানওয়ে টিকিটের যে ভাড়া (৪৫২৫ টাকা) দেখানো হয়েছে তাও ওই বিশেষ অফারের। এখন থেকে শুরু করে ১ মাস এ ‍অফারে বুকিং দেওয়া যাবে। এরপর কিছুটা বেড়ে যাবে ওয়ানওয়ে ও রিটার্ন উভয় টিকিটেরই ভাড়া।

স্পেশাল অফার শেষে তাহলে কতো হবে ঢাকা টু কলকাতা ভাড়া- জানতে চাইলে ফোনের ওপ্রান্ত থেকে বলা হয়, এটা এখনই নিশ্চিত করা মুশকিল। তবে এটা যেহেতু লো কস্ট ক্যারিয়ার তাই ভাড়া খুব বেশী বাড়বে না।

তাহলে বিজ্ঞাপনে কেনো এ কথা লিখে দেওয়া হলো না জানতে চাইলে বলা হয়, সব কিছু কি আর বিজ্ঞাপনে থাকবে?

সব কিছু না থাকলেও ‘শর্তাবলী প্রযোজ্য’ আর ‘সীমিত সংখ্যক আসন’ তথ্য দু’টো ছোট ছোট অক্ষরে ঠিকই লিখে দেওয়া হয়েছে বিজ্ঞাপনে। তাহলে এমন রাখ রাখ ঢাক ঢাকের কারণ কি? এসব বাগাড়ম্বরের উত্তর কিন্তু মেলেনি স্পাইসজেটের বিজ্ঞাপন বা অফিসে। বর্তমানে ঢাকা থেকে কলকাতা রুটে চলাচলকারী আর সব এয়ারলাইনসের তুলনায় আপনাদের কি এমন বাড়তি সুবিধা থাকছে ‍জানা যায়নি তার উত্তরও।

বর্তমানে বাংলাদেশি এয়ারলাইন্সগুলোর মধ্যে রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী বাংলাদেশ বিমান ছাড়াও ইউএস-বাংলা, রিজেন্ট ও নভো এয়ারের নিয়মিত ফ্লাইট চলাচল করছে ঢাকা-কলকাতা রুটে। বিদেশি এয়ারলাইনসগুলোর মধ্যে এ রুটে যাত্রী পরিবহন করছে এয়ার ইন্ডিয়া, এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস ও জেট এয়ার। এসব এয়ারলাইনসের সঙ্গ স্পাইসজেটের ভাড়ারও খুব একটা পার্থক্য নাই। সব ক’টি এয়ারলাইনসই আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে সুনামের সঙ্গে। জেট এয়ারের মতো এয়ারলাইনস এ রুটে এতো দিন উচ্চ ভাড়ায় ফ্লাইট পরিচালনা করলেও প্রতিযোগিতামূলক বাজারে ভাড়া কমিয়ে আনতে বাধ্য হয়েছে তারাও। তাই তুলনামূলক বিচারে স্পাইসজেট আদৌ কতোটা যাত্রী সুবিধা দেয় তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েই যাচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪০ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০১৭
জেডএম/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

You May Like..
Alexa