ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭

bangla news
আজমীরের পথে....

আজমীরের পথে....

শুরুটা হয়েছিল নিছকই আড্ডায়। পৃথিবীতে এমন কতগুলো তীর্থ রয়েছে যেসব স্থানে সব ধর্মবর্ণের মানুষ দ্বিধাহীন চিত্তে অবাধে যাতায়াত করে! ভারতে এমনই এক তীর্থ আজমীর শরীফ। যেতে হবে সেখানে।
২০১৪-১২-০৮ ৯:০৬:০০ এএম
পূর্ণিমায় মেঘের সীমান্তে

পূর্ণিমায় মেঘের সীমান্তে

রাঙামাটি থেকে ৭২ কিলোমিটার দূরে ছোটহরিণা বাজার। ছোটহরিণা যাওয়ার একমাত্র উপায় নৌপথ। বরকলের আকাশে সূর্যাস্ত দেখার ইচ্ছে অনেক দিনের। ভারতের সীমান্ত থেকে বয়ে আসা কর্ণফুলীর মূল স্রোত বরকল হয়ে শুভলংয়ে এসে কাপ্তাই লেকে মিশে গেছে।
২০১৪-১২-০৩ ৯:৪৬:০০ এএম
রোমাঞ্চকর চিতাওয়ান বন: পর্ব-২

রোমাঞ্চকর চিতাওয়ান বন: পর্ব-২

...পরদিন চিতাওয়ানের সকালে বেশ ঠাণ্ডা অনুভব করলাম, ঘুম থেকে উঠে আমরা তৈরি হয়ে রেস্টুরেন্টে সকালের ব্রেকফাস্ট সেরে নিলাম দুধ এবং সিরিয়াল, ডিম এবং পাউরুটি দিয়ে। আমার বোনের চা এর অভ্যাস নাই কিন্তু আমার অবশ্যই চাই ব্ল্যাক টি।
২০১৪-১১-২৯ ১২:৫৪:০০ পিএম
রোমাঞ্চকর চিতাওয়ান বন- পর্ব এক

রোমাঞ্চকর চিতাওয়ান বন- পর্ব এক

‘জঙ্গল’ শুনলেই জিম করবেটের বইয়ের জঙ্গলের বাঘিনীর কলজে কাঁপানো চিৎকার কানে আসে, আর রুডিইয়ার্ড কিপলিংয়ের মোগলির চিরশত্রু জঙ্গলের ‘শের খান’র কথা মনে হয়। দেশের বাইরে জঙ্গলে ঘোরার সুযোগটা আচমকাই এসে গেল। নেপালের চিতাওয়ানের জঙ্গল সফরের নেপথ্য ছিল ভিন্ন, কিন্তু তখনো জানতাম না যে কি অপেক্ষা করছে আমাদের জন্য!
২০১৪-১১-২৬ ২:০৮:০০ পিএম
উড়ন্ত প্লেনে মুখোরোচক খাবার-২

উড়ন্ত প্লেনে মুখোরোচক খাবার-২

আকাশে মেঘে ভেসে যাওয়ার সময় যাত্রীদের মুখরোচক খাবার পরিবেশন করে বিভিন্ন বিমান সংস্থাগুলো। যাত্রীদের রুচি ও সন্তুষ্টির কথা মাথা রেখে নাস্তার মেনু নির্ধারণ করে তারা।
২০১৪-১১-২৩ ১২:৩২:০০ পিএম
মেঘ ছুঁয়ে যায়...

মেঘ ছুঁয়ে যায়...

কোথাও হয়তো পাহাড়ের সীমানা পেড়িয়ে মাটিতে আছড়ে পড়া ঝরনা, তার নেচে চলা গর্জন। কোথাও শীর্ণকায় খাড়াই পথ আবার কোথাও মাইলের পর মাইল সবুজ উপত্যকা। হিমালয়ের মাথায় সর্পিল আকারের পথে চলন্ত গাড়ি থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা’র অতুলনীয় মোহনীয় দৃশ্য! আগস্ট মাসের প্রচণ্ড গরমেও পুরো দার্জিলিং যেন শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বিশাল কম্পার্টমেন্ট!
২০১৪-১১-১৮ ৫:১৪:০০ পিএম
মধুর কষ্টের স্মৃতির আঙিনা

মধুর কষ্টের স্মৃতির আঙিনা

পূর্ব প্রস্তুতি নেই। ৪ অক্টোবর হঠাৎ করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো পার্বত্য জেো বান্দরবানে যাবে। দিন ঠিক হলো ঈদুল আজহার পরদিন।
২০১৪-১১-২২ ১২:৪৫:০০ এএম
মধুর কষ্টের স্মৃতির আঙিনা

মধুর কষ্টের স্মৃতির আঙিনা

পূর্ব প্রস্তুতি নেই। ৪ অক্টোবর হঠাৎ করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো পার্বত্য জেো বান্দরবানে যাবে। দিন ঠিক হলো ঈদুল আজহার পরদিন।
২০১৪-১১-২২ ১২:৩১:০০ এএম
উড়ন্ত প্লেনে মুখোরোচক খাবার...

উড়ন্ত প্লেনে মুখোরোচক খাবার...

প্লেন ভ্রমণে মেঘে ভেসে চলা উড়োজাহাজের যাত্রীদের বিভিন্ন ধরনের খাবার পরিবেশন করে বিমান সংস্থাগুলো। এগুলোর বেশির ভাগই হয় যাত্রীদের চাহিদার নিরিখে। বিশেষ করে দূরপাল্লার প্লেন ভ্রমণ হলে তো কথাই নেই। এরপরও প্রায় ৩০ হাজার ফুট উপরে আকাশ ‘সড়কে’ চলা যাত্রীদের পরিবেশিত খাবার নিয়ে...
২০১৪-১১-১২ ৩:২৮:০০ পিএম
লোভায় মনলোভা প্রকৃতি

লোভায় মনলোভা প্রকৃতি

ঝরা পাতার দিন আসার আগেই ছুটছিলাম লোভার লোভে। যেতে যেতে প্রকৃতির সব অমায়িক ফ্রেম আমাদের ব্যাকুল করে তুলছিলো। সিলেটের কানাইঘাট থেকে নৌকায় কিছুদূর যাবার পরই পেছনের পাহাড় সারি স্বাগত জানায় তার মনলোভা সৌন্দর্য দেখিয়ে। কড়া রোদ পেরিয়ে চিক চিক করা সুরমা নদীর জল মাড়িয়ে আমরা তখন পথ ধরেছিলোভার।
২০১৪-১১-০৯ ৪:২৩:০০ পিএম
আরব সাগর তীরের পানাজি

আরব সাগর তীরের পানাজি

গোয়ার রাজধানী পানাজি একাধারে আধুনিক ও ঐতিহাসিক শহর। গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক কেন্দ্রও। উরেম ক্রিক এবং আলটিনো হিলের মধ্যবর্তী ফন্টেনাস অঞ্চলে এখনো পর্তুগিজ আমলের বাড়িঘর, রাস্তা দেখা যায়।
২০১৪-১১-০৭ ১:১৪:০০ পিএম
ভ্রমণপিপাসুদের কাছে টানে তুলাতলীর সৌন্দর্য

ভ্রমণপিপাসুদের কাছে টানে তুলাতলীর সৌন্দর্য

চারদিকে জলরাশি, সবুজ গাছপালা আর বাঁধে বিছানো সিসি ব্লক, নির্মল বাতাস আর মেঘনার উত্তাল ঢেউ। নেই শহরের যানজট-কোলাহল। প্রকৃতির এ অপরূপ সৌন্দর্য ভোলা সদরের তুলাতলী বাঁধ এলাকার।
২০১৪-১১-০৭ ৭:৪৮:০০ এএম
ভোর পাঁচটায় স্কুল শুরু

নেপালের ডায়েরি-৩

ভোর পাঁচটায় স্কুল শুরু

শিরোনাম দেখেই ঘাবড়াবেন না। এ ব্যবস্থা বাংলাদেশে নয়। সূর্য ওঠার আগেই স্কুলে পৌঁছানোর এই নিয়ম হিমালয়কন্যা নেপালে। যেন ‘সকাল সকাল ঘুম আর সকাল সকাল ওঠা’র প্রবাদটি এদের জন্যই তৈরি। এই প্রবাদের ব্যবহার দেখলাম নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডু থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরের শহর পোখারায় এসে।
২০১৪-১১-০৫ ৯:৫৫:০০ এএম
দেখে এলাম সবুজে ঘেরা নীল সাগর

দেখে এলাম সবুজে ঘেরা নীল সাগর

স্বর্গ ও মর্তে্যর মধ্যে মৌলিক পার্থক্য এই যে, স্বর্গে সব চাওয়া মুহূর্তের মধ্যে পূরণ হয়ে যায়, আর মর্তে্যর বেশিরভাগ চাওয়া থাকে অপূর্ণ। কিন্তু ইদানিং দেখছি, আমার বেশিরভাগ চাওয়াই পূরণ হয়ে যাচ্ছে।
২০১৪-১১-০৫ ৫:৪৩:০০ এএম
বুক কাঁপানো রাস্তায় যাত্রীদের বাস ধাক্কা

নেপালের ডায়েরি-২

বুক কাঁপানো রাস্তায় যাত্রীদের বাস ধাক্কা

প্রথম পর্বের লেখাটি শেষ করেছিলাম ‘যন্ত্রণাদায়ক’ বাস ভ্রমণের কথা বর্ণনা করবো বলে! শুরু করছি সেখানে থেকেই। কাঁকড়ভিটা থেকে ঠিক পাঁচটায় বাস ছাড়লো কাঠমাণ্ডর উদ্দেশে। খোঁজ নিয়ে জানলাম প্রায় ছয়শ’ কিলোমিটারের রাস্তা। প্রথম চারশ’ কিলোমিটার তরাই বা সমতল অঞ্চলের। বাকিটা পাহাড়ি আঁকাবাকা পথ। সে পথে বেশ ধীরে চলবে বাস।
২০১৪-১১-০৪ ৩:১৪:০০ পিএম