[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৭ নভেম্বর ২০১৭

bangla news

তামিমেই বাড়তি শক্তি দেখছেন ইমরুল   

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১১-১৫ ১২:৫৬:১০ এএম
ইমরুল কায়েস

ইমরুল কায়েস

ঢাকা: ইনজুরি কাটিয়ে চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) কুমিল্লার হয়ে বিপিএলের চলতি আসর শুরু করেছের টাইগারদের ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। কিন্তু  এদিন ছিলেন নিজেন ছায়া হয়েই। কেননা ইনিংসের তৃতীয় ওভারে দিলশান মুনাবেরার বলে ব্যক্তিগত ৪ রানে ক্যাচ তুলে দিয়েছেন শুভাশীষ রায়ের হাতে।

তাই একথাই বলাই যায় যে বিপিএলের শুরুটা তার ভাল হয়নি। কিন্তু তাতে কিছুই মনে করেনি তার দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। এমনকি তার সতীর্থেরাও।  বরং রান না করেও তামিম মাঠে থাকা মানেই যেন দলটির কাছে বাড়তি এক শক্তি।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসে একথা বললেন তামিম সতীর্থ ইমরুল কায়েস। তিনি বলেন, তামিম দলে থাকা মানে কুমিল্লার জন্য ইতিবাচক দিক। ও রান করে না করে কিন্তু ও মাঠে থাকলেই সবাই ওর ওপরে ভরসা রাখে। আজ রান করে নাই সামনে আরও ম্যাচ আছে। আশা করি ভালোভাবেই ফিরবে।

এদিন চিটাগংয়ের বিপক্ষে ৩৫ বলে ৪৫ রানের দায়িত্বশীল এক ইনিংস খেলে সানজামুলের বলে তানবীর হায়দারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরেছেন ইমরুল কায়েস। আর ৫টি রান হলেই তুলে নিতে পারতেন এবারের বিপিএলে নিজের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো ইমরুল ওভাবে ভাবেনইনি।

‘আসলে খেলার সময় চিন্তা করি নাই যে ফিফটি করব। আগে চিন্তা করেছি দলের জন্য। আমি অনেকগুলো সিঙ্গেলস নিতে পারছিলাম না যেটা দলের জন্য ঠিক হচ্ছিল না।আমি চেষ্টা করলে হয়তো এক এক করে ৫০করতে পারতাম। এটা দলের জন্য ভালোহতো না। আরও সামনে  খেলা আছে। এভাবে খেলতে পারলে আশাকরি ৫০ এমনি আসবে।’

চিটাগংয়ের বিপক্ষে ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়ে মাঠে কিছুক্ষণ শুয়ে ছিলেন ইমরুল। পরে উঠে দাঁড়ালেও তাকে পা টেনে হাঁটতে দেখা গেছে। সঙ্গত কারণেই সংবাদ সম্মেলনে তার কাছে চোটের সবশেষ অবস্থা জানতে চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু স্ক্যান না করে এখানই কোনো মন্তব্য করলেন না এই ভিক্টোরিয়ানস ওপেনার। 

‘কাল স্ক্যা্ন করব। তার আগে বলতে পারছি না। আগামী তিনদিন বিরতি আছে। যদি বিশ্রাম নিতে পারি ম্যাচের আগে আশা করি ঠিক হয়ে যাবে।'

সংবাদ সম্মেলনের সব শেষে ঘটলো এক মজার ঘটনা। সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেছিলেন হেড কোচ হাথুরুর বিদায়ে আপনার প্রতিক্রিয়া কী? উত্তরে হাসতে হাসতে করে ইমরুল বললেন, ‘আমি কোচকে একটি জিনিস আনার অর্ডার দিয়েছিলাম।  আমি  একারণে হতাশ আমার জিনিসটা আসবে কী না। ক্রিকেটের একটা জিনিস আনার অর্ডার দিয়েছিলাম। উনি না আসলে মিস হয়ে যাবে।’

পরে খোঁজ নিয়ে গেল ইমরুল হাথুরুকে একটি থাইপ্যাড আনতে বলেছিলেন।
   
বাংলাদেশ সময়: ০০৫২ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৫, ২০১৭
এইচএল/বিএস   
  
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Loading...
Alexa