[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭

bangla news

আস্থার প্রতিদান দিতে চান ইমরুল

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৯-১৩ ৮:৪৫:২১ পিএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম (ফাইল ফটো)

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম (ফাইল ফটো)

২০০৮ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট অভিষেক ইমরুল কায়েসের। আবারো যাচ্ছেন সেখানে। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে নিজেকে ফিরে পেতে মরিয়া টাইগারদের এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। কিন্তু, তার আগে ক্যারিয়ার বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ এই বাঁহাতির সামনে।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজে দুই টেস্টে চার ইনিংসে ইমরুলের রান ২১। ঢাকা ও চট্টগ্রাম টেস্টে তার ইনিংসগুলো ছিল এরকম ০, ২, ৪, ১৫। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এমন পারফরম্যান্সের পরও বাংলাদেশের আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের টেস্ট দলে টিকে গেছেন ইমরুল। ক্যারিয়ারে বাজে সময়ে থাকলে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ইমরুলের ওপর আস্থা রেখেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। বিশেষ করে কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে।

৯ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে অনেকবারই ব্যর্থ হওয়া ইমরুল ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। এবারও আত্মবিশ্বাসী। বরাবরের মতো এবারও ভালো খেলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। ইমরুল জানান, ‘কোচ বলেছেন, কোনো অসুবিধা নেই। একটা ব্যাটসম্যান চার ইনিংস খারাপ করলেই তাকে বাদ দিতে পারি না। তিনি আরও বলেছেন, ব্যাটসম্যান হিসেবে যে জিনিসটা দরকার সেই জিনিসটা তোমার মধ্যে আছে। তুমি মনে সাহস রেখো।’

ইমরুল আরও জানান, ‘প্রত্যেকটা সিরিজেই তো ব্যাটসম্যানের ব্যক্তিগত লক্ষ্য থাকে ভালো পারফর্ম করা, রান করা। নিজে রান করলে, দল ভালো অবস্থায় থাকে। শেষ সিরিজে ভালো করতে পারি নাই, এটা অবশ্যই খারাপ লাগে। নিউজিল্যান্ডে চোটে পড়ার পর শ্রীলঙ্কায় গিয়ে পুরোপুরি সেরে উঠতে পারিনি। যেভাবে ছন্দে ছিলাম, চোটে না পড়লে পারফরম্যান্সটা আরও ভালো হতো। তারপরও চেষ্টা করি প্রতিটি সিরিজে রান করার। কখনো সফল হই, কখনো হই না। যে কদিন খেলব চেষ্টা করব প্রতিটিতেই ভালো করার। এবার আমার জন্য সিরিজটা অনেক চ্যালেঞ্জিং হবে। সর্বশেষ সিরিজটা যেহেতু ভালো খেলিনি। শুধু দক্ষিণ আফ্রিকা নয়, প্রতিটি সিরিজই আমার জন্য চ্যালেঞ্জিং হয়। মানিয়ে নিয়ে চেষ্টা করব ভালো খেলার। ওভাবেই কাজ করে যাচ্ছি।’

ওপেনিং হিসেবে দীর্ঘ সময় খেলা ইমরুলকে এখন ব্যাট হাতে তিন নম্বরে দেখা যায়। এ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি জানান, ‘দেখুন, একসময় ওপেন করেছি, সফলতাও পেয়েছি। এখন ওয়ান ডাউনে খেলছি, ওয়ান ডাউনেও সেঞ্চুরি করেছি। এমন না যে ওয়ান ডাউনে খেলতে পারি না। হয়তো বা আমার গড় ওয়ান ডাউনে কম। তবে আমি উন্নতির চেষ্টা করছি। যাতে দিন দিন আরও ভালো কিছু করতে পারি। যেখানে সুযোগ দেয়া হবে সেখানেই ভালো করতে হবে। একজন খেলোয়াড় হিসেবে এ ধরনের অজুহাত না দেয়াই ভালো।’

আসন্ন সফর নিয়ে ইমরুল জানান, ‘ওখানে বাউন্সি ট্র্যাক সবাই জানে। ব্যাক আপ লেন্থে বল বেশি করবে সবাই। আমাদের ছুটির যে সময়টা ছিল, আমরা ইনডোরে এসে অনুশীলন করলাম। ওখানে গিয়ে তিনদিন অনুশীলন করতে পারব। অনুশীলন ম্যাচও আছে। ওভাবেই মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করব ম্যাচের আগে।’

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৫ ঘণ্টা, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭
এমআরপি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Loading...
Alexa