Alexa
ঢাকা, বুধবার, ১ ভাদ্র ১৪২৪, ১৬ আগস্ট ২০১৭

bangla news

অনেক হিসাবের চালে বার্সায় ডি মারিয়া!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৮-১২ ৩:২২:৫৯ পিএম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পিএসজির কাছে ব্রাজিলিয়ান আইকন নেইমারকে বিক্রির ২২২ মিলিয়ন ইউরো কাজে লাগিয়ে সেরা কাউকেই ন্যু ক্যাম্পে আনতে মরিয়া স্প্যানিশ জায়ান্টরা। গুঞ্জন উঠেছে, সেরাদের ভাগিয়ে আনার তালিকায় শীর্ষে পিএসজির আর্জেন্টাইন তারকা অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া।

এর আগে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড উদীয়মান ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ড ওসমান ডেম্বেলেকে বার্সার কাছে ছাড়েনি। লিভারপুল তারকা ফিলিপ্পে কুতিনহোকে আনতে ব্যর্থ চেষ্টা চালাচ্ছে বার্সা। হট লিস্টে আছে জুভেন্টাসের পাওলো দিবালা, মোনাকোর কাইলিয়ান এমবাপ্পে, চেলসির ইডেন হ্যাজার্ড, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের অ্যান্তোনি গ্রিজম্যান। তবে, বার্সার আইকন মেসির জাতীয় দল সতীর্থ ডি মারিয়াকে নিয়ে আলোচনা উঠা স্বাভাবিক বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

জানা যায়, স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ব্রিটিশ রেকর্ড ৮ কোটি ৪০ লাখ ইউরো দিয়ে ডি মারিয়াকে নিয়েছিল ইংলিশ প্রিমিয়ারের দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এক মৌসুম পরই ডি মারিয়ার জন্য পিএসজিকে সাত কোটি ইউরো খরচ করতে হয়েছিল। ইউনাইটেডের মতো পিএসজির বাঁধন থেকেও নিজেকে মুক্ত করে নিতে চলেছেন ডি মারিয়া। ফুটবলের ট্রান্সফার ফি নিয়ে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য ফাঁস হয়ে যাচ্ছে। ডি মারিয়ার রিয়াল থেকে ইউনাইটেডে যোগ দেয়ার পুরো চুক্তিপত্রটি ছিল চাঞ্চল্যকর সব তথ্যে ভরপুর। ২০১৪ সালে রিয়াল থেকে ব্রিটিশ ট্রান্সফার ফি’র নতুন রেকর্ড গড়ে ডি মারিয়াকে নেওয়ার সময় ঐ চুক্তিতে রিয়াল জুড়ে দিয়েছিল কিছু শর্ত! সেই চুক্তিতে ভবিষ্যতে কোনোভাবেই যেন ডি মারিয়া বার্সা শিবিরে যোগ দিতে না পারেন সে ব্যবস্থাই করে রেখেছিল রিয়াল। কারণ সেবারও ডি মারিয়াকে নিয়ে আগ্রহ দেখিয়েছিল কাতালানরা।

চুক্তির শর্ত অনুযায়ী, ২০১৫ সালের গ্রীষ্মের দলবদলের আগেই ডি মারিয়াকে লা লিগার অন্য কোনো দলের কাছে বিক্রি করলে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৫ কোটি ইউরো দিতে হতো রিয়ালকে। ২০১৬ ও ২০১৭ মৌসুমে বার্সার কাছে ডি মারিয়াকে বদলি করলে যথাক্রমে ৪ কোটি ও ৩ কোটি ইউরো ক্ষতিপূরণ দিতে হতো। এরপরও যাতে ডি মারিয়া বার্সায় যেতে না পারেন সে ব্যবস্থাও করা ছিল ঐ চুক্তিতে। ২০১৭ সালের পরও যেকোনো মৌসুমে ডি মারিয়া ইউনাইটেড থেকে বার্সায় যোগ দিলে অর্থদণ্ড গুণতে হতো ৩ কোটি ইউরো করেই। কিন্তু, ওল্ড ট্রাফোর্ডে এক মৌসুম কাটিয়ে ডি মারিয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে পিএসজিতে যোগ দেয়ায় অবশ্য এসব উটকো ঝামেলা থেকে রেহাই পেয়েছে ইউনাইটেড। শুধু ডি মারিয়াই নন, ২০১৩ সালে মেসুত ওজিলকে আর্সেনালে পাঠানোর সময়ও প্রায় একই রকম ‘বার্সা বিরোধী’ শর্ত জুড়ে দিয়েছিল রিয়াল।

তখনকার সময়ে পুরোপুরি ‘স্বত্ব’ ত্যাগ না করা রিয়ালকে এবার হয়তো বুড়ো আঙ্গুল দেখাতে যাচ্ছেন ডি মারিয়া। ইউনাইটেড আর পিএসজির কোচদের সঙ্গে একাধিকবার তার দ্বন্দ্বের কথা জানাই আছে। তাহলে কি ইচ্ছে করেই ক্লাব কোচদের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়াতেন আর্জেন্টাইন এই তারকা? শুধুমাত্র বার্সায় খেলার জন্যই কি ডি মারিয়া ক্লাব দুটিকে ব্যবহার করেছেন? এসব কিছুর উত্তর মিলবে যদি ডি মারিয়া এই মৌসুমে বার্সায় যোগ দেন। আর গুঞ্জন উঠেছে অস্থিরতায় দিন কাটানো ডি মারিয়া স্বদেশী মেসির ইচ্ছেতেই বার্সাতে আসছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২১ ঘণ্টা, ১২ আগস্ট ২০১৭
এমআরপি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

You May Like..
Alexa