Alexa
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ২৫ মে ২০১৭
bangla news

‘আমার জীবন ধন্য, শান্তিতে মরতে পারবো’

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৪-২১ ৬:৩৬:২৩ পিএম
ছবি-মুশফিকের ফেসবুক থেকে নেওয়া

ছবি-মুশফিকের ফেসবুক থেকে নেওয়া

নিজের বাসার পাশেই দারোয়ানের চাকরি করা এক ব্যক্তিকে নিজ বাড়িতে ডেকেছিলেন টাইগারদের ব্যাটিং স্তম্ভ মুশফিকুর রহিম। আর প্রিয় তারকাকে কাছে পেয়ে মুখের ভাষা হারিয়ে ফেলেছিলেন সেই ভক্ত।

প্রিয় তারকার দেখা পেয়ে সেই ব্যক্তি নিজের জীবনকে ধন্য বলে জানিয়েছেন। টাইগারদের টেস্ট দলপতি নিজের ফেসবুক পেজে সেই ব্যক্তির সঙ্গে তোলা একটি ছবিও পোস্ট করেছেন।

দীর্ঘ একটি স্ট্যাটাসে মুশফিক জানান, তার বাড়ির পাশে গত ৪/৫ বছর ধরে দারোয়ানের চাকরি করছেন এক ব্যক্তি। কিন্তু, প্রিয় তারকার বাড়ি যে এতো কাছেই তা কখনো বুঝতে পারেননি।

মুশফিক আরও জানান, ‘আমার চাচার কাছে আমার বাসার ঠিকানা জানার পর হঠাৎ একদিন চাচার কাছে তিনি আবদার করে বসলেন প্রিয় তারকার সঙ্গে একবারের জন্য হলেও দেখা করতে চান। চাচার মুখে এমন ভক্তের আবদার শুনে তাকে বাসায় নিমন্ত্রণ করেছিলাম। গত রাতে তিনি আমার বাসায় এসেছিলেন। তার মুখেই শুনলাম তিনি আমার বাসার পাশেই ৪-৫ বছর ধরে দারোয়ানের চাকরি করেন।

মুশফিক যোগ করেন, আমি তার সঙ্গে অনেক কথাই বলতে থাকি, কিন্তু তিনি একটি কথাও ঠিকভাবে বলতে পারছিলেন না। এক পর্যায়ে চাচা তাকে আমার সঙ্গে ছবি তুলতে অনুরোধ করেন। কিন্তু কিছুতেই তিনি রাজি হচ্ছিলেন না। এ সময় তিনি বলে উঠেন, ‘স্যার, আমার জীবন ধন্য। মুশফিককে দেখে আমি শান্তিতে মরতে পারবো।’ এরপরই আমি নিজের মোবাইলে তার সঙ্গে ছবি তুলি। পরে সেই ছবি তাকেও দিয়েছি।

ভক্তদের এমন ভালোবাসা থেকেই ভালো খেলার অনুপ্রেরণা পান বলে জানান মুশফিক, ‘লাখ লাখ মানুষ তার মতোই ক্রিকেটারদের ভালোবাসে। আমরা ক্রিকেটাররা তাদের দোয়ায় ভালো পারফর্মের চেষ্টা করি। আলহামদুল্লিল্লাহ প্রথমত আমি সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ জানাই দেশের প্রতিনিধি হয়ে খেলতে সুযোগ করে দিয়েছেন বলে, এমন সম্মান অর্জনের সুযোগ দিচ্ছেন বলে। সেইসব মানুষকে অন্তর থেকে সম্মান জানাই, যারা অল্প রোজগার করেন কিন্তু একটি ম্যাচও মিস করেন না, আমরা ভালো-মন্দ যাই করি না কেন আমাদের ভুলে যান না।’

মুশফিক ইংরেজিতে লেখা তার দীর্ঘ স্ট্যাটাসটি শেষ করেন এভাবে, ‘এই মানুষরাই আমার অনুপ্রেরণা। ইনশাল্লাহ আমরা আরও ভালো খেলতে চেষ্টা করব। যাতে এই মানুষগুলো এভাবে হেসে যেতে পারেন...’

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩২ ঘণ্টা, ২১ এপ্রিল ২০১৭
এমআরপি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

খেলা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

You May Like..