[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৬ মে ২০১৮

bangla news

এশিয়া কাপ নিয়ে শঙ্কা দেখছে না বাহফে

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৩-২০ ৭:৪৭:২৬ পিএম
এশিয়া কাপ নিয়ে শঙ্কা দেখছে না বাহফে

এশিয়া কাপ নিয়ে শঙ্কা দেখছে না বাহফে

সেই ১৯৮৫ সালে প্রথমবার এশিয়া কাপ হকি টুর্নামেন্ট আয়োজন করেছিল বাংলাদেশ। এরপর কেটে গেছে ৩২ বছর। আবার সেই সুযোগ এসেছে। কিছু বিপত্তি থাকলেও কোনো শঙ্কা দেখছে না বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন (বাহফে)।

বাহফের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাদেক বাংলানিউজকে জানান, অনেক বছর পর এই সুযোগ পেয়েছি। তাই ভালোভাবে আয়োজন করতে চাই।

এশিয়া কাপের এই মেগা টুর্নামেন্ট চলমান বছরের সেপ্টেম্বরে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে অক্টোবরে নেয়া হয়েছে। তারপর এ আয়োজন নভেম্বরে পেছানোর আবেদন করে আবারও চিঠি পাঠায় ফেডারেশন। এবার নাকচ করে দেয় এশিয়ান হকি ফেডারেশন (এএইচএফ)। অক্টোবরের মধ্যে করতে হবে বলে নির্দেশনা দিয়ে দেয়।

এশিয়া হকির এখনও ছয় মাস হাতে আছে, তারপরেও পেছাতে চাওয়ার কারণ কি এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, প্রথম কারণ হচ্ছে আবহাওয়া। নভেম্বরে আবহাওয়া ভালো থাকে। দ্বিতীয়ত ফ্লাডলাইটের কাজ ভালোভাবে সম্পন্ন করার সময় পেতাম। তৃতীয়ত, এই সেপ্টেম্বরের দিকে আমাদের কিছু খেলোয়াড় ইউরোপে খেলতে যাবে। তারা আসার পর কয়েকটা প্রস্তুতি ম্যাচও খেলার সুযোগ পাবে না। তাই পেছানোর কথা বলেছিলাম। প্রথমবার পিছিয়ে দিলেও পরে তা আর পেছানো হয়নি।

তিন দশক পর এত বড় টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তবে এখনও ফ্লাডলাইট ও অবকাঠামোর সংস্কার কাজ শুরু হয়নি। আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় মন্ত্রণালয়ে আটকে আছে এর টেন্ডার কাজ। আব্দুস সাদেক জানান, ‘পরিকল্পনা মন্ত্রীর (আ হ ম মুস্তফা কামাল) সঙ্গে একটু আগেও কথা হয়েছে। তিনি পাস করলেই দ্রুত কাজ শুরু করবো। ফেডারেশনের সভাপতির (বিমান বাহিনীর প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল আবু এসরার) সঙ্গেও এ বিষয়ে কথা হয়েছে। কোনও শঙ্কা নেই। কাজ শুরু করে দেব।’

এশিয়া কাপ আয়োজন নিয়েই যেন সকল চিন্তা বাহফের। বিশ্ব হকি লিগ আয়োজনের আটদিন অতিবাহিত হওয়ার পর খেলোয়াড়দের প্রস্তুত করবার বিষয়ে তিনি জানান, ‘মাত্র ক’টা দিন গেল। আবারও তাদের নিয়ে আসা হবে শিগগিরই। প্রস্তুতি নেয়া হবে।’

৮ম এশিয়া কাপ আয়োজন করছে বাহফে। এশিয়ার সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতায় ঘরের মাঠেই লড়ার সুযোগ পাচ্ছেন জিমি-চয়নরা। এশিয়া কাপের অন্য ৭ দেশ হলো- দক্ষিণ কোরিয়া, ভারত, পাকিস্তান, মালয়েশিয়া, জাপান, চীন ও ওমান।

এর আগে এশিয়া কাপ হকির যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৮২ সালে পাকিস্তানের করাচি থেকে। দ্বিতীয় আসর বসেছিল ঢাকায় ১৯৮৫ সালে। সর্বশেষ ৭ বারের ৪ বারই হয়েছে মালয়েশিয়ায়। দু’বার হয়েছে ভারতে (নয়াদিল্লি ও চেন্নাই) এবং একবার জাপানের হিরোশিমায়। আগের নয় আসরের পাঁচটিতে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ। মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত গত আসরে আট দলের মধ্যে অষ্টম হয় জিমি-চয়নরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৫ ঘণ্টা, ২০ মার্চ ২০১৭
জেএইচ/এমআরপি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa