[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ আষাঢ় ১৪২৫, ১৯ জুন ২০১৮

bangla news

সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে প্রয়োজন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নয়ন

জাহিদুর রহমান, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০১-২৪ ৫:৩৪:৪৭ এএম
স্বপন হযরত আলী, ছবি: বাংলানিউজ

স্বপন হযরত আলী, ছবি: বাংলানিউজ

পোর্ট সাইদ (মিশর) থেকে: প্রাচীন সপ্তাশ্চর্যের দেশ মিশরে ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য এসে অকালে মারা গেলেন এক প্রবাসী। মরদেহ দেশে পাঠাতে প্রয়োজন অর্থের। কিন্তু সেই ব্যয় বহনের কেউ নেই। দেশে শোকে কাতর স্বজনরা। প্রায় মাস খানেক এভাবে হিমঘরে পড়ে থাকলো হতভাগ্য ওই শ্রমিকের মরদেহ।

খবরটি কানে আসতেই মানবতার কল্যাণে ঝাঁপিয়ে পড়লেন স্বপন হযরত আলী (৪৫)। অন্য প্রবাসীদের সহায়তায় সব ব্যবস্থাপনা সম্পন্ন করে অবশেষে হতভাগ্য শ্রমিকের মরদেহ দেশে পাঠালেন তিনি।

এভাবে কাউকে থানা থেকে ছাড়িয়ে আনার মতো বা প্রবাস জীবনে নানা সংকটে হাত বাড়ালেই পাশে পাওয়া যায় তাকে। স্বপন হযরত আলী চাঁদপুরের মতলব থানার তালতলি গ্রামের হযরত আলীর ছেলে। চার ভাই এক বোনের মধ্যে সবার বড় স্বপন আজ বাংলাদেশ কমিউনিটি ইজিপ্টের (মিশর) সভাপতি।

দেশে ছিলেন তৈরি পোশাক শ্রমিক। ভাগ্য পরিবর্তনে বিদেশে পাড়ি দিয়েছিলেন ১৯৯৫ সালের শেষ দিকে। বেতন ছিলো মাত্র ১০৫ ডলার। এখনকার বাংলাদেশি মুদ্রায় মাত্র আট হাজার টাকা। শুরুতেই হোঁচট। দু’ মাসের বেতন না দিয়েই লেবানন পালিয়ে যান কারখানাটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক। অচেনা-অজানা দেশে পড়েন মারাত্মক সংকটে। তখনই সিদ্ধান্ত নেন, প্রয়োজনে মরুর মাটি কামড়ে যেভাবেই হোক ঘুরে দাঁড়াবেন। শুরু হলো ভিন্ন এক জীবনের সংগ্রাম। যোগ দিলেন আরেকটি তৈরি পোশাক কারখানায়। রাজধানী কায়রো ছেড়ে চলে আসেন মিশরের উত্তরাঞ্চলে ভূমধ্যসাগরের বন্দর এলাকা পোর্ট সাইদে।

নিজের দক্ষতা আর নেতৃত্ব ঘুরে দাঁড়াতে সময় লাগেনি। আজ এ অঞ্চলের একটি পোশাক কারখানার ব্যবস্থাপক স্বপন হযরত আলী । ১৫'শ শ্রমিক কর্মচারীর মধ্যে বাংলাদেশেরই ৪০ জন কাজ করেন তার কারখানায়। তাদের সুখ-দুঃখ। ভালো মন্দ সব কিছুই দেখেন তিনি। এর বাইরে প্রবাসীদের যে কোনো প্রয়োজনেই সবার আগে সামনে এসে দাঁড়ান স্বপন।

২০১২ সালে জীবনে মারাত্মক বিপর্যয়ে পড়েন তিনি। স্থানীয় দুর্বৃত্তরা অপহরণ করে তাকে। মুক্তিপণের দাবিতে দীর্ঘদিন বন্দি জীবনে দুর্বিষহ যন্ত্রণা ভোগের পর মোটা অঙ্কের মুক্তিপণের বিনিময়ে নতুন জীবন তিনি।

‘এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ দূতাবাসের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। তাদের বিরামহীন প্রয়াসেই আমার মুক্তি তরান্বিত হয়েছে। অপহারণকারী চক্রের দু'জন পুলিশের এনকাউন্টারে নিহত হয়েছে। অন্যরা বিচার শেষে যাবজ্জীবন সাজা ভোগ করছে’- বলেন হযরত আলী স্বপন।

তিনি জানান, মিশর বাংলাদেশিদের জন্য অনেক সম্ভাবনার। এ দেশ থেকে বিনিয়োগ নেওয়া বা করার অনেক আকর্ষণীয় খাত আছে। তবে সে সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে দু’দেশের শীর্ষ নেতাদের পারস্পারিক সম্পর্ক বাড়াতে হবে।

দ্বি-পাক্ষিক সস্পর্ক আরও উন্নত হলে মিশরে আরো একলাখ প্রবাসীর কর্মসংস্থান সম্ভব বলে মনে করেন বাংলাদেশ কমিউনিটি ইজিপ্টের (মিশর) এই সভাপতি।

আরও পড়ুন...

*** গার্মেন্টস শ্রমিক জাকির এখন চারটি কারখানার মালিক

**গার্মেন্টস শ্রমিক সুলতান আজ অনারারি কনসাল জেনারেল

** মিশরের ধূসর মরুভূমিতে প্রবাসীদের চিকিৎসায় শাফায়েত উল্লাহরা
** ঢাকা-কায়রো সম্পর্ক এখন অনন্য উচ্চতায়
** কায়রোয় ৫ মাস ধরে রাষ্ট্রদূতের চেয়ার শূন্য
** আমির হোসেনের নির্বাসনের জীবনই যেন ফুরোয় না!

** ‘ইজ্জত’ রক্ষায় ঢাকায় মাহমুদ ইজ্জাত

বাংলাদেশ সময়: ০৫৩২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০১৭
এমএইচকে/টিআই

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

প্রবাসে বাংলাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa