[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৫ ফাল্গুন ১৪২৪, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

bangla news

আজ তিনি কোথায়?

বাংলানিউজ টিম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০২-০৮ ৭:০১:৪৪ পিএম
বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি

বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি

বরিশাল থেকে: দুর্নীতি মামলায় সাজা পেয়ে কারাগারে যাওয়া বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশ্ন করেছেন, ‘আজকে তিনি কোথায়?’

খালেদা জিয়া সরকার উৎখাত ও নির্বাচন ঠেকানোর আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছেন এবং ক্ষমতায় থাকাকালে দুর্নীতি ও মানুষের ওপর অত্যাচার করেছেন মন্তব্য করে এ প্রশ্ন তোলেন শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বরিশাল বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন,  ‘২০০১ সালে খালেদা জিয়া দেশের সম্পদ গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিলো। বিএনপি ক্ষমতায় এসেছিলো লুটপাট করতে, মানুষের ওপর অত্যাচার নির্যাতন করতে।’

তিনি বলেন, ‘তাদের কাজ ছিলো মানুষের ওপর অত্যাচার করা, আর দুর্নীতি করা। মানিলন্ডারিং করে বিদেশে টাকা পাচার করেছে।’

‘ক্ষমতায় থাকতে জনগণের সম্পদ লুটপাট করেছে। লুটপাট, দুর্নীতি, হত্যা, ষড়যন্ত্র, এছাড়া তারা কিছুই জানে না।’

বিগত সময়ে বিএনপির নির্বাচন ঠেকানো এবং সরকারবিরোধী আন্দোলনের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনাদের মনে আছে, ২০১৪ সালে বিএনপি নির্বাচন ঠেকানোর নামে কিভাবে মানুষের ওপর অত্যাচার করেছে। পেট্রোল বোমা মেরে, মানুষকে হত্যা করেছে আগুনে পুড়িয়ে পুড়িয়ে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘২০১৫ সালে, ওই খালেদা জিয়া তার অফিসে বসে বললো আওয়ামী লীগ সরকারকে উৎখাত না করে সে ঘরে ফিরবে না।’জনসভায় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ঢল। ছবি: পিআইডি‘আগুন দিয়ে প্রায় সাড়ে তিন হাজার গাড়ি পোড়ালো, ৫০০ এর কাছাকাছি মানুষ ২০১৩, ১৪, ১৫ সালে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। ৩ হাজারের বেশি মানুষকে আগুনে পুড়িয়ে আহত করেছে। আর করেছে লুটপাট-দুর্নীতি। আজকে তিনি কোথায়? কাজেই মানুষের ওপর অত্যাচার করলে ওই আল্লাহর আরশও কেঁপে যায়।’

খালেদা জিয়ার রায় প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, ‘কোর্ট রায় দিয়েছে- আমাদের কোনো কিছু করার নাই। অপরাধ করলে যে শাস্তি পায় সেটা আজ প্রমাণিত হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এতিমের টাকা পর্যন্ত চুরি করেছে। এতিমখানার জন্য টাকা এসেছে, সে টাকা এতিমের কাছে চলে যাবে, এ টাকা কেন থাকবে? আজকে ধরা পড়েছে ওই এতিমের ‍টাকা মেরে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এতিমের টাকা মেরে খেলে তার শাস্তি আল্লাহ রাব্বুল আলামিনও দেয়। খালেদা জিয়া, তারেক জিয়া- তারাও শাস্তি পেয়েছে। লজ্জা থাকলে জীবনে লুটপাট করবে না। মানুষের অর্থ সম্পদ নেবে না।’

আগামী ‍জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য ভোট চেয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে দেশের উন্নতি হয়। ওই দুর্নীতিবাজ, জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাস সৃষ্টিকারী, এতিমের টাকা যারা লুটে খায়, তারা ক্ষমতায় আসা মানে দেশকে ধ্বংস করা।’

‘যে উন্নয়নের ধারা সূচিত হয়েছে, এই উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে হলে, আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েছেন আমরা উন্নয়ন করেছি। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে আবার নির্বাচন হবে, সে নির্বাচনে আপনাদের আকুল আবেদন থাকবে, নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের জয়যুক্ত করবেন এবং উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখবেন।’

জনতার কাছে নৌকা প্রতীকে ভোটের ওয়াদা চেয়ে তিনি বলেন, ‘আপনারা ওয়াদা করেন, আগামীতে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দেবেন। আপনারা হাত তুলে ওয়াদা করেন, আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন।’

বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর সভাপতিত্বে জনসভায় দলের সাধারণ সম্পাদক ও সেতমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৮
এমইউএম/এমএস/এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa