[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২০ মে ২০১৮

bangla news

৭ নভেম্বরের কারণেই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত: ইরান

পলিটিক্যাল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১১-০৭ ৫:২৯:১১ পিএম
বক্তব্য রাখছেন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান

বক্তব্য রাখছেন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান

ঢাকা: ৭ নভেম্বর বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে টার্নিং পয়েন্ট মন্তব্য করে লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেছেন, শেখ মুজিবুর রহমান একদলীয় বাকশাল গঠন করে গণতন্ত্রের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দিয়েছিলেন। কিন্তু ৭ নভেম্বর ‘সিপাহী জনতার বিপ্লবে’র মাধ্যমে বাকশালের কবর রচনা হয়েছে। বাক ও ব্যক্তি স্বাধীনতা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় জিয়ার অবদান চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) লেবার পার্টির কার্যালয়ে ‘৭ নভেম্বরের চেতনা ও জাতীয় ঐক্য’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ইরান বলেন, ইতিহাসের নায়ক কখনো পালিয়ে যায়নি। চোরাবালির উপর গণতন্ত্রের সৌধ নির্মিত হতে পারে না। যারা জাতীয় কবি নজরুল ইসলামকে তুচ্ছ হাবিলদার বলেছে তারাই জিয়াকে অখ্যাত মেজর বলছে। তারাই আজ জিয়ার যোগ্য উত্তরসুরী খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে নিয়ে রঙিন খেলায় মেতে উঠেছে। তাদের বিরুদ্ধে জাতীয়তাবাদী ও দেশপ্রেমিক শক্তির ঐক্যই একমাত্র জনমুক্তির পথ।

লেবার পার্টি ঢাকা দক্ষিণ সহ-সভাপতি নাসির আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন লেবার পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার ফরিদ উদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান মো. ফারুক রহমান, অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম রাজু, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আবু সাঈদ, ডেমরা থানা সভাপতি ইমরান হোসেন মুন্সী, ছাত্রমিশন কেন্দ্রীয় সভাপতি কামরুল ইসলাম সুরুজ, সাধারণ সম্পাদক সালমান খান বাদশা, যুগ্ম-সম্পাদক সৈয়দ মো. মিলন, কেন্দ্রীয় নেতা মেহেদী হাসান, আবদুল কাউয়ুম প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২১ ঘণ্টা, নভেম্বর ৭, ২০১৭
জেডএম/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa