ঢাকা, শনিবার, ৬ কার্তিক ১৪২৪, ২১ অক্টোবর ২০১৭

bangla news

জামায়াতের ডাকা হরতাল চলছে, থেমে নেই যানবাহন

বাংলানিউজ টিম  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১০-১২ ৬:২২:৪৬ এএম
হরতালে চলছে যানবাহন, ছবিটি মিরপুর এলাকা থেকে তুলেছেন জিএম মুজিবুর

হরতালে চলছে যানবাহন, ছবিটি মিরপুর এলাকা থেকে তুলেছেন জিএম মুজিবুর

ঢাকা: জামায়াতের আমির মকবুল আহমাদসহ কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও রিমান্ডে নেওয়ার প্রতিবাদে দলটির ডাকা হরতাল চলছে। তবে ভোর থেকে তাদের কোনো কর্মসূচি চোখে পড়েনি। 

হরতাল থাকলে ভোর ৬টা থেকে অন্য দিনের মতোই রাজধানীতে যানবাহন চলাচল করছে। ছেড়ে যাচ্ছে দূরপাল্লার বাসও। 

বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে আমাদের রিপোর্টাররা এ তথ্য জানান। 


এদিকে জামায়াতের ডাকা হরতালকে কেন্দ্র করে রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে সকাল থেকে বাড়তি পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে। তবে কোথাও কোনো মিছিল-সমাবেশের খবর জানাতে পারেনি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।
হরতালে সতর্ক অবস্থানে পুলিশ সদস্যরা- ছবিটি রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে তুলেছেন জিএম মুজিবুর রাজধানীর মতিঝিল এলাকা থেকে স্টাফ করেসপন্ডেন্ট প্রশান্ত মিত্র জানান, জামায়াত ইসলামির আমির মকবুল আহমাদসহ কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতাল শুরু হলেও রাজধানীর ব্যাংকপাড়া খ্যাত মতিঝিলে হরতালের কোনো চিত্র চোখে পড়েনি। অন্য দিনের মতোই স্বাভাবিক রয়েছে। 

মানুষের চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সাধারণ নিয়মেই বাড়ছে গণপরিবহনের সংখ্যা। ক্রমেই ব্যস্ত হয়ে উঠছে মতিঝিল এলাকা। দোকানপাটও খুলতে শুরু করছে।

এদিকে, হরতালকে কেন্দ্র করে পুলিশের বাড়তি উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। ভোর ছয়টা থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনের রাস্তায় বাড়তি পুলিশ সদস্যদের অবস্থান করতে দেখা গেছে। এছাড়া, পুলিশের টহল টিমের কয়েকটি গাড়ি মতিঝিল এলাকায় অবস্থান করছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা ওহিদুল বাংলানিউজকে বলেন, হরতালের কোনো কর্মকান্ডই নেই, সবকিছু স্বাভাবিক আছে। তারপরও যে কোনো ধরনের অপতৎপরতা রোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন।

হরতালকে কেন্দ্র করে এভাবেই রাখা হয়েছে পুলিশের রায়টকার- ছবি: জিএম মুজিবুর উত্তরা থেকে বাংলানিউজের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট শেখ জাহাঙ্গীর আলম জানান, এয়ারপোর্ট সড়কে হরতালের কোনো আলামত নেই। হরতালকে উপেক্ষা করে যান চলাচল প্রতিদিনের মতোই স্বাভাবিক রয়েছে।

ঢাকা মোট্রোপলিটন পুলিশের উত্তরা পূর্ব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুল গনি সাবু বাংলানিউজকে জানান, এ এলাকায় হরতালের কোনো প্রভাব নেই। শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিদিনের মতোই সড়কে যান চলাচল করছে।

মিরপুর এলাকা থেকে সিনিয়র ফটো করেসপন্ডেন্ট জিএম মুজিবুর জানান, বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা থেকে জামায়াতের ডাক সকাল-সন্ধ্যা হরতাল শুরু হলেও রাজধানী মিরপুর ১০, ১১, ১২, ১, ১৪ নম্বর সেকশন ও কাজীপাড়া শেওড়াপাড়া এলাকায়  হরতালের কোনো চিত্র দেখা যায়নি। অন্য দিনের মতোই  যানবাহন চলতে দেখা যাচ্ছে। 

হরতালেও থেমে নেই যান চলাচল, ছবিটি রাজধানীর ফার্মগেট-খামারবাড়ি এলাকা থেকে তুলেছেন মনি আচার্য্যস্বাভাবিক রয়েছে মানুষের চলাচলও। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সাধারণ নিয়মেই বাড়ছে গণপরিবহনের সংখ্যা। ক্রমেই ব্যস্ত হয়ে উঠছে মিরপুর এলাকা। দোকানপাটও খুলতে শুরু করছে।

এদিকে, হরতালকে কেন্দ্র করে পুলিশের বাড়তি উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। ভোর ছয়টা থেকে মিরপুর ১০ নং গোলচক্করে  রাস্তায় বাড়তি পুলিশ সদস্যদের অবস্থান করতে দেখা গেছে। এছাড়া, পুলিশের টহল টিমের কয়েকটি গাড়ি ও এপিসি, জলকামান, প্রিজন ভ্যান ১০ নম্বর সেকশনে রাখা হয়েছে। 


রাজধানীর আসাদগেট, খামারবাড়ি, ফার্মগেট ও কাওরানবাজার এলাকা ঘুরে স্টাফ করেসপন্ডেন্ট মনি আচার্য্য জানান, জামায়াতে ইসলামীর ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতালে রাজধানীর জনজীবনে কোনো প্রভাব পড়েনি। 

এসকল এলাকায় জামায়াত কর্মীদের কোনো উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায় নি। কোনো ধরনের মিছিল বা সমাবেশের আয়োজনের চেষ্টা করতেও দেখা যায়নি। কার্যত হরতালের ডাক দিয়ে মাঠে নেই জামায়াত! এ এলাকায় দোকানপাট যেমন খুলেছে, তেমনি সড়কেও যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
হরতালে বসে নেই দূরপাল্লার বাস- ছবি শেখ জাহাঙ্গীর অন্যদিকে জামায়াতের ডাকা হরতালকে কেন্দ্র করে যে কোনো ধরনের নাশকতা এড়াতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ এ চারটি স্থানে। পোশাক ও সাদা পোশাকে এলাকাগুলোর বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অবস্থান নিয়েছেন তারা।

এ সব এলাকায় দায়িত্বরত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এখন পর্যন্ত তারা হরতালের সমর্থনে কোনো মিছিল বা সমাবেশ দেখেননি। তবে হরতালকে কেন্দ্র করে যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে তারা সতর্ক রয়েছেন।

রাজধানীর বাসাবো, কমলাপুর এলাকা থেকে সিনিয়র ফটো করেসপন্ডেন্ট কাশেম হারুন জানান, জামায়াতের ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতালে রাজধানীর কমলাপুর, বাসাবো এলাকায়  হরতাল নেই বললেই চলে। হরতালের পক্ষে কোনো মিছিল বা কাউকে পিকেটিং করতে দেখা যায়নি। 
হরতালে মতিঝিলের চিত্র- ছবি: শাকিল বরং বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তায় যানবাহনের সংখ্যা বেড়েই চলছে। অফিসমুখি মানুষের ভিড়ও ছিলো অন্য দিমেন মতোই।সকাল থেকেই দোকানপাটও খুলতে শুরু করছে মানুষ। 

অন্যান্য দিনের মতই স্বাভাবিক রয়েছে বাসাবো এলাকা। হরতালকে কেন্দ্র করে কোথাও কোন অপ্রীতিকর কোনোকিছু চোখে পড়ে নাই বা শোনা যায়নি। 

এদিকে হরতাল মোকাবিলায় বিভিন্ন পয়েন্টে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যা মোতায়েন রয়েছে। 

সোমবার (০৯ অক্টোবর) রাতে গোপন বৈঠক থেকে গ্রেফতারের পর জামায়াত আমির মকবুল আহমাদ, নায়েবে আমির মিয়া গোলাম পরওয়ার এবং সেক্রেটারি জেনারেল শফিকুর রহমানসহ আটজনকে মঙ্গলবার বিকেলে ১০ দিনের রিমান্ডে পাঠান আদালত।

দলীয় নেতাকর্মীদের মুক্তির জন্য এ কর্মসূচির ডাক দেয় জামায়াত।

বাংলাদেশ সময়: ০৬১২ ঘণ্টা, অক্টোবর ১২, ২০১৭/আপডেট ০৭৪০
এমআইএস/এসজেএ/পিএম/এমএসি/এসআইজে/বিএস  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Loading...
Alexa