[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২২ মে ২০১৮

bangla news

মেয়রের ইন্টারভিউ

৫ বছরে যা পারেননি এবার তা করতে চান আশরাফুল

|
আপডেট: ২০১৬-০৩-১৯ ৮:২৬:০০ এএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

দলীয় কোন্দলের কারণে গত ৫ বছরে তেমন উন্নয়ন করতে পারিনি, তবে আশা করছি এবার করবো। এবার উন্নয়ন করে আগামীতে আবারো নির্বাচন করবো।

ঝিনাইদহ: দলীয় কোন্দলের কারণে গত ৫ বছরে তেমন উন্নয়ন করতে পারিনি, তবে আশা করছি এবার করবো। এবার উন্নয়ন করে আগামীতে আবারো নির্বাচন করবো।

সম্প্রতি বাংলানিউজের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতকারে এভাবে কথাগুলো বলছিলেন ঝিনাইদহের শৈলকুপা পৌরসভার দ্বিতীয় দফায় নির্বাচিত মেয়র কাজী আশরাফুল আজম।

তিনি বলেন, জীবনে নৌকা প্রতীক নিয়ে ভোট করতে পারবো কখনো ভাবতেও পারিনি। এবারে নৌকা প্রতীক পেয়ে খুশি মনে নির্বাচন করেছি।

কাজী আশরাফুল আজম বাংলানিউকে বলেন, রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকার কারণে ১৯৮২ সালের পর থেকে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিয়ে আসছিলাম। ১৯৮৩ সালের ৩০ ডিসেম্বর ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে আমি শৈলকুপা ৪ নম্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই। এরপর ২০১১ সালের ১৩ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো মেয়র নির্বাচিত হই। মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর এলাকায় কিছু উন্নয়ন কাজ করেছি। আর যে কারণে এলাকার মানুষ আবারো দ্বিতীয়বারের মতো আমাকে নির্বাচিত করেছেন।

নির্বাচনের পূর্ব প্রতিশ্রুতি সম্পর্কে মেয়র বলেন, এবার নিয়ে পর পর দুইবার মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। গত সময়ে দায়িত্বে থাকাকালীন দলীয় কোন্দলের কারণে তেমন কোনো উন্নয়ন করতে পারিনি, তবে এবার উন্নয়ন করতে পারবো বলে আশা করছি। সর্বপ্রথম শৈলকুপা উপজেলার মানুষের মৌলিক চাহিদাগুলো পূরণ করার চেষ্টা করবো। পৌরসভা এলাকার রাস্তা, ব্রিজ, কালভার্ট, জলাবদ্ধতা, বিদ্যুৎ, ড্রেনেজ ব্যবস্থাসহ অসম্পূর্ণ অন্যান্য কাজ সমাপ্ত করার চেষ্টা করবো।

নির্বাচনী এলাকার ১৫টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১৪টিতেই আমি প্রথম হয়েছি। ২ নম্বর ওয়ার্ডের চুতুড়িয়া কেন্দ্রে দ্বিতীয় হয়েছি। তাই আমি মনে করি এলাকার বেশিরভাগ ভোটারই আমাকে ভোট দিয়েছেন। ফলে সব এলাকার উন্নয়নই অগ্রাধিকার পাবে।

সংসদ সদস্যদের দায়িত্ব আইন পাশ করা, স্থানীয়দের দায়িত্ব সমস্যা চিহ্নিত করা এবং তার সমাধান করা। সেই সঙ্গে এলাকার উন্নয়ন করা।

এলাকায় স্থানীয় ও গুরুত্বপূর্ণ কোনো সমস্যা থাকলে সেটা কি এবং তার সমাধান প্রশ্নে মেয়র কাজী আশরাফুল আজম বাংলানিউকে বলেন, উপজেলা ভিত্তিক যে পৌরসভা হয়েছে তার মধ্যে শৈলকুপা প্রথম শ্রেণির পৌরসভা। দীর্ঘদিন উন্নয়ন না হওয়ার কারণে এলাকায় বেশ কিছু সমস্যা রয়ে গেছে। আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি এলাকার এ সমস্যা সমাধানে সরকারের কাছে থেকে অতিরিক্ত কিছু বরাদ্দ নেওয়ার। বরাদ্দ পেলে এ পৌরসভাকে একটি মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে পারবো বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন মেয়র কাজী আশরাফুল আজম।

সদ্য নির্বাচিত মেয়র কাজী আশরাফুল আজম ১৯৪৭ সালে শৈলকুপা শহরের কাজীপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা মৃত বদর উদ্দীন হায়দার, আর মা মৃত আখলিমা বেগম। ব্যক্তি জীবনে ৫ সন্তানের জনক তিনি। স্ত্রী মোছা. রিজিয়া বেগম গৃহিণী। ছেলে কাজী আশরাফুল আজিম সরকারি চাকরি করেন। ছোট ছেলে কাজী রফিকুল আশরাফ রাজিব ব্যবসায়ী। তিন মেয়ে হচ্ছেন আনোয়ারা বেগম, শাওন আশরাফ শরমী ও শিমুল আশরাফ উর্মী।

কাজী আশরাফুল আজম বাংলানিউকে জানান, ছোট বেলা থেকে তিনি দল হিসেবে আওয়ামী লীগকে পছন্দ করতেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছেন। এরপর থেকে আওয়ামী লীগের সঙ্গে যুক্ত। কিছুদিন দলে নিষ্ক্রিয় থাকলেও ১৯৯৩ সালে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কামরুজ্জামানের হাত ধরে পূর্ণরূপে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। সেসময় বিএনপির নেতাকর্মীর হাতে নির্যাতিত হয়ে দুই বছর এলাকা ছাড়া ছিলেন। ১৯৯৬ সালে তিনি পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পান। বর্তমানেও তিনি সেই দায়িত্ব পালন করছেন।

মেয়র হিসেবে চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি শপথ নিয়েছেন কাজী আশরাফুল আজম। দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন ১১ ফেব্রুয়ারি।

বাংলাদেশ সময়: ০৮০৬ ঘণ্টা, মার্চ ১৯, ২০১৬
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa