[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৫, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

গাছ লাগিয়ে সওজ’র জমি দখলের পাঁয়তারা 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-১৩ ১২:৫৬:২৯ এএম
নয়ারহাট বাজার এলাকা। ছবি: বাংলানিউজ

নয়ারহাট বাজার এলাকা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা (সাভার): সাভারের আশুলিয়ায় গাছের চারা লাগিয়ে সড়ক ও জনপথের ১৯০ শতাংশ জমি দখলের পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে একটি প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে। এছাড়া ওই জমি লিজের দাবি করে বর্তমান দখলদারদের কাছ প্রতিটি পজিশনের জন্য জোরপূর্বক লাখ লাখ টাকা চাঁদা আদায়েরও অভিযোগ পাওয়া গেছে চক্রটির বিরুদ্ধে। 

বুধবার (সেপ্টেম্বর ১২) ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের নয়ারহাট বাজার এলাকার ব্যবসায়ীরা এ চাঁদাবাজির অভিযোগ করেন। 

নরসুন্দর হরিপদ সাহা বাংলানিউজকে বলেন, বৃটিশ আমল থেকে তার পূর্বপুরুষরা ঐতিহ্যবাহী এই নয়ারহাট বাজারে নরসুন্দরের কাজ করে আসছেন। কিন্তু এর আগে কেউ চাঁদা দাবি করেনি। কিন্তু হঠাৎ করেই নিজেকে স্বেচ্ছাসেবকলীগ পরিচয়দানকারী লেহাজ উদ্দিন ও লোকমান হোসেন নামে দু’ব্যক্তি বাজারের পুরো জমি ইজারা নিয়েছেন বলে তাদের জানায়। তাই ব্যবসা পরিচালনা করতে হলে তাকে দোকানের পজিশনের জন্য ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দিতে হবেও জানানো হয়। অন্যথায় তাদের ব্যবসা করতে দেওয়া হবে না বলেও হুমকি দিয়ে যায় লেহাজ উদ্দিনের লোকজন। আর তাদের ভয়ে গর্জন পীর, মিরু খাঁ ও খোকা মিয়া নামে তিন ব্যবসায়ী ইতোমধ্যে চাঁদার টাকা পরিশোধ করেছেন।
 
একই ধরনের অভিযোগ মোটর যন্ত্রাংশ ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান, ধান ব্যবসায়ী মনির হোসেন ও শফিকুর রহমানসহ প্রায় দুই শতাধিক ব্যবসায়ীর।   

সেনেটারি ব্যবসায়ী জালাল আহম্মেদ বলেন, প্রায় ১৫ বছর ধরে নয়ারহাট এলাকায় সেনেটারি ব্যবসা করছেন তিনি। সম্প্রতি তার দোকানের পজিশনের জন্য ৬০ হাজার টাকা সদস্য খরচ ও দোকানের দাম ৪ লাখ টাকা দিতে হবে বলে শাসিয়ে যান লেহাজ উদ্দিন ও তার লোকজন। এ ঘটনার পর হঠাৎ শনিবার সকালে লোকজন নিয়ে বিভিন্ন দোকানের সামনে জোরপূর্বক মেহগণি গাছের চারা রোপণ করে যায় তারা। এ সময় বাঁধা দিতে গেলে তাদের নামে মিথ্যা মামলা দেওয়ার হুমকিও দেওয়া করা হয়।

তিনি আরও বলেন, নয়ারহাট এলাকায় সওজ’র জমিতে ১শ বছর পুরনো একটি জয়কালি মন্দিরসহ প্রায় দুই শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কিন্তু লেহাজ ও লোকমানের অত্যাচারে আতঙ্কে রয়েছেন ব্যবসায়ীরা। 

নয়ারহাট বাজারের ব্যবসায়ী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহাজ উদ্দিন বলেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে কিছু প্রতারক চক্র সওজের জমি দখল করতে বিগত কয়েক মাস ধরেই নানা পাঁয়তারা করে আসছে। তবে সওজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ওই স্থানে বনায়নের কোনো অনুমতি দেওয়া হয়নি বলে তাদের জানানো হয়।

এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ নয়ারহাট শাখার উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আতিকুললাহ ভূঁইয়া বাংলানিউজকে বলেন, কয়েক মাস আগে নয়ারহাট এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের উত্তর ও দক্ষিণ পাশের ২৫তম ও ২৬তম কিলোমিটার বাগধনিয়া মৌজাধীন ১৯০ শতাংশ ভূমিতে বনায়নের জন্য আবেদন করেন লেহাজ উদ্দিন ও লোকমান হোসেন নামে দু’ব্যক্তি। আবেদনটি সরকারি বিধি অনুযায়ী মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। যা এখনও পর্যন্ত অনুমোদিত হয়নি। আর ভূমি ইজারা দেওয়ার বিষয়টিও তিনি অস্বীকার করেন। 

তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি নয়ারহাট এলাকার দোকানিদের কাছ থেকে সওজ’র জমি ইজারা নেওয়ার কথা বলে প্রতারকদের চাঁদা উত্তোলন ও চারা রোপণের অভিযোগ তিনি পেয়েছেন। এর আগে সওজ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে এ ধরনের প্রতারণা সম্বন্ধে সজাগ থাকতে সবাইকে অবগতি পত্রও দেন। তবে ব্যবসায়ীদের অভিযোগ প্রমাণিত হলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।  

বাংলাদেশ সময়: ০০৫৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮
এএটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa