[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ আষাঢ় ১৪২৫, ১৯ জুন ২০১৮

bangla news

ঈদ ঘিরে নতুন আঙ্গিকে বিনোদনকেন্দ্র

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-১৪ ৪:৩৩:৫৮ পিএম
নতুন আঙ্গিকে বিনোদনকেন্দ্র। ছবি: বাংলানিউজ

নতুন আঙ্গিকে বিনোদনকেন্দ্র। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ঈদের বাকি মাত্র দুই বা তিন দিন। তাই এ আনন্দকে বাড়িয়ে দিতে প্রস্তুতি সেরেছে রাজধানীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোও। পুরনো খোলসে আবরণ দিয়ে নতুন আঙ্গিকে দর্শনার্থীদের বিনোদন দিতে হাজির হচ্ছে এসব কেন্দ্রগুলো।

এরই মধ্যে টিকিট কাউন্টার, হাঁটার পথ, বসার জায়গা, খাবার স্থানসহ সব জায়গাই পরিষ্কার পরিপাটি করে রঙ করা হয়েছে। দেখলে মনে হবে নতুন কোনো বিনোদনকেন্দ্র।
 
মিরপুর জাতীয় চিড়িয়াখানা, শ্যামলী শিশু মেলা বা ওয়ান্ডরল্যান্ড, শাহবাগের শিশু পার্ক সবই সাজানো হয়েছে ঈদকে ঘিরে। ঈদের ছুটিতে ছোট্ট শিশু থেকে বৃদ্ধরা যেনো অনায়াসে ঘুরতে পারেন, কেন্দ্রগুলোতে সেই ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
 
শ্যামলী শিশু মেলার ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ নুরুল হুদা বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের সবগুলো রাইডই নতুন করে সাজানো হচ্ছে। শিশুরা যেনো প্রবেশ করেই উপভোগ করতে পারে সেভাবেই সাজানো হয়েছে। তাছাড়া রাইডগুলো নতুন করে সংস্কার করা হয়েছে। যেটা পরিবর্তন করার দরকার, সেটা পরিবর্তন করে দিয়েছি। ঈদে আসলে নতুন মনে হবে সবকিছু।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, চুকচুক ট্রেন, হাঁসের জলকেলি, থ্রিডি সিনেমা হল, কিডস জোনসহ সর্বত্রই রঙ দিয়ে পরিপাটি করা হচ্ছে। শিশুমেলার ভেতরের সমস্ত জায়গা ধুয়েমুছে পরিষ্কার করা হয়েছে।নতুন আঙ্গিকে বিনোদনকেন্দ্র। ছবি: বাংলানিউজ
 শ্যামলী শিশু মেলায় ২০টি রাইড রয়েছে। প্রতিটি রাইডে চড়তে গুণতে হবে ৪০ টাকা। আর প্রবেশ মূল্য ৫০ টাকা। এই ঈদে শিশুদের প্রাণকেন্দ্র হতে পারে শ্যামলী শিশুমেলা। এটি প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।
 
এছাড়া ঈদের ছুটিতে ঘুরে আসতে পারেন শাহবাগ জাতীয় শিশু পার্কে। সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত এই শিশু পার্কটিতে ঈদের বাড়তি ছোয়া লাগেনি। আগের সব রাইড যেমন ছিলো তেমনই আছে। তবে আয়তনে বড় হওয়ায় এখানে শিশুরা দৌড়াদৌড়ি করে সময় কাটাতে পারে। ইট-পাথরের বন্দি দশা ভুলিয়ে দেবে শাহবাগ শিশু পার্ক। এর প্রবেশ মূল্য ১৫ টাকা।
 
যারা পুরো পরিবার নিয়ে ঈদের ছুটিতে ঘুড়তে চান তাদের জন্য ঢাকা শহরের মধ্যই বিনোদনের ব্যবস্থা করেছে জাতীয় চিড়িয়াখানা। এখানে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত দর্শনার্থীরা ঘুরে বেড়াতে পারবেন। বাঘ, সিংহ, হরিণ, ময়ুর, উটপাখিসহ বিভিন্ন প্রজাতির পশু পাখির সঙ্গে শিশুদের পরিচিতির উপযুক্ত জায়গা এই চিড়িয়াখানা। এখানেও ঈদ উপলক্ষে সাজানো হয়েছে নতুন আঙ্গিকে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৬৩০ ঘণ্টা, জুন ১৪, ২০১৮
এসএম/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa