[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ আষাঢ় ১৪২৫, ২১ জুন ২০১৮

bangla news

ঈদযাত্রা নিরাপদ করতে রেল পুলিশের সতর্কতা জারি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-১২ ৯:২৯:২৪ পিএম
চেকিংয়ের জন্য ট্রেনে রেলওয়ে পুলিশ

চেকিংয়ের জন্য ট্রেনে রেলওয়ে পুলিশ

নীলফামারী: ঈদযাত্রা নিরাপদ ও নির্বিঘœ করতে সৈয়দপুর রেলওয়ে জেলা পুলিশ বিশেষ সতর্কতা জারি করেছে। মোতায়েন করা হয়েছে ৭৮৫ জন পুলিশ সদস্য। রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের ৪৭টি স্টেশনে সার্বক্ষণিক পাহারা বসানো হয়েছে। সেই সঙ্গে রেল পুলিশের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। 

একই সঙ্গে ট্রেনে ছিনতাই, রাহাজানি, মলম পার্টির দৌরাত্ম্য, চোরাচালান ও নাশকতা বন্ধে সতর্ক করা হয়েছে রেলওয়ে পুলিশকে (জিআরপি)। 

মঙ্গলবার (১২ জুন) সৈয়দপুর রেলওয়ে জেলা পুলিশ বিশেষ সতর্কতা জারি করে প্রচার করছে। এতে বলা হয়- পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের বড় বড় ৪৪টি স্টেশনে তথ্য কেন্দ্র খোলা হয়। এ থেকে যাত্রীদের নানামুখী সেবা ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। যাত্রীবেশে কেউ যাতে ট্রেনে নাশকতা চালাতে না পারে সেজন্য পুলিশ মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে সন্দেহভাজন যাত্রীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখছেন। স্থাপন করা হয়েছে স্ক্যানারও।
 
ট্রেনে ট্রেনে প্রচারপত্র বিলি করছে পুলিশ। যাত্রী সচেতনতার জন্য প্রতিটি স্টেশনে পোস্টার ও ব্যানার লাগানো হয়েছে। রেল যাত্রীদের সতর্ক করে বলা হয়, আপনারা কেউ ট্রেনের ছাদে, ইঞ্জিনে ভ্রমণ করবেন না। বিনা টিকিটে রেল ভ্রমণ করবেন না, কালোবাজারীদের কাছ থেকে টিকিট কিনবেন না, অযথা ট্রেন থামাতে চেইন টানবেন না, মাদকদ্রব্য চোরাচালানী পণ্য বহন করবেন না, নাশকতার চেষ্টা করা হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া চলন্ত ট্রেনে কেউ ঢিল ছুঁড়লে তাকে কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না।

সূত্রটি জানায়, সৈয়দপুর রেলওয়ে জেলার অধীনে রয়েছে ১২টি থানা ও ১৭টি পুলিশ ফাঁড়ি। থানাগুলো হচ্ছে সৈয়দপুর সদর, দিনাজপুর, পার্বতীপুর, লালমনিরহাট, বোনারপাড়া, সান্তাহার, ঈশ্বরদী, সিরাজগঞ্জ, রাজশাহী, রাজবাড়ি, পোড়াদহ ও খুলনা। এসব থানাসহ ১৭টি ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। 

সূত্রটি আরো জানায়, রেলওয়ে পুলিশকে সহায়তা দিতে ১১০ জন ব্যাটালিয়নও মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া রেলপথ সন্নিবেশিত প্রতিটি জেলার পুলিশ রেলওয়ে পুলিশকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেবে।

সৈয়দপুর রেলওয়ে জেলা পুলিশ সুপার সিদ্দিকী তাঞ্জিলুর রহমান বলেন, আমরা ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের সার্বিক নিরপত্তার বিষয়টি পরিকল্পনায় রেখেছি। এজন্য বিশেষ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। টানা ১৫ দিন রেলওয়ে পুলিশ লাগাতার যাত্রী সেবায় নিয়োজিত থাকবে। যাত্রীবেশে কেউ আগ্নেয়াস্ত্র বা বিস্ফোরক দ্রব্য বহন করছেন কিনা তা নির্ণয় করা যাবে মেটাল ডিটেক্টরে। 

অনুরূপ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলেও নেওয়া হয়েছে বলে পুলিশ সুপার সিদ্দিকী তাঞ্জিলুর রহমান জানান। 

বাংলাদেশ সময়: ২১২৪ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০১৮ 
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa