[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৩ মে ২০১৮

bangla news

পত্নীতলায় অপহরণের ১৩ দিনপর স্কুলছাত্রী উদ্ধার, আটক ২

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৫-১৭ ৮:৩২:০৭ পিএম
নওগাঁ ম্যাপ (ফাইল ফটো)

নওগাঁ ম্যাপ (ফাইল ফটো)

নওগাঁ: নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণের ১৩ দিনপর উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার (১৭ মে) সকালে কুষ্টিয়া জেলা দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপপাড়া গ্রাম থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। 

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে অপহরণকারী মেহেদী হাসান (২১) ও তার মা মেরিনা বেগমকে (৪০) আটক করা হয়েছে। তারা উপজেলার নজিপুর পৌরসভার পালশা এলাকার মন্টু ইসলামের ছেলে ও স্ত্রী।

পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, নজিপুর পৌরসভা হরিরামপুর এলাকার এক স্কুলছাত্রীকে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন পালশা এলাকার মন্টু ইসলামের ছেলে মেহেদি হাসান। প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ৩ মে সকাল ১০টায় নজিপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের গেটের সামনে থেকে মেহেদি ওই স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে।

এ ঘটনায় ১৫ মে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা ইসারুল ইসলাম পত্নীতলা থানায় মামলা করেন। মামলার সূত্র ধরে পত্নীতলা থানা পুলিশের একটি দল অপহরণকারীর মা মেরিনা বেগমকে আটক করে। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপপাড়া গ্রাম থেকে ওই স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার ও অপহরণকারী মূল হোতা মেহেদীকে আটক করা হয়। 

ওই স্কুলছাত্রীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য নওগাঁ সিভিল সার্জনের তত্বাবধানে পাঠানো হয়েছে। অপহরণকারী মেহেদী ও তার মা মেরিনাকে কোর্ট মারফত কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৪ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০১৮
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa