[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ১৭ মে ২০১৮

bangla news

মোবাইল অ্যাপসে অটোরিকশা কতদূর?

সাব্বির আহমেদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০২-১১ ৫:২৬:৩২ এএম
মোবাইল অ্যাপসে অটোরিকশা

মোবাইল অ্যাপসে অটোরিকশা

ঢাকা: চলতি বছরের শুরুতেই সিএনজি চালিত অটোরিকশাকে মোবাইল অ্যাপসে নিয়ে আসার কথা বলেছিলো কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। কিন্তু তাদের সে উদ্যোগ সফল হচ্ছে না। অ্যাপ প্রস্তুত ও কিছু সংখ্যক অটোরিকশা চালককে প্রশিক্ষণ ও মোবাইল দিয়েও লাভ হয়নি। 

মোবাইল অ্যাপসে অটোরিকশা আনতে প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধান প্রতিবন্ধকতা হয়ে দাঁড়িয়েছে, চালকদের মোবাইল প্রযুক্তি জ্ঞানের অভাব ও কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় গ্রাহক না পাওয়া।

তবে মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং দিয়ে পরিচিতি পাওয়া দু’একটি অ্যাপস অটোরিকশাকে মোবাইল অ্যাপসে আনতে নতুন করে চেষ্টা শুরু করেছে। এর মধ্যে ‘মুভ’ ও ‘স্যাম’ রয়েছে।

মুভ-এর প্রধান নির্বাহী ফাহাদ ইবনে ওয়াহাব বাংলানিউজকে বলেন, মুভ শুরু হয়েছিলো সিএনজি চালিত অটোরিকশাকে মোবাইল অ্যাপসে নিয়ে আসার জন্যই। যদিও মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং দিয়েই শুরু করতে হয়েছে। আমরা কাজ করছি। এটা নিশ্চিত যে, মুভ অ্যাপে অটোরিকশা আসবেই। আমাদের অ্যাপে অটোরিকশা ফিচার যুক্ত আছে। কিন্তু এখনই রিকুয়েস্ট দিয়ে অটোরিকশা পাওয়া যাবে না। মার্চে অটোরিকশা মিলবে মুভ অ্যাপে।

এদিকে ঢাকার প্রথম মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং অ্যাপ স্যাম নতুন করে সিএনজি চালিত অটোরিকশা নিয়ে নামবে শিগগিরই বলে জানান স্যাম’র প্রতিষ্ঠাতা ইমতিয়াজ কাসেম।

বাংলানিউজকে তিনি জানান, মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং-এ তাদের রাইড সংখ্যা সন্তোষজনক। এর সঙ্গে অটোরিকশা যোগ করার কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। সহজ ও ভালোমানের অ্যাপস সুবিধা স্যাম-এ মিলবে বলে জানান তিনি।

সিএনজি চালিত অটোরিকশাকে জানুয়ারি মাসের প্রথম দিন অ্যাপে যুক্ত করেই হোঁচট খেয়েছে ‘গতি’ অ্যাপ। এরও আগে অনেক ঘোষণা দিয়েও আসতে পারেনি ‘হ্যালো’ নামে আরেকটি অটোরিকশা ‘অ্যাপ’।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ‘গতি’ অ্যাপের প্রধান নির্বাহী এন জামান চৌধুরী জেমস বাংলানিউজকে বলেন, প্রথমত অটোরিকশা চালকদের শিক্ষার অভাব আর দ্বিতীয়ত অটোরিকশা রাস্তার যেকোন জাযগায় বসে থাকলে একটা না একটা ট্রিপ পায়। এসব কারণে অ্যাপ চালু করে তাতে ট্রিপ নিতে তাদের ততটা আগ্রহ এখনও নেই।

তিনি আরও বলেন, রাস্তায় গিয়ে দাঁড়ালেই প্রাইভেট কার বা ট্যাক্সি পাওয়া যায় না। এ কারণে উবার অ্যাপের মাধ্যমেই প্রাইভেট কার বা ট্যাক্সি খুঁজতে হয়। কিন্তু রাস্তায় গিয়ে খুঁজলেই অটোরিকশা পাওয়া যায়-এটাও একটা কারণ অটোরিকশা অ্যাপ চালু না হওয়ার।
 
তবে ‘গতি’ অ্যাপের কাজ চলছে। মার্চ মাসে গুলশান, বনানী, বসুন্ধরা ও ধানমন্ডির মতো কিছু নির্ধারিত এলাকায় সিএনজি চালিত অটোরিকশা মোবাইল অ্যাপসেই মিলবে- জানান জেমস।

ঢাকায় ২০১৬ সালে মোবাইল অ্যাপস ভিত্তিক পরিবহন ব্যবস্থা চালু হলেও জনপ্রিয়তা পায় ২০১৭ সালে। ওই বছরের পুরোটা সময় আলোচনায় ছিল উবার, পাঠাও, স্যামের মতো অ্যাপসভিত্তিক পরিবহন সেবা। এর মধ্যে উবার পুরোপুরি রাইড শেয়ারিং নয়, তবে মোটরসাইকেল অ্যাপসগুলো রাইড শেয়ারিং নীতিতেই চলছে। 

রাইড শেয়ারিং নীতিমালা মন্ত্রণালয়ে অনুমোদন পেলেও তার বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া শুরু হয়নি। এ নিয়ে স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গে বৈঠক হওয়ার কথা কিছুদিনের মধ্যেই। আর বছরের শেষ দিকে এসে সবচেয়ে ভোগান্তির সৃষ্টি করা সিএনজি চালিত অটোরিকশাও বাধ্য হয় অ্যাপে আসতে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অটোরিকশাকে অ্যাপে নিয়ে আসতে বেগ পোহাতে হচ্ছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অ্যাপে সিএনজি চালিত অটোরিকশা এলে রাইড শেয়াংরিং নয়, অ্যাপভিত্তিক থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৫২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৮
এসএ/এমজেএফ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa