ঢাকা, শুক্রবার, ৪ কার্তিক ১৪২৪, ২০ অক্টোবর ২০১৭

bangla news

অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত শিশু মিরাজ ফের হাসপাতালে

খোরশেদ আলম সাগর, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১০-১৩ ৬:২৯:০১ পিএম
অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত শিশু মিরাজ ফের হাসপাতালে

অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত শিশু মিরাজ ফের হাসপাতালে

লালমনিরহাট: অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত শিশু মিরাজ আবারো অসুস্থ হয়ে লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) সকালে স্থানীয় হাতিবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে ভর্তি করা হয়।

মিরাজ লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলার পূর্ব সিন্দুর্না গ্রামের ভূমিহীন দিনমজুর আব্দুল হামিদের ছেলে। সে স্থানীয় হাতিবান্ধা ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র।

এর আগে ২২ জুলাই দেশের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলানিউজে '' স্কুল যেতে পারছে না মিরাজ '' এ শিরোনামে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। সেই খবরের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ শিশু মিরাজের পাশে দাঁড়ায়। শুধু সরকারি ভাবে নয় ব্যক্তিগত উদ্যোগেও মিরাজে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন অনেকেই।

পরদিন ২৩ জুলাই লালমনিরহাট সিভিল সার্জনের তত্ত্বাবধানে মিরাজকে নেয়া হয় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে। সেখানে ৪ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের নিবিড় পরিচর্যায় ১৩ দিন চিকিৎসা শেষে মিরাজকে উন্নত পরীক্ষার জন্য ৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠানো হয়। সেখানে পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে রোগ শনাক্ত না হলেও কিছুটা সুস্থ করে ৬ আগস্ট মিরাজকে চিকিৎসাপত্র দিয়ে বাড়িতে পাঠানো হয়। চিকিৎসকরা জানান আবারো অসুস্থ হলে তাকে ঢাকায় নিতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) আবারো অসুস্থ হলে তাকে স্থানীয় হাতিবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসকরা জানান, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর বা ঢাকা নিতে হবে। কিন্তু ভূমিহীন দিনমজুর বাবা অর্থের অভাবে মিরাজকে নিয়ে আবারো চরম বিপাকে পড়েছেন।

মিরাজের বাবা আব্দুল হামিদ বাংলানিউজকে জানান, দেশবাসীর দোয়ায় মিরাজ অনেকটাই সুস্থ হয়েছিল। কিন্তু গত দুই দিন ধরে মাথা ও চোখের প্রণ্ডন্ড ব্যথায় কাতরাচ্ছে মিরাজ। উপায়ান্তর না পেয়ে হাতিবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসকরা তাকে রংপুর বা ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু টাকার অভাবে তাকে নিতে পারছে না তার বাবা।

হাতিবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রমজান আলী বাংলানিউজকে জানান, মিরাজের উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। এ জন্য তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল অথবা ঢাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, জন্মের ৬ মাস বয়সে গায়ে চুলকানী হয় শিশু মিরাজের। আস্তে আস্তে তা পুরো শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসার পর রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চর্মরোগ বিভাগে চিকিৎসা করা হলেও উন্নতি হয়নি।

** মিরাজ এখন কিছুটা সুস্থ

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৫ ঘণ্টা, ১৩ অক্টোবর, ২০১৭
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Loading...
Alexa