[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ মাঘ ১৪২৪, ১৯ জানুয়ারি ২০১৮

bangla news

বাবাকে কী জবাব দেবো?

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৯-১৪ ১১:১৮:১০ এএম
মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা- ছবি: জিএম মুজিবুর

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা- ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: ঘড়ির কাটায় সকাল ১০ টা। রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে দাঁড়িয়েছেন পপি রায়। ওড়না দিয়ে চোখ মুছছেন আর বলছেন, বাবাকে আমি কি জবাব দেবো?

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত রাজধানীর সাত কলেজের ২০১১-১২ সেশনের শিক্ষার্থীরা অনার্সের রেজাল্ট প্রকাশের দাবিতে মানববন্ধন করেন। 

পপি রায় ইডেন মহিলা কলেজের ফিনান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী। বলেন, আমি দরিদ্র পরিবারের বড় সন্তান। খুব কষ্ট করে বাবা আমাকে পড়ালেখা শিখিয়েছেন। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে আনায় আমাদের আট মাসেও রেজাল্ট হচ্ছে না। কোনো সরকারি চাকরিতে পরীক্ষা দিতে পারছি না। অথচ আমাদের সঙ্গে অন্য কলেজ থেকে যারা পরীক্ষা দিয়েছেন তাদের রেজাল্টও হয়ে গেছে তারা বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষাও দিতে পারছে। অনেকের চাকরিও পেয়ে গেছে। বাবা যখন জিজ্ঞেস করেন কী করবো তখন আমি  কোনো জবাব দিতে পারি না। বাবাকে আমি কী জবাব দেবো। 

পপি রায়ের মতো একই অবস্থা সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হওয়া সাতটি সরকারি কলেজের ২ লাখ ৭ হাজার শিক্ষার্থীর। 
মানববন্ধনে অংশ নেওয়া জাহিদ বলেন, আমরা ৩৮তম বিসিএসে এপিয়ার্ড রেজাল্ট দেখিয়ে আবেদন করেছি। তাতেও অনেক ঝামেলা পোহাতে হয়েছে। আমাদের দায়িত্ব না ঢাবি নিচ্ছে, না জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় নিচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে আমরা কোনো চাকরি পাবো না। বেকার অনিশ্চিত জীবন নিয়ে সামনের পথটা কিভাবে হাটবো আমরা জানি না।

অন্যদিকে ইডেন মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী বলেন, চাকরিসহ বিভিন্ন জায়গায় ঢাবির শিক্ষার্থীরা মানসিকভাবে আমাদের বিপাকে ফেলেন। আমরা জীবন বৃত্তান্ত  দিলে তারা বলেন, আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের না। আবার আমরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের না। আমরা যাবো কোথায়।

মানববন্ধনে অতি শিগগরিই ২০১১-১২ শিক্ষা বর্ষের অনার্সের রেজাল্ট প্রকাশের দাবি জানানো হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১১১৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭
ইউএম/বিএস 
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa