[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১১ ডিসেম্বর ২০১৭

bangla news

মাছ ধরার ফাঁদে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা হাওরবাসীর!

সৌমিন খেলন, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৮-১২ ৬:২৯:৫৩ পিএম
মাছ ধরার ফাঁদ বিক্রি করতে নেওয়া হচ্ছে নৌকায়। ছবি: বাংলানিউজ

মাছ ধরার ফাঁদ বিক্রি করতে নেওয়া হচ্ছে নৌকায়। ছবি: বাংলানিউজ

খালিয়াজুরী (নেত্রকোনা) থেকে: অকাল বন্যায় ফসল হারানোর পর জীবনযুদ্ধে টিকে থাকতে প্রায় প্রতিটি পরিবারের সদস্যরা এখন মাছ ধরছেন। খাওয়ার জন্য কিছু মাছ রেখে দিয়ে বাকিগুলো বিক্রি করে সংসার চালাচ্ছেন। ফলে মাছ ধরার ফাঁদের চাহিদা অনেক বেড়ে গেছে, সেগুলোও তৈরি করছেন নিজেরাই।

এভাবেই পাল্টে গেছে হাওরবাসীর জীবনধারা। পেশার ক্ষেত্রেও এসেছে আমূল পরিবর্তন। প্রত্যেকেই এখন অপরিচিত কাজে পারদর্শিতা অর্জন করে পরিবারের জন্য রোজগার করছেন। সারা বছর জমিতে যিনি ফসল বুনতেন, সেই কৃষকও এখন তৈরি করছেন মাছ ধরার ফাঁদ!

জেলা, উপজেলা ও শহরতলীর এলাকাগুলো বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় প্রাপ্তবয়স্ক ও শিশুদের মাঝেও চলছে মাছ ধরার হিড়িক। অপেশাদার এসব জেলের কাছেও জালের চেয়ে ফাঁদের চাহিদাই বেশি।

সারা বছর জমিতে যিনি ফসল বুনতেন, সেই কৃষকও এখন তৈরি করছেন মাছ ধরার ফাঁদ। ছবি: বাংলানিউজসরেজমিনে খালিয়াজুরী উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, শতাধিক পরিবারের গৃহকর্তা তাদের স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে ফাঁদ তৈরিতে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন।

বিভিন্ন জেলা থেকে আসা খুচরা ব্যবসায়ীরাও হাওরাঞ্চল থেকে ফাঁদ কিনে নিয়ে স্থানীয় বাজারগুলোতে কিছুটা লাভে বিক্রি করছেন। বাঁশের শলা ও প্লাস্টিকে তৈরি বিভিন্ন আকার-আকৃতির ওইসব ফাঁদ ১০০ টাকা থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

কারো কারো মতে, এ দুঃসময়ে নারী-পুরুষ ও শিশুসহ পরিবারের কোনো সদস্যেরই বেকার বসে থাকার সুযোগ নেই। নারীরা ঘরের যাবতীয় কাজ ও রান্না-বান্না এবং শিশুরা পড়াশোনা শেষে ফাঁদ তৈরি করছেন। ফসল হারিয়ে ক্ষতি যা হয়েছে, তা পোষানো সম্ভব নয়। তবে ফাঁদ তৈরি করে কোনোমতে জীবন চলছে তাদের।

ফাঁদ তৈরিতে হাত লাগান পরিবারের নারী-শিশুরাও। ছবি: বাংলানিউজআর এ কর্মব্যস্ততাই হাওরবাসীর ঘুরে দাঁড়ানোর একটি চেষ্টা...।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩০ ঘণ্টা, আগস্ট ১৩, ২০১৭
এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Alexa