Alexa
ঢাকা, সোমবার, ৯ শ্রাবণ ১৪২৪, ২৪ জুলাই ২০১৭

bangla news

শেরপুরে অপহরণ মামলায় যুবকের ১৪ বছরের সাজা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৭-১৭ ৮:১৬:২৪ পিএম
কারাদণ্ড (প্রতীকী)

কারাদণ্ড (প্রতীকী)

শেরপুর: শেরপুরে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুলছাত্রীকে অস্ত্রের মুখে অপহরণের দায়ে এক যুবকের ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৭ জুলাই) বিকেলে শেরপুরের শিশু আদালতের বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন এ সাজার আদেশ দেন।

সাজার আদেশপ্রাপ্ত মাসুদ মিয়া (২২) শেরপুর শহরের চাপাতলি এলাকার আব্দুল মালেক ড্রাইভারের ছেলে। রায় ঘোষণার সময় আসামি মাসুদ মিয়া আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, নালিতাবাড়ী উপজেলার বাথুয়ারকান্দা গ্রামের এক ব্যক্তি শেরপুর সদর শহরের চাপাতলি এলাকায় তার স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে নিয়ে বসবাস করতেন। চাপাতলি মহল্লার আব্দুল মালেক ড্রাইভারের ছেলে মাসুদ মিয়া ওই স্কুলছাত্রীকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতো। তিন বছর পর মেয়েকে তুলে নেওয়ার সমঝোতায় একপর্যায়ে মেয়ের বাবা বাধ্য হয়ে অনার্স পড়ুয়া একটি ছেলের সঙ্গে মেয়েটির বিয়ে দেন। কিন্তু তাতেও থেমে না থেকে মাসুদ ২০১৬ সালের ২০ মার্চ অস্ত্রের মুখে ওই স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে তুলে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শিশু আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

সদর থানার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল হাসান ঘটনার চার মাস পর ভিকটিমকে উদ্ধার করে অপহরণকারী মাসুদকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালত ৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সোমবার মাসুদকে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৪ ঘণ্টা, ১৭ জুলাই, ২০১৭
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

You May Like..
Alexa