[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৮ নভেম্বর ২০১৭

bangla news

ঢাকা-উত্তরাঞ্চল রুটে যানজটের দুর্ভোগ চরমে

শামীম খান, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৬-১৯ ৯:৩২:৪৫ পিএম
যানজটের ফাইল ফটো

যানজটের ফাইল ফটো

ঢাকা: উত্তরাঞ্চলের জেলা লালমনিরহাট থেকে ঢাকায় আসতে পথে পথে যানজটের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। শুধু লালমনিরহাটই নয়, উত্তরাঞ্চল থেকে আসা প্রতিটি যানবাহনের যাত্রীদেরকেই এ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু সেতুর পর থেকে গাজীপুরের কালিয়াকৈরের চন্দ্রা পর্যন্ত রাস্তায় সব সময়ই প্রচণ্ড যানজট লেগে থাকে।  চন্দ্রা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত রাস্তাকে চারলেন করার কাজ চলায় যানজটের এ দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।

গত ১৪ জুন লালমনিরহাট থেকে ঢাকায় আসার সময় মানুষের এ চরম দুর্ভোগ দেখা গেছে। ওইদিন রাত সাড়ে ৮টায় শাহ আলী পরিবহনের বাস লালমনিরহাটের আদিতমারী থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। পথে যাত্রী ওঠাতে লালমনিরহাট শহরে কিছুটা সময় যাত্রাবিরতি দেয়। লালমনিরহাট শহর ছেড়ে কিছু দূর আসার পরই হাইওয়েতে বাসটির যান্ত্রিক কিছু সমস্যা দেখা দেয়। এরপর লালমনিরহাট থেকে লোকজন এসে ঠিক করে দিয়ে যান। এতে আধা ঘণ্টার বেশি সময় ব্যয় হয়।

এরপর বগুড়ার শেরপুরের ফুড ভিলেজে প্রায় আধা ঘণ্টা যাত্রাবিরতি দেওয়া হয়। সেখান থেকে যাত্রা করে বঙ্গবন্ধু সেতু পার হওয়ার পর কিছু দূর এগোলেই শুরু হয় যানজট। এ যানজটের ধকল সাভার পর্যন্ত চলতে থাকে।

সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল, গাজীপুর, আশুলিয়ার ওপর দিয়ে পুরো রাস্তাজুড়েই দু:সহ যানজটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তায় বসে থাকতে হয় যাত্রীদের। চারলেনের কাজ চলতে থাকায় রাস্তার মধ্যে যত্রতত্র গর্ত, ইট, পাথর, বালির স্তুপ দৃশ্যমান। কোথাও কোথাও একপাশ দিয়ে কাজ চলছে, আরেকপাশ দিয়ে যানবাহন ঘুরে চলাচল করছে।

রাস্তার কোনো কোনো অংশে মাটি ফেলা হয়েছে। সেখানে বৃষ্টির পানি জমে আছে। কোথাও কোথাও পাথর ফেলা হয়েছে, কিন্তু এখনও লেভেলিং কাজ হয়নি।

সব ধরনের যানবাহনকেই রাস্তার এ বিস্তীর্ণ অংশের কোথাও কোথাও পায়ে হেঁটে চলার গতিতে চলাচল করতে হচ্ছে। আবার কোথাও কোথাও থেমেও থাকতে হচ্ছে।

ফলে বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে চন্দ্রা পর্যন্ত পার হতেই তিন-সাড়ে তিন ঘণ্টা সময় কেটে যাচ্ছে। আর এ যানজটের প্রভাব চন্দ্রা থেকে আশুলিয়া-নবীনগর হয়ে সাভার পর্যন্ত গড়াচ্ছে।

সব মিলে সব ধরনের যানবাহনের ঢাকা পর্যন্ত গন্তব্যে পৌঁছাতে নির্দিষ্ট সময়ের চেয়ে তিন-চার ঘণ্টা বেশি লাগায় যাত্রীদেরকে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে।

রাস্তায় যানজটের কারণে লালমনিরহাটের আদিতমারী থেকে রাত সাড়ে ৮টায় ছেড়ে আসা বাসটি পরদিন দুপুর সাড়ে ১১টায় ঢাকার কল্যাণপুরে এসে পৌঁছে।

একই পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া উত্তরাঞ্চলমুখী যানবাহনগুলোকে। নীলফামারীর সৈয়দপুরগামী এসআর পরিবহনের বাস গত ০৮ জুন সকাল ৮টায় গাবতলী থেকে ছেড়ে একই ধরনের পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে সন্ধ্যা ৬টায় পৌঁছে।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৩০ ঘণ্টা, জুন ১৯, ২০১৭
এসকে/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Loading...
Alexa